কম্পিউটার আমদানি শুল্ক ২% পুনর্বহালের দাবি
today-news
brac-epl
প্রচ্ছদ » App Home Page

কম্পিউটার আমদানি শুল্ক ২% পুনর্বহালের দাবি

প্রস্তাবিত বাজেটে কম্পিউটার ও কম্পিউটার এক্সেসরিজের আমদানি শুল্ক বাড়ানোর প্রস্তাব প্রত্যাহার করে আগের মতো ২ শতাংশ নির্ধারণের দাবি জানিয়েছে বাংলাদেশ কম্পিউটার সমিতি (বিসিএস)।

আজ মঙ্গলবার দুপুরে ঢাকা রিপোর্টারস ইউনিটির (ডিআরইউ) সাগর-রুনি মিলনায়তনে ২০১৬-১৭ অর্থবছরের বাজেট পর্যালোচনা শীর্ষক সংবাদ সম্মেলনে এ দাবি জানায় সংগঠনটি।

BCS

ঢাকা রিপোর্টারস ইউনিটির (ডিআরইউ) সাগর-রুনি মিলনায়তনে ২০১৬-১৭ অর্থবছরের বাজেট পর্যালোচনা শীর্ষক সংবাদ সম্মেলন।

সংগঠনের সভাপতি আলী আশফাক বলেন, সদ্য প্রস্তাবিত বাজেটে কম্পিউটার ও কম্পিউটার এক্সেসরিজের আমদানি শুল্ক ২ শতাংশ থেকে বাড়িয়ে ৫ শতাংশে উন্নীতের প্রস্তাব করা হয়েছে। এই সিদ্ধান্ত আইসিটি পণ্য আমদানিতে সরকারের অগ্রাধিকার খাতের গুরুত্বকে বাধাগ্রস্ত করবে।

তিনি বলেন, কম্পিউটার আমদানিতে শুল্ক বাড়ানোর সিদ্ধান্ত আইটি অবকাঠামো গঠনের পথে বাধা হবে। এছাড়া কম্পিউটারের মূল্য বৃদ্ধির ফলে ডিজিটাল ক্লাস রুম, ল্যাব, ই-সেবা কেন্দ্র, ডাটা সেন্টার গড়ে তোলা প্রভৃতি ক্ষেত্রে সরকারের নেওয়া উদ্যোগ বাস্তবায়ন ব্যয় অনেক বেড়ে যাবে।

এসময় কম্পিউটার ও কম্পিউটার এক্সেসরিজের আমদানি শুল্ক আগের মতো ২ শতাংশ বহাল রাখার জোর দাবি জানান তিনি।

সংবাদ সম্মেলনে জানানো হয়, চলতি ২০১৫-১৬ অর্থবছরে ২২ ইঞ্চি পর্যন্ত কম্পিউটার মনিটর আমদানি শুল্ক সুবিধা পেয়েছে। কিন্তু প্রস্তাবিত বাজেটে এই সুবিধা কমিয়ে ২২ ইঞ্চির জায়গায় ১৯ ইঞ্চি করা হয়েছে। বর্তমানে খ্যাতিমান কোনো প্রস্তুতকারক ২২ ইঞ্চি বা এর ছোট আকারের মনিটর উৎপাদন করে না। তাই মনিটরের আকার ১৯ ইঞ্চিতে রাখা ঠিক হয়নি। এই আকার ২২ ইঞ্চি থেকে বাড়িয়ে ২৮ ইঞ্চি নির্ধারণ করা এখন সময়ের দাবি।

বিসিএস নেতারা বলেন, অপটিক্যাল ফাইবার ক্যাবলের আমদানি  শুল্ক ১০ শতাংশ থেকে ১৫ শতাংশ করার প্রস্তাব করায় আমরা আশাহত।

অপটিক্যাল ফাইবার ক্যাবলের আমদানি শুল্ক শূন্য শতাংশ করার প্রস্তাব দেন তারা।

কম্পিউটার যন্ত্রাংশ থেকে সব ধরনের শুল্ক প্রত্যাহার হলে ‘মেক বাই বাংলাদেশ’ এবং মেধা ও প্রযুক্তিসমৃদ্ধ ডিজিটাল বাংলাদেশের যাত্রা অনেকদূর এগুবে বলে দাবি করেছেন বিসিএস নেতারা।

সদ্য প্রস্তাবিত বাজেটে জিডিপি প্রবৃদ্ধির হার ৭ শতাংশের মাইলফলক স্পর্শের প্রত্যয় ব্যক্ত করায় অর্থমন্ত্রীকে অভিনন্দন জানান তারা।

সংবাদ সম্মেলনে আরও উপস্থিত ছিলেন বিসিএস সহ সভাপতি ইউসুফ আলী শামীম, সেক্রেটারি জেনারেল ইঞ্জিনিয়ার সুব্রত সরকার, পরিচালক এ.টি. শফিক উদ্দিন আহমেদ প্রমুখ।

অর্থসূচক/মেহেদী/এমই/

এই বিভাগের আরো সংবাদ