এখন ঝামেলা ছাড়াই জিডি: ডিএমপি
today-news
brac-epl
প্রচ্ছদ » App Home Page

এখন ঝামেলা ছাড়াই জিডি: ডিএমপি

সাধারণ ডায়েরি (জিডি) করার প্রক্রিয়া সহজ করেছে ঢাকা মেট্রোপলিটন পুলিশ (ডিএমপি)। থানায় গেলেই পাওয়া যাবে জিডি লেখার ফরম্যাট। সেটা পূরণ করলেই ঝামেলা শেষ। বাকি কাজ পুলিশের। ফরম নিতে বা জিডি করতে কোনো টাকা লাগবে না।

সোমবার বিকেলে ডিএমপি সদর দপ্তরে এক সংবাদ সম্মেলনে জিডির প্রক্রিয়া সহজ করার আনুষ্ঠানিক ঘোষণা দেন ডিএমপি কমিশনার আসাদুজ্জামান মিয়া। পুলিশের সেবা আরো দ্রুত ও স্বচ্ছ করতে এই পদক্ষেপ নেওয়া হয়েছে বলে জানিয়েছে ডিএমপি।

DMPতিনি বলেন, ‘পুলিশের সেবা প্রত্যাশীদের থানায় জিডি করতে এসে নানা ধরনের বিড়ম্বনায় পড়তে হয়। যেহেতু আমরা জনকল্যাণমুখী পুলিশ ব্যবস্থা চালু করার ঘোষণা দিয়েছি, সেহেতু থানায় বিড়ম্বনা কমাতে আমাদের এ উদ্যোগ। পাশাপাশি পুলিশের কাজে আরো গতি বাড়বে।’

তিনি বলেন, ‘এখন থেকে সেবা প্রত্যাশীরা থানায় এসে জিডির ফরম্যাট সংগ্রহ করে তা পূরণ করে দিলেই তা গ্রহণ করা হবে। লেখার সময় এর কার্বন কপি হয়ে যাবে। ফলে ফটোকপি বা নতুন কপি করার প্রয়োজন হবে না। প্রতিটি থানায় জিডির ফরম্যাট ফরম ও কলম থাকবে। ফলে সহজেই জনগণের বিড়ম্বনা কমানো যাবে।

নতুন এই জিডির বই প্রসঙ্গে তিনি বলেন, ‘অনেকেই দেখা যায় জিডি করতে এসে থানায় কাগজ কলম নিয়ে আসেন না। এ সুযোগে থানার পাশে কিছু টাইপরাইটারের দোকান থাকে যারা লিখে দিয়ে ১০০-২০০ টাকা হাতিয়ে নেয়। কিন্তু নতুন এই ফরমের মাধ্যমে কোনো ঝামেলা ছাড়াই গ্রাহক জিডি করতে পারবেন।’

সংবাদ সম্মেলনে জানানো হয়, জিডি ফরম্যাটের প্রতিটি বইয়ে ২০০ কপি থাকবে। এই ফরম্যাটে সাদা ও বেগুনি রংয়ের কাগজের দুটি কপি সেবা প্রত্যাশীকে দেওয়া হবে। সাদা কপির ওপর লেখা হলে তা বেগুনি রংয়ের কাগজে কার্বন কপি হয়ে যাবে। জিডি নথিভূক্ত হওয়ার পর সাদা কপিটি তথ্যদাতাকে দেওয়া হবে এবং বেগুনি রংয়ের কপি থানায় সংরক্ষিত থাকবে। প্রতিটি থানায় চাহিদা মোতাবেক ৩৫ থেকে ৪০টি বই দেওয়া হবে। এগুলো শেষ হলে থানার তহবিল থেকে নতুন করে বই ছাপানো হবে। যদি থানায় তহবিল না থাকে তবে ডিএমপিকে জানালে তা তৈরি করে দেওয়া হবে।

সাংবাদিকদের এক প্রশ্নের জবাবে ডিএমপি কমিশনার বলেন, ‘কোন থানায় যদি জিডি করতে টাকা নেওয়া হয় তাহলে আমাদেরকে জানান। এর বিরুদ্ধে ববস্থা নেওয়া হবে।’ সাইবার ক্রাইম প্রতিরোধে কাউন্টার টেররিজম ইউনিটে একটি বিশেষ টিম কাজ করছে বলে সাংবাদিকদের জানান তিনি।

ডিএমপির সকল থানা থেকে একজন করে প্রতিনিধি ও ঢাকা মেট্রোপলিটন পুলিশের ঊর্ধ্বতন কর্মকর্তারা এসময় উপস্থিত ছিলেন।

অর্থসূচক

এই বিভাগের আরো সংবাদ