খুলনায় পরিবহন ধর্মঘট, দুর্ভোগে যাত্রীরা
today-news
brac-epl
প্রচ্ছদ » App Home Page

খুলনায় পরিবহন ধর্মঘট, দুর্ভোগে যাত্রীরা

খুলনা বিভাগের ১০ জেলায় আজ রোববার ভোর ৬টা থেকে টানা ৪৮ ঘণ্টার পরিবহন ধর্মঘট পালন শুরু করেছে সড়ক পরিবহন মালিক-শ্রমিক ঐক্য পরিষদ। ওই বিভাগের ১০ জেলায় বাস-ট্রাক, ট্যাংক-লরি, কাভার্ড ভ্যানসহ সব ধরনের যাত্রী ও পণ্যবাহী যানবাহন চলাচল বন্ধ রয়েছে।

Khulna Bus Stand2

ধর্মঘটের কারণে খুলনার বাস ডিপুগুলো থেকে কোনো গাড়ি বের করা হয়নি। ছবি: শিউলী রহমান

ধর্মঘট শুরুর পর খুলনা বিভাগের সবচেয়ে বড় বাস টার্মিনাল সোনাডাঙ্গা বাসস্ট্যান্ড ছেড়ে যায়নি দূরপাল্লার কোনো গাড়ি। এমনকি বিভাগের কোনো জেলা থেকেও দূরপাল্লার কোনো পরিবহন ছাড়ার খবর পাওয়া যায়নি। এতে দুর্ভোগ পোহাচ্ছেন দূরপাল্লার যাত্রীরা। ধর্মঘটের ফলে অনেক যাত্রীকে বাসস্ট্যান্ড থেকে আবার ঘরে ফিরতে দেখা গেছে।

ধর্মঘটের কারণে খুলনার অভ্যন্তরীণ ১৬টি রুটেও কোনো ধরেনর বাস-ট্রাক চলাচল করছে না। তবে ব্যক্তিগত যানবাহন চলাচল করছে। আজ সকালে এই পরিবহন ধর্মঘটের সমর্থনে মিছিল করেন সোনাডাঙ্গা বাসস্ট্যান্ডে পরিবহন শ্রমিকরা।

সড়ক দুর্ঘটনায় মিশুক-তারেকের মৃত্যুর ঘটনায় ক্ষতিপূরণ আদায়ের মামলা প্রত্যাহারসহ ৩ দফা দাবি আদায়ের জন্য গতকাল শনিবার সংবাদ সম্মেলনে ধর্মঘটের ঘোষণা দেন সড়ক পরিবহন মালিক-শ্রমিক ঐক্য পরিষদের দক্ষিণ-পশ্চিমাঞ্চলীয় কমিটির সদস্যসচিব আব্দুর রহিম বক্স দুদু।

Khulna Bus Stand

ধর্মঘটের কারণে বন্ধ রয়েছে খুলনা বিভাগের ১০ জেলার গাড়ি। এতে দুর্ভোগে পড়েছেন যাত্রীরা। গাড়ি না চলায় বাসস্ট্যান্ড থেকে ঘরে ফিরেছেন অনেকেই। ছবি: শিউলী রহমান

তিনি বলেন, ধর্মঘটের কারণে বিভাগের ১০ জেলায় বাস-ট্রাক, ট্যাংক-লরি, কাভার্ড ভ্যানসহ সব ধরনের যাত্রী ও পণ্যবাহী যানবাহন চলাচল বন্ধ রয়েছে। এই দাবি পূরণ না হলে, দেশব্যাপী লাগাতার ধর্মঘট ডাকা হবে।

তাদের এ দাবির সঙ্গে একমত হয়ে ফরিদপুর, রাজবাড়ী এবং গোপালগঞ্জ জেলায়ও পরিবহন ধর্মঘট পালন করছেন সেখানকার শ্রমিক নেতারা।

অর্থসূচক/শিউলী/এমই/

এই বিভাগের আরো সংবাদ