রাজশাহীতে ছাত্রদল-ছাত্রমৈত্রী সংঘর্ষ

songgorshoআধিপত্য বিস্তারকে কেন্দ্র করে রাজশাহী নিউ গভ. ডিগ্রী কলেজে বুধবার দুপুরে ছাত্রদল-ছাত্রমৈত্রীর নেতাকর্মীদের মধ্যে ধাওয়া পাল্টা-ধাওয়া ও সংঘর্ষের ঘটনা ঘটেছে। সংঘর্ষে উভয় গ্রুপের অন্তত ৫ নেতাকর্মী আহত হয়েছেন। আহতদের প্রাথমিক চিকিৎসা দেওয়া হয়েছে।

এ সময় ছাত্রদল ও ছাত্রমৈত্রীর কর্মীরা কলেজের চেয়ার, টেবিল ও বেঞ্চ ভাঙচুর করে। উদ্ভুত পরিস্থিতিতে বুধবার সকল ক্লাস বন্ধ করে দিয়েছে কলেজ কর্তৃপক্ষ। পরে পুলিশ এসে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আনে।

প্রত্যক্ষদর্শী ও পুলিশ সূত্রে জানা গেছে, কলেজে আধিপত্য বিস্তার নিয়ে ছাত্রদল ও ছাত্রমৈত্রীর সাথে বেশকিছুদিন থেকেই উত্তেজনা চলছিল। বুধবার দুপুর সাড়ে ১২টার দিকে ছাত্রমৈত্রী মিছিল বের করলে ছাত্রদলের টেন্ট থেকে ওই মিছিলে একটি ইট ছুড়ে মারলে এ সংঘর্ষের সূত্রাপাত হয়।

ছাত্রমৈত্রীর কলেজ শাখার সভাপতি রুহুল আমিন জানান, তার নেতৃত্বে ২০/২৫ জন নেতাকর্মী প্রতিদিন কলেজ ক্যাম্পাসে মিছিল বের করে। সেই ধারাবাহিকতায় আজ মিছিল বের করলে ছাত্রদলের নেতাকর্মীরা অতর্কিতভাবে মিছিলে ইটপাটকেট ছুড়তে থাকে। এ নিয়ে উভয় পক্ষের মধ্যে ধাওয়া-পাল্টা ধাওয়া শুরু হয়। পরে ছাত্রদলই ক্যাম্পাসে ভাঙচুর চালায়।

তবে কলেজ শাখা ছাত্রদলের সাধারণ সম্পাদক মেহেদি হাসানের অভিযোগ, দলীয় টেন্টে বসে থাকার সময় ছাত্রমৈত্রীর নেতা রুহুল আমিন ও মুরাদের নেতৃত্বে ২০/২৫ জন নেতাকর্মী মিছিল নিয়ে ক্যাম্পাসে মোহড়া দেয়। এ সময় আমাদের বসে থাকা নেতাকর্মীদের ওপর তারা হামলা চালায়। এতে আমাদের ৫ কর্মী আহত হয়। পরে ছাত্রমৈত্রীর কর্মীরা চেয়ার, টেবিল ও বেঞ্চ ভাঙচুর করে বলে দাবি করেন তিনি।

মহানগর পুলিশের বোয়ালিয়া জোনের সহকারী কমিশনার (এসি) এটিএম শাহীন আহমেদ জানান, দুই দলের উত্তেজনার খবর পেয়ে পুলিশ গিয়ে পরিস্থিতি শান্ত করে। সেখানে অপ্রীতিকর ঘটনা এড়াতে অতিরিক্ত পুলিশ মোতায়েন করা হয়েছে।

সাকি/