ইসরাইল যুক্তরাজ্যের অবৈধ সন্তানঃ ফিলিস্তিন প্রেসিডেন্ট
today-news
brac-epl
প্রচ্ছদ » আন্তর্জাতিক

ইসরাইল যুক্তরাজ্যের অবৈধ সন্তানঃ ফিলিস্তিন প্রেসিডেন্ট

ফিলিস্তিনের রাষ্ট্রপতি মাহমুদ আব্বাস বলেছেন, যুক্তরাজ্য অবৈধভাবে বিশ্বসন্ত্রাস ইসরাইলের জন্ম দিয়েছে। ১৯১৭ সালে যুক্তরাজ্যের দেওয়া বেলফোর ঘোষণা এবং তাদের অব্যাহত সহযোগিতায় এই রাষ্ট্রের জন্ম হয়েছে।

তিনি বলেছেন, এ বিষয়ে ফিলিস্তিন যুক্তরাজ্যের বিরুদ্ধে আন্তর্জাতিক আদালতে যাবে।

Uk-Israel-Flag

সাবেক ঔপনিবেশিক শক্তি যুক্তরাজ্যের অবৈধ হস্তক্ষেপে ইসরাইল নামের দানব রাষ্ট্রের জন্ম হয়, যারা ফিলিস্তিনিদের বাস্তুচ্যুত করছে, পাখির মতো গুলি করে মারছে। এ কারণে বিশ্বের সব মুসলিম ইসরাইলের পাশাপাশি যুক্তরাজ্যকে ঘৃণা করে। ছবিতে ইরানে ইসরাইল ও যুক্তরাজ্যের পতাকা পোড়াতে দেখা যাচ্ছে-ফাইল ফটো

আজ মঙ্গলবার মৌরিতানিয়ার রাজধানীতে শুরু হওয়া আরবলীগের সম্মেলনের উদ্বোধনী পর্বে ফিলিস্তিন প্রেসিডেন্ট এ অভিযোগ করেন। অবশ্য সম্মেলনে তিনি স্বশরীরে উপস্থিত ছিলেন না। তার পক্ষে লিখিত বক্তব্য পাঠ করে শোনান ফিলিস্তিনের পররাষ্ট্রমন্ত্রী রিয়াদ আল মালিকী। খবর গালফ নিউজের

তিনি বলেন, বেলফোর ঘোষণায় ফিলিস্তিনে ইহুদিদের জন্য একটি স্বতন্ত্র জাতীয় বাসস্থান গড়ে তোলার কথা উল্লেখ করা হয়। কিন্তু এ ধরনের ঘোষণা দেওয়ার কোনো আইনগত এখতিয়ার যুক্তরাজ্যের ছিল না। অনেকটা গায়ের জোরে অবৈধ এ ঘোষণা দেওয়া হয়।

ঘোষণায় ৩০ বছরের মধ্যে ওই বাসস্থান গড়ে তোলার কথা বলা হলেও ইসরাইল রাষ্ট্রের ঘোষণা আসে ১৯৪৮ সালে। একদিকে বেলফোর ঘোষণাই ছিল অবৈধ, অন্যদিকে এই অবৈধ ঘোষণার কার্যকারিতাও ইহুদি রাষ্ট্র ইসরাইলের স্বাধীনতা ঘোষণার আগে শেষ হয়ে যায়।

 

কিন্তু যুক্তরাজ্য ও তার সহযোগীদের আস্কারা ও সহায়তায় ৫৩১টি ফিলিস্তিনি গ্রাম ও শহর উচ্ছেদ করে ইহুদিদের বাসস্থান গড়া হয়। তখন থেকে বেপরোয়াভাবে ফিলিস্তিনিদের উপর জুলুম ও অন্যায় সন্ত্রাস চালিয়ে যাচ্ছে ইসরাইল। এসব কাজে এখনও যুক্তরাজ্য তাকে সমর্থন করে যাচ্ছে।

ফিলিস্তিন রাষ্ট্রপতি জানান, তারা যুক্তরাজ্যের কাছে ক্ষতিপূরণ চাইবে।

এদিকে উদারপন্থী ও নিরপেক্ষ বিশ্লেষকরা সাম্প্রতিক সময়ের ভয়ংকর জঙ্গিগোষ্ঠি ইসলামিক স্টেটের (আইএস) জন্মের পেছনেও ইসরাইলের সঙ্গে যুক্তরাজ্যের যোগসাজশ রয়েছে বলে মনে করেন। এ কারণে কয়েক হাজার মাইল দূরের ফ্রান্স, জার্মানি, বেলজিয়াম ইত্যাদি দেশে আইএস হামলা চালালেও আজ পর্যন্ত ইসরাইলে কোনো হামলা চালায়নি। ইসরাইল তার অবৈধ জন্মে সহায়তা করার পুরস্কার হিসেবে যুক্তরাজ্যে কোনো হামলা না চালাতে আইএসকে নির্দেশ দিয়ে রেখেছে। তাই ফ্রান্স ও জার্মানিতে আইএসের একের পর এক হামলা হলেও যুক্তরাজ্য বেশ নিরাপদে ও বহাল তবিয়তে আছে।

 

 

এই বিভাগের আরো সংবাদ