রোজায় পণ্যের দাম বাড়বে না, আশ্বাস ব্যবসায়ীদের
today-news
brac-epl
প্রচ্ছদ » অর্থনীতি

রোজায় পণ্যের দাম বাড়বে না, আশ্বাস ব্যবসায়ীদের

দেশে বর্তমানে চাহিদার চেয়ে অনেক বেশি পরিমানে নিত্য প্রয়োজনীয় পণ্য সামগ্রীর মজুত রয়েছে। ফলে সংগত কারণেই পণ্যের মূল্য বাড়ার কোনো সম্ভাবনা নেই বলে আশ্বাস দিয়েছেন ব্যবসায়ী সংগঠনের নেতারা।

মঙ্গলবার বাণিজ্য মন্ত্রণালয়ের সম্মেলন কক্ষে বাণিজ্যমন্ত্রী তোফায়েল আহমেদের সঙ্গে এক বৈঠককালে তারা এ আশ্বস্থের কথা জানান। সভায় নিত্যপ্রয়োজনীয় পণ্যের সরবরাহ ও মূল্য পরিস্থিতি নিয়ে ব্যাপক পর্যালোচনা করা হয়।

সভায় নিত্য প্রয়োজনীয় পণ্যের উৎপাদনকারী, আমদানিকারক, পাইকারি ও খুচরা ব্যবসায়ী প্রতিনিধিরা অংশ নেন। এদের মধ্যে উল্লেখযোগ্য হলো-
এফবিসিসিআই সভাপতি আব্দুল মাতলুব আহমাদ, মেঘনা গ্রুপের চেয়ারম্যান মোস্তফা কামাল, সিটি গ্রুপের মহাব্যবস্থাপক বিশ্বজিৎ সাহা প্রমুখ।

এছাড়া আরও ছিলেন নিত্যপ্রয়োজনীয় পণ্যের আমদানিকারক, পাইকারি ও খুচরা ব্যবসায়ী সংগঠনের নেতারা।

ব্যবসায়ীরা বলেন, বাজার চাহিদার চেয়ে বেশি পণ্য মজুত রয়েছে, সরবরাহ ব্যবস্থা স্বাভাবিক রয়েছে। ফলে প্রতি বছরের মতো এ বছর রমজান মাসে কোনো পণ্যের সংকট হবে না।

সভায় বাণিজ্যমন্ত্রী বলেন, পরিত্র রমজান মাসকে সামনে রেখে চাল, আটা, চিনি, ভোজ্য তেল, ডাল, পেঁয়াজ, রসুন, আদা, হলুদ ও খেজুরসহ সকল পণ্যের সরবাহ ও মজুত নিশ্চিত করা হয়েছে। কোন অবস্থাতেই যাতে কোনো পণ্যের দাম অযৌক্তিক বৃদ্ধি না পায় সে জন্য সরকার সব ধরনের ব্যবস্থা গ্রহণ করেছে।

এসময় ব্যবসায়ীদের আশ্বস্ত করে মন্ত্রী বলেন, বর্তমান সরকার ব্যবসায়ীবান্ধব সরকার। অসৎ ব্যবসায়ীদের কারণে অনেক সময় সৎ ব্যবসায়ীরা ভোগান্তিতে পড়েন। যা কখনোই কাম্য নয়। অসৎ ব্যবসায়ীদের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নিতে গিয়ে প্রকৃত ব্যবসায়ীরা যাতে ভোগান্তিতে না পড়ে সেজন্য সরকারি কর্মকর্তাদের নির্দেশ দেন তিনি।

তোফায়েল আহমেদ আরও বলেন, দেশে বছরে ভোজ্য তেলের চাহিদা ১৫ লাখ মেট্রিকটন। অথচ এপ্রিল, ২০১৬ নাগাদ আমদানি হয়েছে ১৮.৯০ লাখ মেট্রিকটন। অর্থাৎ চাহিদার চেয়ে প্রায় ৩ লাখ ৯০ হাজার বেশি মেট্রিকটন তেল উৎপাদন হয়েছে।

একইভাবে চিনির বার্ষিক চাহিদা ১৪ থেকে ১৫ লাখ মেট্রিকটন। এপ্রিল, ২০১৬ পর্যন্ত পণ্যটি আমদানি হয়েছে ১২.৭৪ লাখ মেট্রিকটন এবং দেশীয় উৎপাদন ১.২০ লাখ মেট্রিকটন। এছাড়া গত বছর চিনি আমদানি হয়েছে ১৭.৯৪ লাখ মেট্রিকটন। সবমিলিয়ে দেশের চাহিদার চেয়ে অনেক বেশি চিনি মজুদ রয়েছে। ফলে কোনো পণ্যের দাম বাড়বে না।

এর বাইরে পবিত্র রমজান মাসকে সামনে রেখে টিসিবি ১৭৪টি ট্রাক সেল ও ডিলারের মাধ্যমে চাল, ডাল, চিনি, ভোজ্য তেল, খেজুরসহ নিত্যপ্রয়োজনীয় পণ্য বিক্রয় করবে বলেও সভায় জানানো হয়।

অর্থসূচক/মেহেদী/শাফায়াত/শাহীন

এই বিভাগের আরো সংবাদ