পদ্মা সেতু রেলে ব্যয় হবে ৩৪ হাজার ৯৮৮ কোটি ৮৬ লাখ টাকা
today-news
brac-epl
প্রচ্ছদ » App Home Page

পদ্মা সেতু রেলে ব্যয় হবে ৩৪ হাজার ৯৮৮ কোটি ৮৬ লাখ টাকা

পদ্মা সেতু দিয়ে রেল চলাচলের উদ্যোগ নিয়েছে সরকার। এজন্য ৩৪ হাজার ৯৮৮ কোটি ৮৬ লাখ টাকা ব্যয়ে ‘পদ্মা সেতু রেল সংযোগ’ প্রকল্প অনুমোদন দিযেছে জাতীয় অর্থনৈতিক পরিষদের নির্বাহী কমিটি (একনেক)।

আজ মঙ্গলবার শেরেবাংলা নগরের পরিকল্পনা কমিশনের এনইসি সম্মেলন কক্ষে একনেক চেয়ারর্পাসন ও প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার সভাপতিত্বে একনেক বৈঠকে প্রকল্পটির অনুমোদন দেওয়া হয়। বৈঠকে মোট ৯টি প্রকল্প অনুমোদন দেওয়া হয়।

একনেক বৈঠক শেষে পরিকল্পনামন্ত্রী আ.হ.ম. মুস্তফা কামাল সাংবাদিকদের বিফ্রিং করে এসব তথ্য জানান।

পরিকল্পনামন্ত্রী বলেন, আজকের বৈঠকে ৮টি নতুন এবং ১টি সংশোধিত প্রকল্পসহ মোট ৯ প্রকল্পের অনুমোদন দিয়েছে একনেক। প্রকল্পগুলো বাস্তবায়নে প্রাক্কলিত ব্যয় ধরা হয়েছে ৪৪ হাজার ১৬৭ কোটি ১৪ লাখ টাকা। এতে সরকারি অর্থায়ন ১৯ হাজার ২৬৫ কোটি ৮৫ লাখ টাকা, সংস্থার নিজস্ব তহবিল ১৫২ কোটি টাকা এবং প্রকল্প  সাহায্য ২৪ হাজার ৭৪৯ কোটি ৫ লাখ টাকা।

পদ্মা নদীতে পরীক্ষামূলক পাইপ বসানোর কাজে নিয়োজিত যন্ত্রপাতি

পদ্মা নদীতে পরীক্ষামূলক পাইপ বসানোর কাজে নিয়োজিত যন্ত্রপাতি

পদ্মা সেতু রেল সংযোগ প্রকল্প প্রসঙ্গে মন্ত্রী বলেন, চীন সরকারের সহায়তায় দক্ষিণ-পশ্চিম অঞ্চলের সঙ্গে যোগাযোগ ব্যবস্থার উন্নয়নের জন্য পদ্মা সেতুর উপর দিয়ে ঢাকা-যশোর রেলপথ নির্মাণের উদ্যোগ নিয়েছে বাংলাদেশ সরকার। পদ্মা সেতু রেল সংযোগ প্রকল্পের মাধ্যমে রেললাইনটি ঢাকা–মাওয়া-ভাঙ্গা-নড়াইল-যশোর-বেনাপল পযন্ত যাবে। ভবিষ্যতে রেললাইনটি কক্সবাজার, ভারতের কলকাতা এবং চীন- মায়ানমার রেলওয়ের সঙ্গে সংযুক্ত হওয়ার মাধ্যমে বাংলাদেশ-চীন-ভারত-মায়ানমার রেলওয়ে করিডর গঠন করা হবে। এতে বাংলাদেশের আর্থ-সামাজিক উন্নয়ন ত্বরান্বিত হবে।

তিনি জানান, পদ্মা সেতু রেল সংযোগ প্রকল্পের জন্য ২৪ হাজার ৭৪৯ কোটি ৫ লাখ টাকা সহায়তা প্রদান করবে চীন সরকার। সেইসঙ্গে ১০ হাজার ২৩৯ কোটি ৮১ লাখ টাকা ব্যয় করবে বাংলাদেশ সরকার। রেলমন্ত্রণালয়ের আওতায় বাংলাদেশ রেল কর্তৃপক্ষ জানুয়ারি ২০১৬ থেকে ২০২২ মেয়াদে এই প্রকল্পের বাস্তবায়ন করবে।

আ.হ.ম. মুস্তফা কামাল বলেন, পদ্মা বহুমুখী সেতু প্রকল্পের ৩৩ শতাংশ কাজ শেষ হয়েছে। আশা করছি, যেদিন পদ্মা সেতুর উপর দিয়ে গাড়ি চলবে সেদিনই রেলপথ উদ্বোধন করা হবে।

অনুমোদিত অন্য প্রকল্পগুলো হলো: ৬ হাজার ২৫২ কোটি ২৯ লাখ টাকা ব্যয়ে ঢাকা-খুলনা (এন-৮) মহাসড়কের যাত্রাবাড়ি ইন্টারসেকশন থেকে (ইকুরিয়া-বাবুবাজার লিংক সড়কসহ) মাওয়া পর্যন্ত এবং পাঁচ্চর-ভাঙ্গা অংশ ধীরগতির যানবাহনের জন্য পৃথক লেনসহ ৪-লেনে উন্নয়ন; ৯১ কোটি ৯৪ লাখ টাকা ব্যয়ে জাতীয় মহাসড়কের (এন-৭) মাগুরা শহর অংশের রামনগর মোড় হতে আবালপুর পযন্ত সড়ক প্রশস্তকরণ; ১ হাজার ৮৯০ কোটি ৮৫ লাখ টাকা ব্যয়ে সিলেট বিভাগে বিদ্যুৎ বিতরণ ব্যবস্থা উন্নয়ন; ৫৩৩ কোটি ১৬ লাখ টাকা ব্যয়ে উপকূলীয় ও ঘূর্ণিঝড় প্রবণ এলাকায় বহুমুখী আশ্রয়কেন্দ্র নির্মাণ (২য় পর্যায়); ৭৭ কোটি ৪৯ লাখ টাকা ব্যয়ে প্রাণিরোগ প্রতিরোগ ও নিয়ন্ত্রণ; ৭০ কোটি ৫৬ লাখ টাকা ব্যয়ে উদ্যানতাত্ত্বিক ফসলের গবেষণা জোরদারকরণ এবং চর এলাকায় উদ্যান ও মাঠ ফসলের প্রযুক্তি বিস্তার প্রকল্প; ১৮৮ কোটি ৩৪ লাখ টাকা ব্যয়ে খুলনা বিশ্ববিদ্যালয়ের অধিকতর অবকাঠামো উন্নয়ন এবং ৭৩ কোটি ৫৫ লাখ টাকা ব্যয়ে বাংলাদেশ বেতারের মহাশক্তি প্রেরণ কেন্দ্রে ১০০০ কিলোওয়াট মাধ্যম তরঙ্গ ট্রান্স মিটার স্থাপন প্রকল্প।

অর্থসূচক/মাইদুল/এমই/

এই বিভাগের আরো সংবাদ