শুক্রবার ব্যাংকগুলোতে ছিল স্বাভাবিক লেনদেন
শুক্রবার, ১৮ই সেপ্টেম্বর, ২০২০ খ্রিস্টাব্দ
today-news
brac-epl
প্রচ্ছদ » অর্থনীতি

শুক্রবার ব্যাংকগুলোতে ছিল স্বাভাবিক লেনদেন

Bankসাপ্তাহিক ছুটির দিনেও খোলা থাকায় ব্যাংকগুলোতে লেনদেনের পরিমাণ বেড়েছে। বিশেষ করে শিল্পাঞ্চল এলাকায় লেনদেন বেশি হয়েছে। তবে দেশের সিটি করপোরেশন এলাকার বাইরের শাখাগুলোতে লেনদেনের পরিমাণ কম ছিল বলে জানা গেছে।

মতিঝিলের ব্যাংকপাড়া ঘুরে দেখা গেছে, সব ব্যাংকে কর্মকর্তাদের উপিস্থিতি স্বাভাবিক রয়েছ। গ্রাহক উপস্থিতি ও লেনদেন অবরোধের দিনগুলোর তুলনায় বেশি হয়েছে। তবে বড় কোনো লেনদেন হয়নি বলে জানিয়েছেন এসব ব্যাংকে দায়িত্বরত কর্মকর্তারা।

এ বিষয়ে এক্সিম ব্যাংকের ব্যবস্থাপনা পরিচালক ড. মোহাম্মদ হায়দার আলী মিয়া বলেন,  আজ বন্ধের দিন থাকা সত্ত্বেও কেন্দ্রীয় ব্যাংকের নির্দেশে ব্যাংক খোলা রাখা হয়েছে। সকাল থেকে গ্রাহক উপস্থিতি ভালো ছিল। শনিবার থেকে আবার অবরোধ হওয়ায় আজ কর্পোরেট গ্রাহক বেশি লেনদেন করছেন। তবে শিল্পাঞ্চল এলাকায় লেনদেন অন্যান্য দিনের তুলনায় বেশি বলে জানান তিনি।

ডাচ বাংলা ব্যাংকের ব্যবস্থাপনা পরিচালক কে. শামসি তাবরিজ বলেন, দেশের সব জায়গায়ই ব্যাংকের শাখা খোলা রয়েছে। বড় বড় শহরের বাইরে লেনদেন প্রায় হচ্ছে না বললেই চলে। তবে ঢাকা এবং চট্টগ্রামে লেনদেন বেশি হয়েছে। গ্রাহকরা টাকা জমার চেয়ে উত্তোলন বেশি করছেন বলে জানান তিনি।

উল্লেখ্য, বিরোধীদলের ডাকা টানা অবরোধে মানুষের ভোগান্তির কথা চিন্তা করে শনিবার ছুটির দিনেও ব্যাংক খোলা রাখার নির্দেশ দেয় বাংলাদেশ ব্যাংক। তাছাড়া বাংলাদেশ তৈরি পোশাক প্রস্তুত ও রপ্তানি কারক সমিতি (বিজিএমইএ) পোশাক শ্রমিকদের বেতন-ভাতাদি প্রদানের জন্য শনিবার শিল্পাঞ্চল এলাকায় ব্যাংক খোলা রাখার অনুরোধ করে।

কিন্তু শনিবার থেকে আবার অবরোধের কর্মসূচি ঘোষণা করায় শুক্রবার তফসিলভুক্ত সব ব্যাংক খোলা রাখার নির্দেশ দেয় কেন্দ্রীয় ব্যাংক।

প্রজ্ঞাপনে উল্লেখ করা হয়, জনস্বার্থে আগামি ৬ ডিসেম্বর শুক্রবার নামাজ ও মধ্যাহ্ন ভোজের বিরতিসহ তফসিলি ব্যাংকগুলোর সব শাখা খোলা রাখতে হবে। তবে এসব শাখায় প্রয়োজনীয় নিরাপত্তা নিশ্চিত করার কথাও প্রজ্ঞাপনে উল্লেখ করা হয়েছে।

এসএই/ এআর

এই বিভাগের আরো সংবাদ