রাত ৮টার মধ্যে ঢাবি উপাচার্যের পদত্যাগ দাবি
today-news
brac-epl
প্রচ্ছদ » App Home Page

রাত ৮টার মধ্যে ঢাবি উপাচার্যের পদত্যাগ দাবি

ভারপ্রাপ্ত রেজিস্ট্রার সৈয়দ রেজাউর রহমানকে অব্যাহতি দেওয়ার পর উপাচার্য আ.আ.ম.স. আরেফিন সিদ্দিকীর পদত্যাগের দাবিতে বিক্ষোভ করেছে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় শাখার ছাত্রলীগের নেতাকর্মীরা। আজ শুক্রবার বিকেলে উপাচার্যের বাসভবনের সামনে দ্বিতীয় দফা বিক্ষোভ করার সময় এ দাবি জানায় তারা।

আজ রাত ৮টার মধ্যে উপাচার্য পদত্যাগ না করলে আগামীকাল থেকে অনির্দিষ্টকালের জন্য ধর্মঘট পালনের হুমকি দিয়েছে ছাত্রলীগের ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় শাখা।

ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্য আ আ স ম আরেফিন সিদ্দিকী

ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্য আ আ স ম আরেফিন সিদ্দিকী

বিশ্ববিদ্যালয় সূত্রে জানা গেছে, ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় দিবস উপলক্ষে একটি স্মরণিকা প্রকাশ করে বিশ্ববিদ্যালয় কর্তৃপক্ষ। এই স্মরণিকায় ভারপ্রাপ্ত রেজিস্ট্রার ও বিশ্ববিদ্যালয় প্রতিষ্ঠার ৯৫ বছর উদযাপন কমিটির সদস্য সচিব রেজাউর রহমান ‘স্মৃতি অম্লান’ শিরোনামে একটি নিবন্ধ লেখেন। ওই লেখায় বিশ্ববিদ্যালয়ের মুক্তিযোদ্ধা জিয়াউর রহমান হল পরিচিতি তুলে ধরতে গিয়ে তিনি লিখেছেন, জিয়াউর রহমান বাংলাদেশের প্রথম রাষ্ট্রপতি, সাবেক সেনা প্রধান ও একজন বীর মুক্তিযোদ্ধা।

বিষয়টি শিক্ষার্থীদের নজরে এলে টিএসসিতে আজকের আলোচনায় সভায় ছাত্রলীগের নেতা ও বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষার্থীরা প্রতিবাদ জানান। সভা শেষে দুপুর ১২টার দিকে ভারপ্রাপ্ত রেজিস্ট্রার রেজাউর রহমানের কক্ষে তালা দেয় ছাত্রলীগের কয়েকজন নেতাকর্মী। দুপুর পৌনে ১টার দিকে ঘটনাস্থলে গিয়ে রেজাউর রহমানকে মুক্ত করেন বিশ্ববিদ্যালয়ের ভারপ্রাপ্ত প্রক্টর আমজাদ আলী।

স্মরণিকায় জিয়াউর রহমানকে প্রথম রাষ্ট্রপতি বলে উল্লেখ করায় আজ শুক্রবার বিকেল সাড়ে ৪টার দিকে রেজাউর রহমানকে অব্যাহতি দিয়ে অফিস আদেশ জারি করে বিশ্ববিদ্যালয় কর্তৃপক্ষ। এতে সই করেন উপ রেজিস্ট্রার মুন্সি শামসুদ্দীন আহমেদ।

জিয়াউর রহমানকে প্রথম রাষ্ট্রপতি লেখার প্রতিবাদে বিশ্ববিদ্যালয় ক্যাম্পাসে ছাত্রলীগের তাণ্ডবের পর রেজাউর রহমানকে অব্যাহতির কথা জানান ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের (ঢাবি) উপাচার্য আ.আ.ম.স. আরেফিন সিদ্দিকী। এর আগে বিশ্ববিদ্যালয়ের ৯৫তম প্রতিষ্ঠাবার্ষিকী উপলক্ষে প্রকাশিত স্মরণিকা বাজেয়াপ্ত ঘোষণা করেন তিনি। একইসঙ্গে স্মরণিকা কমিটিও বাতিল ঘোষণা করেছেন উপাচার্য।

অবশ্য এই লেখাকে ‘ছাপার ভুল’ বলে দাবি করেছেন ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের ভারপ্রাপ্ত রেজিস্ট্রার সৈয়দ রেজাউর রহমান।

দুপুরের পর বিক্ষুব্ধ ছাত্রলীগের কর্মীরা বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্যের বাসভবন ঘেরাও করে। একপর্যায়ে উপাচার্য গাড়ি নিয়ে বাসভবনে ঢুকতে গেলে গাড়ির কাচ ভাংচুর করে ছাত্রলীগ কর্মীরা।

রেজাউর রহমানকে অব্যাহতি দেওয়ার পর আন্দোলন স্থগিতের ঘোষণা দিয়েছে ছাত্রলীগের ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় শাখা। ছাত্রলীগ নেতারা বলেন, আগামী ১৭ জুলাইয়ের মধ্যে এ ঘটনার সঙ্গে জড়িত বাকিদের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নেওয়া না হলে আবারও আন্দোলনে শুরু হবে।

মুলতবির পর আবারও বিক্ষোভ শুরুর প্রসঙ্গে কেন্দ্রীয় ছাত্রলীগের সভাপতি সাইফুর রহমান সোহাগ বলেন, এটা কোনো ছোট ভুল নয়। ওই স্মরণিকা প্রকাশের সঙ্গে সম্পৃক্ত সবার বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নিতে হবে।

ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় শাখা ছাত্রলীগের সভাপতি আবিদ আল হাসান বলেন, একটি দায়িত্বশীল পদে থেকে উপাচার্য এই দায় এড়াতে পারেন না। আমরা মনে করি, এ ঘটনার সঙ্গে তিনিও জড়িত।

ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় শাখা ছাত্রলীগের সাধারণ সম্পাদক মোতাহার হোসেন প্রিন্স বলেন, আজ রাত আটটার মধ্যে উপাচার্য পদত্যাগ না করলে আগামীকাল থেকে বিশ্ববিদ্যালয়ে অনির্দিষ্টকালের জন্য ধর্মঘটের ঘোষণা করা হবে।

অর্থসূচক/পিএ/বিএন/এমই/

এই বিভাগের আরো সংবাদ