শেষ দিনে জমজমাট পর্যটন মেলা
today-news
brac-epl
প্রচ্ছদ » লিড নিউজ

শেষ দিনে জমজমাট পর্যটন মেলা

শুক্রবার থেকে রাজধানীর হোটেল সোনারগাঁওয়ে চার দিনব্যাপী শুরু হওয়া ঢাকা ট্রাভেল মার্ট ২০১৬ এর পর্দা নামছে আজ। ফলে আকর্ষণীয় অফারের ভ্রমণ প্যাকেজ আর নানা রকম ছাড়ের টানে ভ্রমণ পিপাশুদের পদচারণায় মুখরিত ছিল ১৩তম আন্তর্জাতিক পর্যটন মেলার শেষ দিন।

মেলায় প্রাঙ্গণ ঘুরে দেখা যায়, রাজধানীতে প্রচণ্ড তাপদাহের কারণে সকাল থেকে দুপর পর্যন্ত লোকজনের উপস্থিতি কিছুটা কম ছিল। কিন্তু বিকেল গড়াতেই উপস্থিতি বাড়তে থাকে।

শেষ দিনে জমজমাট ঢাকা ট্রাভেল মার্ট। ছবি অর্থসূচক।

শেষ দিনে জমজমাট ঢাকা ট্রাভেল মার্ট। ছবি অর্থসূচক।

ভ্রমণপ্রিয় পর্যটকদের কেউ কেউ এসেছেন এককভাবে। আবার কেউ কেউ পরিবার পরিজন নিয়ে। দেশি পর্যটকদের পাশাপাশি মেলায় বিদেশিদেরও উপস্থিতি দেখা গেছে। তারাও ঘুরে ঘুরে দেখছেন বিভিন্ন স্টল। জানছেন বিভিন্ন প্যাকেজে কিংবা অফার সম্পর্কে। কেউ কেউ মেলা প্রাঙ্গণেই বুকিং দিচ্ছেন বিশেষ ছাড়ের ভ্রমণ প্যাকেজগুলোতে।

দেশি-বিদেশি পর্যটকদের কাছে টানতেই এমন অফার বলে জানান স্টল মালিকরা। এছাড়া মেলায় গ্রাহকদের সেলফি প্রতিযোগিতারও আয়োজন করেছে নভোএয়ার। প্রতিযোগিতায় প্রথম তিন বিজয়ী পাবেন আকর্ষণীয় পুরস্কার।

এবারের মেলায় বাংলাদেশসহ বিভিন্ন দেশের ৫০টির অধিক সংস্থা অংশ নিয়েছে। এর মধ্যে রয়েছে জাতীয় পর্যটন সংস্থা, বিমান সংস্থা, ট্রাভেল ও ট্যুর অপারেটর, হোটেল ও রিসোর্ট, পর্যটন স্বাস্থ্যসেবা প্রতিষ্ঠান ও অন্যান্য।

মেলায় অংশ নিয়েছে ‘গার্ডিয়ান নেটওয়ার্ক’। মালয়েশিয়া যেতে আগ্রহীদের জন্য প্রায় ৫ ধরনের সেবা দিচ্ছে প্রতিষ্ঠানটি। এর মধ্যে রয়েছে- মালয়েশিয়াতে যারা সেকেন্ট হোম গড়তে চাই তাদের জন্য পরামর্শ থেকে শুরু করে যাবতীয় প্রক্রিয়ায় সহায়তা করা; মালয়েশিয়ায় পড়ালেখা, চিকিৎসা, জমি কেনা এবং ভ্রমণ। মূলত, মালয়েশিয়ায় ভ্রমণের সাথে সম্পৃক্ত সব বিষয়ে প্রতিষ্ঠানটি বিভিন্ন ধরনের টেকনিক্যাল সহায়তা দিচ্ছে।

গার্ডিয়ান নেটওয়ার্কের সিনিয়র এক্সিকিউটিভ নয়ন চৌধুরী অর্থসূচককে বলেন, আমরা গ্রাহকদের মালয়েশিয়া ভ্রমণে ভিসা প্রসেসিং থেকে শুরু করে সেখানে বিনিয়োগে সহায়তাসহ বিভিন্ন ধরনের কারিগরি সহায়তা দিই। গ্রাহকদের জন্য রয়েছে হেলথ সার্ভিস, ট্যুর প্যাকেজ, স্টাডি কন্সালটেন্সি, বিজনেস ভিসা সুবিধাও।

এবারের ট্রাভেল মার্টের টাইটেল স্পন্সর হিসেবে কাজ করছে বেসরকারি বিমান সংস্থা নভোএয়ার। মেলায় প্রত্যাশা কতটুকু পূরণ হলো- জানতে চাইলে প্রতিষ্ঠানটির ব্যবস্থাপনা পরিচালক মফিজুর রহমান বলেন, বাংলাদেশ ট্যুরিজম ও এয়ারলাইনসে বেসরকারি খাত গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা পালন করে আসছে। এই মেলার মাধ্যমে বাংলাদেশ ট্যুরিজম ও এয়ারলাইনস খাতে প্রসার ও প্রচার হবে।যার প্রমাণ ইতোমধ্যে আমরা পেয়েছি মেলায় আগদ দর্শনার্থীদের দেখে।

তিনি বলেন, আমাদের দেশের মানুষ সঠিক তথ্য না জানার কারণে বিদেশে যাওয়ার ক্ষেত্রে নানা ধরনের হয়রানি ও বিড়ম্বনার শিকার হয়। এ ধরনের মেলা নতুন পর্যটকদের সঠিক তথ্য জানার সমস্যা থেকে মুক্তি দেবে।

মেলায়  অভ্যন্তরীণ রুট ও আন্তর্জাতিক সকল গন্তব্যে ১৫ শতাংশ ছাড়ে বিমানের টিকিট দেয় নভোএয়ার। ইউএস-বাংলা এয়ারলাইন্সের সব টিকেটেও ছিল  ১০ শতাংশ ছাড়।

আসন্ন পহেলা বৈশাখ উপলক্ষে অভ্যন্তরীণ বরিশাল, রাজশাহী ও সৈয়দপুর রুটে টিকিটে দুই হাজার ৯৯৯ টাকা ছাড় রয়েছে। এ অফার চলবে পুরো এপ্রিল মাস জুড়ে।

মেলায় অংশ নেওয়া আরেক প্রতিষ্ঠান হোম ট্যুরস এন্ড ট্র্যাভেলস লিমিটেডের চেয়ারম্যান রেজওয়ান রহমান অর্থসূচককে বলেন, এবারের মেলায় ছুটির দিনগুলোতে দর্শনার্থীদের সবচেয়ে ভিড় ছিলো লক্ষণীয়। শেষ দিন শুরুতে লোকজন একটু কম থাকলেও সন্ধ্যার দিকে ভ্রমণপ্রিয়দের আগমনে মেলা পরিপূর্ণ হয়ে উঠে।

মেলায় ঘুরতে আসা দর্শনার্থী আনোয়ারুল ইসলাম বাচ্চু যিনি মেলা থেকে প্রাসাদ প্যারাডাইজ হোটেল অ্যান্ড রিসোর্টের ৯ হাজার ৫০০ টাকায় কক্সবাজারে ৩ দিন ২ রাত সঙ্গীসহ থাকার প্যাকেজটি বুকিং দিয়েছেন। তিনি অর্থসূচককে বলেন, আগে থেকেই পরিকল্পনা ছিল বৈশাখ উপলক্ষে কক্সবাজারে যাওয়ার। তবে মেলায় এসে অফারটি দেখে ভালো লাগলো। তাই বুকিং করলাম।

এদিকে মেলায় আগতদের কেউ কেউ অভিযোগ করেন, অধিকাংশ প্রতিষ্ঠান দর্শনীয় স্থানগুলোর সম্পর্কে সুনির্দিষ্ট দিক নির্দেশনা দিচ্ছে না। তারা কেবল হোটেল এবং যাতায়াতের ভাড়ার বিষয়টিকে ফলাও করছে।

অর্থসূচক/শাফায়াত/শাহীন

এই বিভাগের আরো সংবাদ