জামালপুরের আশরাফ-মান্নান-বারীর মৃত্যুদণ্ড
today-news
brac-epl
প্রচ্ছদ » App Home Page
একাত্তরের মানবতাবিরোধী অপরাধ

জামালপুরের আশরাফ-মান্নান-বারীর মৃত্যুদণ্ড

মানবতাবিরোধী অপরাধের মামলায় জামালপুরের ৮ আসামির মধ্যে মো. আশরাফ হোসেন, মো. আব্দুল মান্নান ও মো. আব্দুল বারীর মৃত্যুদণ্ডের রায় দিয়েছে আন্তর্জাতিক অপরাধ ট্রাইব্যুনাল। বিচারপতি আনোয়ারুল হকের নেতৃত্বাধীন ৩ সদস্যের ট্রাইব্যুনাল আজ সোমবার পৌনে ১২টার দিকে এই রায় ঘোষণা করে। এর আগে বেলা পৌনে ১১টার দিকে রায় পড়া শুরু করে ট্রাইব্যুনাল।

ফাইল ছবি

ফাইল ছবি

গতকাল রোববার মানবতাবিরোধী অপরাধের মামলায় জামালপুরের ৮ আসামির বিরুদ্ধে রায় ঘোষণার জন্য আজকের দিন ধার্য করে ট্রাইব্যুনাল।

রায়ে বলা হয়, আসামিদের বিরুদ্ধে প্রসিকিউশনের আনা পাঁচ অভিযোগের মধ্যে তিনটি সন্দেহাতীতভাবে প্রমাণিত হয়েছে। এর মধ্যে প্রমাণিত ২ নম্বর অভিযোগে আসামি মো. আশরাফ হোসেন, মো. আব্দুল মান্নান, মো. আব্দুল বারীকে প্রাণদণ্ড দেওয়া হয়েছে।

রাষ্ট্রপক্ষের কৌঁসুলি তুরিন আফরোজ জানান, মানবতাবিরোধী অপরাধের মামলায় জামালপুরের ৮ আসামির মধ্যে ৩ জনের ফাঁসির রায় দিয়েছে ট্রাইব্যুনাল। অন্য ৫ আসামিকে আমৃত্যু কারাদণ্ড দেওয়া হয়েছে।

আমৃত্যু কারাদণ্ডপ্রাপ্ত আসামিরা হলো- ইসলামী ব্যাংকের সাবেক পরিচালক শরীফ আহাম্মেদ ওরফে শরীফ হোসেন, সিংহজানি স্কুলের সাবেক প্রধান শিক্ষক এস.এম. ইউসুফ আলী, অ্যাডভোকেট মো. শামসুল হক ওরফে বদর ভাই, মো. আবুল হাশেম এবং হারুন। এদের মদ্যে মধ্যে এস.এম. ইউসুফ আলী ও অ্যাডভোকেট মো. শামসুল হককে গ্রেপ্তার করা হয়েছে। তাদেরকে আজ ট্রাইব্যুনালে হাজির করা হয়। অন্যরা এখনও পলাতক রয়েছে।

জামালপুরের এই ৮ জনের বিরুদ্ধে একাত্তরে মুক্তিযুদ্ধকালে হত্যা, অপহরণ, আটক, নির্যাতন, লুটপাট, গুম প্রভৃতি মানবতাবিরোধী অপরাধের ৫টি অভিযোগ আনা হয়েছে।

গত বছরের ২৬ অক্টোবর অভিযোগ গঠনের মধ্য দিয়ে ট্রাইব্যুনালে এই ৮ জনের বিচার শুরু হয়। রাষ্ট্রপক্ষে শুনানি করেন কৌঁসুলি তুরিন আফরোজ ও তাপস কান্তি বল। গ্রেপ্তার দুই আসামির পক্ষে ছিলেন আইনজীবী সৈয়দ মিজানুর রহমান, এহসান এ সিদ্দিকী ও গাজী এম.এইচ. তামিম। পলাতক আসামিদের পক্ষে ছিলেন রাষ্ট্রনিযুক্ত আইনজীবী আবদুস সোবহান তরফদার।

অর্থসূচক/আই/এমই/

এই বিভাগের আরো সংবাদ