খোলাবাজারে ৪৫ টাকায় চিনি বিক্রি করছে এস. আলম গ্রুপ
today-news
brac-epl
প্রচ্ছদ » জাতীয়

খোলাবাজারে ৪৫ টাকায় চিনি বিক্রি করছে এস. আলম গ্রুপ

রমজানে সাধারণ মানুষের ক্রয় ক্ষমতা বিবেচনায় ভোক্তা পর্যায়ে ৪৫ টাকায় প্রতিকেজি রিফাইন্ড চিনি বিক্রি শুরু করছে এস. আলম গ্রুপ। একইসঙ্গে প্রতি লিটার ভেজিটেবল অয়েল ৭০ টাকা ও সয়াবিন তেল ৮০ টাকায় বিক্রি করছে কোম্পানির প্রতিনিধিরা।

আজ মঙ্গলবার দুপুরে বন্দর নগরীর জেল রোডের আনসার ক্লাবের সামনে এস. আলম গ্রুপের ন্যায্যমূল্যে চিনি বিক্রি কার্যক্রমের উদ্বোধন করেন নগর আওয়ামী লীগের সভাপতি ও সাবেক মেয়র এ.বি.এম. মহিউদ্দিন চৌধুরী।S. Alam Sugar

তিনি বলেন, বাজারে দ্রব্যমূল্য ঠিক রাখার লক্ষ্যে ৪৫ টাকা কেজি দরে চিনি বিক্রির উদ্যোগ নিয়েছে এস. আলম গ্রুপ। এই উদ্যোগকে সাধুবাদ জানায়।

সাবেক মেয়র বলেন, কয়েক বছর আগেও ৩২ টাকা কেজি দরে চিনি বিক্রি হতো। এখন প্রতি কেজি লবণের দামই ৩৫ টাকা। যেখানে দেশে উৎপাদিত লবণ এতো বেশি দামে বিক্রি হচ্ছে, সেখানে বিদেশ থেকে আমদানি করা চিনির দাম বেশি হবে- এটাই স্বাভাবিক।

তিনি বলেন, চট্টগ্রামে এস. আলম গ্রুপের খ্যাতি আছে। পর্দার পেছনে থেকে নানাভাবে মানুষের উপকার করে চলেছেন এই গ্রুপের কর্তা। মানুষের কল্যাণে ভর্তুকিমূল্যে চিনি বিক্রির কার্যক্রম হাতে নিলেও এর উদ্বোধনী অনুষ্ঠানেও উপস্থিত হননি তিনি। বর্তমান সমাজে এমন মানুষের সন্ধান পাওয়া দুষ্কর।

প্রাথমিকভাবে ৪৫ টাকা দরে চিনি বিক্রির উদ্যোগ নিলেও পরবর্তীতে জন মানুষের কল্যাণে এস. আলম গ্রুপ এই দাম আরও কমাবে বলে আশা প্রকাশ করেন নগর আওয়ামী লীগের সভাপতি।

খাতুনগঞ্জ ট্রেড অ্যান্ড ইন্ডাস্ট্রি অ্যাসোসিয়েশনের সাধারণ সম্পাদক সৈয়দ ছগীর আহমদ বলেন, এস. আলম গ্রুপ আমাদের গর্বের প্রতিষ্ঠান। ভোগ্যপণ্য আমদানি করে দেশের বাজারে কম দামে বিক্রি করে এই প্রতিষ্ঠানটি। প্রতি বছর রমজানে সাধারণ মানুষের কথা চিন্তা করে ন্যায্যমূল্যে ভোগ্যপণ্য ভোক্তাদের হাতে তুলে দেয় তারা।

খোলা বাজারে ভোগ্যপণ্য বিক্রির উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে আরও উপস্থিত ছিলেন এস. আলম গ্রুপের ভাইস চেয়ারম্যান আবদুস সামাদ লাভু, হেড অব কর্পোরেট হুমায়ুন কবির, মীর গ্রুপের চেয়ারম্যান আবদুস সালাম, বকশির হাট ওয়ার্ডের কাউন্সিলর নুরুল হক, আন্দরকিল্লা ওয়ার্ডের কাউন্সিলর জহর লাল হাজারী, ব্যবসায়ী জানে আলম, জাহাঙ্গীর আলম, রাজু কুমার চৌধুরী প্রমুখ।

এস. আলম গ্রুপের মুখপাত্র জানান, এবার নগরীর ১০টি পয়েন্টে ন্যায্যমূল্যে চিনি, ভেজিটেবল অয়েল ও সয়াবিন তেল বিক্রি করা হবে। এখানে প্রতি কেজি চিনি ৪৫ টাকা, প্রতি লিটার ভেজিটেবল অয়েল ৭০ টাকা ও সয়াবিন তেল ৮০ টাকায় বিক্রি হবে। এছাড়া এস. আলম গ্রুপের মোড়কজাত চিনিও ছাড়ে বিক্রি করা হবে। ৫৬ টাকার পরিবর্তে এই প্যাকেট চিনি বিক্রি হবে প্রতি কেজি ৪৫ টাকায়।

এস. আলম গ্রুপের নির্বাচিত প্রতিনিধিদের কাছ থেকে প্রতি জন সর্বোচ্চ ৩ কেজি পরিমাণ চিনি কিনতে পারবেন বলে জানান এস. আলম গ্রুপের মুখপাত্র।

অর্থসূচক/দেবব্রত/এমই/

এই বিভাগের আরো সংবাদ