ওষুধের ফ্রিজে কই!
today-news
brac-epl
প্রচ্ছদ » App Home Page

ওষুধের ফ্রিজে কই!

খুলনায় অননুমোদিত, মেয়াদোত্তীর্ণ ও নষ্ট ওষুধ বিক্রির দায়ে ৩ ফার্মেসিকে ১ লাখ ৩৫ হাজার টাকা জরিমানা করেছে জেলা প্রশাসনের ভ্রাম্যমাণ আদালত। আজ সোমবার বিকেলে খুলনা শিশু হাসপাতালের সামনে এসব ফার্মেসিতে অভিযান চালায় ভ্রাম্যমাণ আদালত। অভিযানে নেতৃত্ব দেন জেলা প্রশাসনের নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট আতিকুল ইসলাম।

 খুলনায় ভ্রাম্যমাণ আদালত ড্রাগ হাউজে অভিযান চালিয়ে ওষুধ সংরক্ষণের ফ্রিজ থেকে ব্যাগভর্তি কই মাছ উদ্ধার করে। ছবি সংগৃহীত

খুলনায় ভ্রাম্যমাণ আদালত ড্রাগ হাউজে অভিযান চালিয়ে ওষুধ সংরক্ষণের ফ্রিজ থেকে ব্যাগভর্তি কই মাছ উদ্ধার করে। ছবি সংগৃহীত

তিনি জানান, শিশু হাসপাতালের সামনে অবস্থিত ড্রাগ হাউজ ওষুধ বিক্রি ও সংরক্ষণের যথাযথ নিয়ম অনুসরণ করে না। তারা ক্রেতাদের কাছে মেয়াদ উত্তীর্ণ ও ফিজিশিয়ান শ্যাম্পল বিক্রি করে। ওষুধ সংরক্ষণের ফ্রিজে পাওয়া গেছে ব্যাগভর্তি কই মাছ, শোল মাছ, দুধ ও রোগির ব্যবহৃত রক্ত।এসব কারণে ওই ফার্মেসির মালিক এজাজ আহমেদকে এক লাখ টাকা অর্থদণ্ড দেওয়া হয়েছে।

আতিকুল ইসলাম আরও জানান,  একইদিনে বিপুল পরিমাণ মেয়াদোত্তীর্ণ ওষুধ রাখার অপরাধে নগরীর ঐশী ফার্মেসিকে ৩০ হাজার এবং ওষুধ সম্ভার ফার্মেসিকে ৫ হাজার টাকা জরিমানা করা হয়েছে। প্রায়ই ক্রেতারা এদের বিরুদ্ধে নানা রকম হয়রানির অভিযোগ করেন। জব্দকৃত মেয়াদোত্তীর্ণ এসব ওষুধ পুড়িয়ে নষ্ট করা হয়েছে।

অভিযান পরিচালনার সময় খুলনার ড্রাগ সুপার মাহমুদ হাসান, আর্মড পুলিশ ব্যাটালিয়ন ও মেট্রোপলিটন পুলিশের সদস্য উপস্থিত ছিলেন।

অর্থসূচক/শিউলী/ডিএইচ

এই বিভাগের আরো সংবাদ