ওটিসিতে লেনদেন হয় না ২৩ কোম্পানির শেয়ার
today-news
brac-epl
প্রচ্ছদ » পুঁজিবাজার

ওটিসিতে লেনদেন হয় না ২৩ কোম্পানির শেয়ার

OTC-Market

ওটিসি মার্কেট

ওভার দ্য কাউন্টার (ওটিসি) মার্কেটে ২৩ কোম্পানির শেয়ারে কোনো লেনদেন হয় না। বাজারে কোম্পানিগুলোর মোট ৬ কোটি ২৭ লাখ ৬৫ হাজার ৫৭২টি শেয়ার রয়েছে। এর মধ্যে ১১ কোম্পানির কোনো অস্তিত্ব নেই। আর ১২ কোম্পানির অস্তিত্ব থাকলেও তাদের লেনদেন নেই।

ডিএসই সূত্রে এই তথ্য জানা গেছে।

১২টি অস্তিত্বশীল কোম্পানির মধ্যে বেশি শেয়ার বাজারে রয়েছে ঈগল স্টার টেক্সটাইল লিমিটেডের। এই কোম্পানির ৫২ লাখ ৮০ হাজার শেয়ার বাজারে রয়েছে। কোম্পানিটি ১৯৮৭ সালে পুঁজিবাজারে তালিকাভুক্ত হয়। ওটিসিতে আসার সময় কোম্পানির পরিচালকদের শেয়ার ছিল ৬৮ দশমিক ৪৫ শতাংশ। প্রাতিষ্ঠানিক বিনিয়োগকারীদের ছিল ৮ দশমিক ৬০ শতাংশ। আর সাধারণ বিনিয়োগকারীদের ছিল ২২ দশমিক ৯৫ শতাংশ শেয়ার।

চট্টগ্রামের এই কোম্পানিটির ২০১৫ সাল সমাপ্ত হিসাব বছরে শেয়ার প্রতি লোকসান করেছে ৯ টাকা ২৫ পয়সা। ৫ কোটি ২৮ লাখ মূলধনের কোম্পানিটির মোট লোকসান ২৮ কোটি ১ লাখ ৭০ হাজার টাকা।

দ্বিতীয় অবস্থানে রয়েছে ডাইনামিক টেক্সটাইল ইন্ডাস্ট্রিজ লিমিটেড। এই কোম্পানির শেয়ার রয়েছে ৩০ লাখ ৫৫ হাজার ৯৫০টি। ১৯৯৪ সালে পুঁজিবাজারে তালিকাভুক্ত এই কোম্পানির সর্বশেষ শেয়ার প্রতি লোকসান ছিল ৩ টাকা ৬৯ পয়সা।

এতে পরিচালকদের শেয়ার রয়েছে ৩২ দশমিক ৯৮ শতাংশ, প্রাতিষ্ঠানিক বিনিয়োগকারীদের রয়েছে ২৯ দশমিক ৮৪ শতাংশ, বিদেশি বিনিয়োগ রয়েছে ১ দশমিক ৪৬ শতাংশ ও সাধারণ বিনিয়োগকারীদের আছে ৩৫ দশমিক ৭২ শতাংশ।

কোম্পানিটির মোট লোকসানের পরিমাণ ৯৩ কোটি ৬৫ লাখ ৯০ হাজার টাকা। আর পরিশোধিত মূলধন ৩০ কোটি ৫৬ লাখ টাকা।

১৯৮৫ সালে তালিকাভুক্ত হওয়া কাশেম টেক্সটাইল মিলের শেয়ার রয়েছে ১৩ লাখ ৮০ হাজার। এতে ৪৮ দশমিক ৮৪ শতাংশ শেয়ার পরিচালকদের। বাকি ৫১ দশমিক ১৬ শতাংশের মালিক ছিল সাধারণ বিনিয়োগকারীরা। ২০১৫ সালে সমাপ্ত হিসাব বছরে কোম্পানিটির শেয়ার প্রতি লোকসান হয়েছে ২ টাকা ৪৬ পয়সা। তবে কোম্পানিটির ১ কোটি ১৯ লাখ ৮০ হাজার টাকা রিজার্ভ রয়েছে। এখন প্রতিটি শেয়ারের মূল্য ৮ টাকা ১০ পয়সা।

লেনদেন হয় না অন্য কোম্পানির মধ্যে আজাদী প্রিন্টার্সের শেয়ার ৬৩ হাজার ৬২২টি; বাংলা প্রসেস ইন্ডাস্ট্রিজের ৮ লাখ; বাংলাদেশ হোটেলের সাড়ে ৪ লাখ, বাংলাদেশ লিভ টোব্যাকোর ৮ লাখ ১৩ হাজার ৬০০টি। এছাড়া হিল প্লানটেশনের দেড় লাখ, মডার্ন ইন্ডাস্ট্রিজের ১৩ লাখ, পেট্রো সিনথেটিকস প্রোডাক্টসে ৪ লাখ ২০ হাজারটি, ফনিক্স লেদারের ৭৫ হাজার, টিউলিপ ডায়ারি অ্যান্ড ফুড প্রোডাক্টস লিমিটেডের ২ লাখ ৩৯ হাজারটি শেয়ার  বাজারে রয়েছে। এসব কোম্পানির কোনো লেনদেন হচ্ছে না।

অর্থসূচক/ মাহমুদ

এই বিভাগের আরো সংবাদ