স্বর্ণের দাম বাড়তে পারে ঈদের আগে
today-news
brac-epl
প্রচ্ছদ » App Home Page

স্বর্ণের দাম বাড়তে পারে ঈদের আগে

আগামী বৃহস্পতিবার ব্রিটেনের ‘ভাগ্য’ নির্ধারণের দিন। এদিন গণভোটে বৃটেনের পক্ষে ভোট পড়লে ইউরোপীয় ইউনিয়ন থেকে বের হওয়ার (ব্রেক্সিট) সিদ্ধান্ত পাকা। আর এটি হলে তার প্রভাব পড়বে বিশ্ববাজারে। স্বর্ণ, রৌপ্য, তেল থেকে শুরু করে বিশ্ব পুঁজিবাজারেও এর প্রভাব পড়বে। এমতাবস্থায় স্বর্ণের দাম হঠাৎ বেড়ে যেতে পারে বলে মনে করছেন বিশেষজ্ঞরা।

খালিজ টাইমসের খবর অনুযায়ী, অস্থির বাজারে গত সপ্তাহে স্বর্ণের দাম প্রায় দুই সপ্তাহের মধ্যে সর্বোচ্চ পর্যায়ে পৌঁছায়। এ খাতে বিনিয়োগ বেড়ে যাওয়ায় এবং জুয়েলারি পণ্যের চাহিদা বেড়ে যাওয়ায় গত বৃহস্পতিবার বাজারে এক আউন্স স্বর্ণ বিক্রি হয় ১ হাজার ৩১৫ ডলার পর্যন্ত। যা ২০১৪ সালে আগস্টের পর সবচেয়ে বেশি।

স্বর্ণ- ছবি সংগৃহীত

স্বর্ণ- ছবি সংগৃহীত

ডেনমার্ক ভিত্তিক স্যাক্সো ব্যাংকের কমোডিটি স্ট্র্যাটেজি বিভাগের প্রধান ওলে হ্যানসেন মনে করেন, ব্রিটেনের ব্রেক্সিট সিদ্ধান্তে পণ্যটির দর আউন্সপ্রতি বেড়ে ধাক্কা দিতে পারে ১৪০০ ডলারে (এক আউন্স=২.৪৩ ভরি)। যা বর্তমান দামের চেয়ে প্রায় ১০০ ডলার বেশি।

তিনি বলেন, ব্রেক্সিট অর্থনৈতিক অনিশ্চয়তা আরও দীর্ঘায়িত করতে পারে। এর ফলে পুঁজিবাজারও ভোগান্তিতে পড়বে। তবে অন্যদিকে ডলার আরও শক্তিশালী হবে। যার ফলে ঝুঁকি আরও বাড়ার সম্ভাবনা বেশি।

এটি শুধু ব্রিটেন নয়, ইউরোপের বাকি দেশগুলোতেও নেতিবাচক প্রভাব ফেলবে বলে মনে করেন হ্যানসেন।

বিশ্ববাজারের সঙ্গে সমন্বয় রেখে স্বর্ণের দর প্রতিনিয়ত বাড়ায় ও কমায় বাংলাদেশ জুয়েলারি সমিতি (বাজুস)। বেক্সিট সিদ্ধান্তে বিশ্ব স্বর্ণবাজারে হঠাৎ এই উত্থান হলে বাংলাদেশে স্বর্ণের দাম বেড়ে যেতে পারে ভরিতে প্রায় সাড়ে ৩ হাজার টাকা। এমনকি সেটা হতে পারে ঈদের আগেও।

বাজুসের তথ্য অনুযায়ী, বর্তমানে দেশের বাজারে এক ভরি স্বর্ণ বিক্রি হচ্ছে ২২ ক্যারেট স্বর্ণ ৪৭ হাজার ১২৩ টাকা, ২১ ক্যারেট ৪৫ হাজার ২৩ টাকা এবং ১৮ ক্যারেটের দাম হবে ৩৮ হাজার ৬০৮ টাকা। আর সনাতন পদ্ধতির স্বর্ণের প্রতি ভরির দাম হবে ২৬ হাজার ৮২৮ টাকা।

বিশেষজ্ঞদের অনেকের মতে, স্বর্ণ হচ্ছে বিনিয়োগের সবচেয়ে নিরাপদ খাত। বাজারে এ খাতের অবস্থা এখন ঘুরে দাঁড়াচ্ছে। যে কারণে বাজারে ঝুঁকি বাড়ছে। ব্রেক্সিট নিয়ে এই অস্থিরতা পণ্যটির দর আরও বাড়িয়ে দিতে ইন্ধন যোগাচ্ছে। ব্রিটেনের এই সিদ্ধান্তে স্বর্ণ সবচেয়ে লাভবান খাতগুলোর মধ্যে একটি হবে বলে মনে করেন তারা।

গণভোট সামনে রেখে বেশকিছু জরিপে দেখা গেছে, ব্রিটেনের ইউরোপীয় ইউনিয়ন থেকে বের হওয়ার সম্ভাবনা বেশি। আবার কিছু জরিপে বলা হয়েছে, ব্রিটেনের জয় পাওয়া ক্ষীণ। এখন আগামী ২৩ জুন বলে দেবে- আসল ঘটনা কী?

খালিজ টাইমসের খবরে আরও বলা হয়, এই আতঙ্কে এখন কাঁপছে ইইউ অর্থনীতি। তৈরি হয়েছে অনিশ্চয়তা। চলতি মাসেই এ পর্যন্ত ডলারের বিপরীতে পাউন্ডের মান কমেছে ২.৩ শতাংশ। অন্যদিকে ব্লু-চিপ বেঞ্চমার্ক, এফটিএসই ১০০ সূচক পড়েছে ৪.৮ শতাংশ।

অর্থনীতিবিদরা বলছেন, এ সময়ে একমাত্র স্বর্ণবাজারেই বিপরীত চিত্র দেখা গেছে। চলতি মাসে পণ্যটির দর বেড়েছে ৭.৭ শতাংশ।

এই বিভাগের আরো সংবাদ