বাজেটে আদিবাসীদের জন্য বরাদ্দ বাড়ানোর দাবি
today-news
brac-epl
প্রচ্ছদ » জাতীয়

বাজেটে আদিবাসীদের জন্য বরাদ্দ বাড়ানোর দাবি

আসন্ন ২০১৬-১৭ অর্থবছরের জাতীয় বাজেটে আদিবাসীদের জন্য বরাদ্দ বাড়ানোর দাবি জানিয়েছে জাতীয় আদিবাসী পরিষদ।

আজ রোববার ঢাকা রিপোর্টার্স ইউনিটিতে (ডিআরইউ) এক সংবাদ সম্মেলনে এ দাবি জানায় সংগঠনটি।

Jum agriculture

ছবি: সংগৃহীত

আদিবাসী পরিষদের সভাপতি রবীন্দ্রনাথ সরেন বলেন, আদিবাসী জনসংখ্যা এদেশের মোট জনসংখ্যার দুই শতাংশ। এ হিসেবে চলতি ২০১৫-১৬ অর্থবছরের বাজেটে তাদের জন্য কমপক্ষে ৫ হাজার কোটি টাকা বরাদ্দ রাখার কথা ছিল। কিন্তু তা হয়নি।

তিনি বলেন, আদিবাসীরা নানা কারণে শোষণ, বৈষম্য ও মানবসৃষ্ট দারিদ্র্য বঞ্চনার শিকার। তাই শতকরা হিসাবে এই বরাদ্দ আরও বেশি হওয়ার উচিত ছিল। কিন্তু রাখা হয়েছে মাত্র ৭৭৯ কোটি টাকা। এর মধ্যে সমতল আদিবাসীদের ভাগে পড়েছে মাত্র ২০ কোটি টাকা। এ অবস্থায় আগামী ২০১৬-১৭ অর্থবছরের বাজেটে পর্যাপ্ত ও ন্যায় সংগত বরাদ্দ রাখার দাবি জানাচ্ছি।

ঐক্য ন্যাপের সভাপতি পঙ্কজ ভট্টাচার্য বলেন, আদিবাসীদের ওপর নিপীড়ন-নির্যাতন বেড়েই চলছে। কিন্তু বিচারহীনতার সংস্কৃতি কমছে না, বরং ব্যাপক হচ্ছে। প্রভাবশালী দলের নেতারা এ ক্ষেত্রে সহযোগিতা করছেন।

আদিবাসী বিষয়ক সংসদীয় ককাস এর আহ্বায়ক ফজলে হোসেন বাদশা বলেন, আদিবাসীদের সঙ্গে সরকার ন্যায়সঙ্গত আচরণ করছে না। বিভিন্নস্থানে সংখ্যালঘুদের ওপর নির্যাতন চলছে, সে বিষয়ে সরকার কোনো পদক্ষেপ নিচ্ছে না।

তিনি বলেন, বৌদ্ধ ভিক্ষুককে হত্যা করা হয়েছে। স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী বলেছেন এটা পারিবারিক বিষয়, কিন্তু কথাটা ঠিক না। অন্যদিকে নারায়নগঞ্জে সংখ্যালঘু শিক্ষককে কান ধরে উঠাবসা করে শাস্তি দেওয়া হচ্ছে। কিন্তু সেই সাংসদের গলার স্বর নরম হচ্ছে না। সরকার সংশ্লিষ্ট অনেকেই পাকিস্তানিদের মতো আচরণ করছে।

এসময় তিনি সরকারকে আদিবাসীদের সব দাবি-দাওয়া মেনে নেওয়ার আহ্বান জানান।

বিশিষ্ট কলামিস্ট ও গবেষক সৈয়দ আবুল মকসুদ বলেন, সরকার আদিবাসীদের সঙ্গে সৎ শ্বাশুড়ি মতো আচরণ করছে। এটা দর্জাল আচরণ বললেও ভুল হবে না। কারণ এটা সৎ মায়ের চেয়েও ভয়ৎকর।

তিনি বলেন, আদিবাসীদের মূল সমস্যা অর্থনৈতিক। তাদেরকে অর্থনীতির মূলস্রোতে ফিরিয়ে আনতে হবে। এটা দেশের জন্যই প্রয়োজন।

অর্থমন্ত্রীকে ইঙ্গিত করে তিনি আরও বলেন, ৪ হাজার কোটি টাকার দুর্নীতি আপনার কাছে কিছুই না, খুবই সামান্য। এজন্য আদিবাসীদের জন্য এই সামান্য পরিমাণ অর্থ (৪ হাজার কোটি টাকা) বরাদ্দ করুন।

কাপেং ফাউন্ডেশনের নির্বাহী পরিচালক পল্লব চাকমার সঞ্চালনায় সংবাদ সম্মেলনে আরও উপস্থিত ছিলেন আদিবাসী ফোরামের সাধারণ সম্পাদক সঞ্জীব দ্রং, জনসংহতি সমিতির সদস্য দীপায়ন খীসা প্রমুখ।

অর্থসূচক/মাইদুল/এসএম

এই বিভাগের আরো সংবাদ