২২ জুন থেকে ট্রেনের অগ্রিম টিকেট
today-news
brac-epl
প্রচ্ছদ » App Home Page

২২ জুন থেকে ট্রেনের অগ্রিম টিকেট

আসন্ন ঈদুল ফিতর উপলক্ষে আগামী ২২ জুন থেকে ট্রেনের অগ্রিম টিকেট বিক্রি শুরু হবে। ঢাকা ও চট্টগ্রাম স্টেশন থেকে বিশেষ ব্যবস্থাপনায় এ টিকিট বিক্রি শুরু হবে।এবার অন্যবারের থেকে ১ ঘণ্টা এগিয়ে সকাল ৮টা থেকে টিকেট বিক্রি শুরু হবে।

বুধবার দুপুরে রাজধানীর রেল ভবনে এক সংবাদ সম্মেলনে রেলপথ মন্ত্রী মুজিবুল হক এসব তথ্য জানান।

সংবাদ সম্মেলনে রেলপথ মন্ত্রী মুজিবুল হক। ছবি মহুবার রহমান।

সংবাদ সম্মেলনে রেলপথ মন্ত্রী মুজিবুল হক। ছবি মহুবার রহমান।

মন্ত্রী জানান, এবার ঈদ উপলক্ষে কমলাপুর রেল স্টেশন থেকে প্রতিদিন ৪৩ হাজার টিকেট বিক্রি করবে রেল কর্তৃপক্ষ। পাশাপাশি অনলাইনেও টিকেট বিক্রির ব্যবস্থা থাকবে।

২২ জুন থেকে ২৬ জুন ‍পর্যন্ত কেনা যাবে ১ থেকে ৫ জুলাইয়ের টিকেট। অর্থাৎ যেসব যাত্রী ২২ জুন টিকেট কাটবেন তারা যেতে পারবেন ১ জুলাই। একইভাবে যাত্রীরা ২৩, ২৪ ২৫, ২৬ জুন কেনা টিকিটে যথাক্রমে ২, ৩, ৪, ৫ জুলাই যেতে পারবেন।

আর ফিরতি টিকেট বিক্রি শুরু হবে ৪ জুলাই থেকে। এ সময় ঈদ ফেরত যাত্রীদের জন্য অগ্রিম টিকেট রাজশাহী, খুলনা, রংপুর, দিনাজপুর, ও লালমনিরহাট স্টেশন থেকে বিশেষ ব্যবস্থাপনায় সকাল ৮ থেকে টিকেট বিক্রি হবে।

ওই সময়ে ৪, ৫, জুলাই বিক্রি হবে যথাক্রমে ৮ এবং ৯ জুলাইয়ের টিকেট। আর ৭ জুলাই বিক্রি হবে ১০ ও ১১ তারিখের টিকেট। সবশেষে ৮ জুলাই বিক্রি হবে ১২ জুলাইয়ের টিকেট।

মন্ত্রী বলেন, একজন যাত্রী সর্বোচ্চ ৪টি টিকেট কিনতে পারবেন। বিক্রি করা আগাম টিকেট ফেরত নেওয়া হবে না।

রেলমন্ত্রী আরও বলেন, ঈদে যাত্রীদের যাওয়া-আসা নির্বিঘ্ন করতে ১ জুলাই থেকে ঈদের আগের দিন পর্যন্ত সব আন্তঃনগর ট্রেনের সাপ্তাহিক ছুটি বাতিল করা হয়েছে।

ঈদ উপলক্ষে ৭ জোড়া স্পেশাল ট্রেন চলবে। এগুলো দেওয়ানগঞ্জ স্পেশাল: ঢাকা-দেওয়ানগঞ্জ, চাঁদপুর স্পেশাল ১ ও ২ চট্রগ্রাম-চাঁদপুর, পার্বতীপুর স্পেশাল ঢাকা-পার্বতীপুর এবং খুলনা স্পেশাল ঢাকা-খুলনা রুটে চলাচল করবে। প্রতিটি ট্রেন চলবে ৩ থেকে ৫ জুলাই ও ৮ থেকে ১৪ জুলাইয়ের মধ্যে।

এছাড়া ঈদের পূর্বে ঢাকা-চট্টগ্রাম-ঢাকা রুটে একজোড়া নতুন বিরতিহীন আন্তঃনগর ট্রেন চালু করা হবে। এ ট্রেন ঠিক কয় তারিখ থেকে চালু হবে তা এখনো ঠিক হয়নি। প্রধানমন্ত্রী নতুন এ ট্রেন যাত্রার উদ্বোধন করবেন।

ঈদের সময় রেলে দুর্ঘটনা, রেলে নাশকতা ও টিকেট কালোবাজারি ঠেকাতে রেলওয়ে ‘পুরোপুরি প্রস্তুত’ রয়েছে বলেও জানান মন্ত্রী। এজন্য রেলওয়ে পুলিশের পাশাপাশি র‌্যাব, বিজিবি, স্থানীয় পুলিশ ও অন্যান্য আইন-শৃঙ্খলা রক্ষাকারী বাহিনী একযোগে কাজ করবে।

অর্থসূচক/শাফায়াত/শাহীন

এই বিভাগের আরো সংবাদ