খেজুর ও কফি খেতে খেতে আইডিয়া আসে উদ্যোক্তা হওয়ার
today-news
brac-epl
প্রচ্ছদ » App Home Page

খেজুর ও কফি খেতে খেতে আইডিয়া আসে উদ্যোক্তা হওয়ার

সম্প্রতি বর্ষসেরা ক্ষুদ্র উদ্যোক্তা পুরস্কার জিতেছেন কেপিসি ইন্ডাষ্ট্রিজের মালিক এবং প্রধান নির্বাহী কর্মকর্তা কাজী সাজেদুর রহমান। দেশের সামগ্রিক অর্থনৈতিক উন্নয়নে এসএমই উদ্যোক্তাদের অবদানের স্বীকৃতিস্বরূপ এসএমই ফাউন্ডেশন থেকে তাকে ‘জাতীয় এসএমই উদ্যোক্তা পুরস্কার-২০১৬’ প্রদান করা হয়।

পরিবেশবান্ধব পেপার কাপ ও প্লেট উৎপাদন করে কেপিসি ইন্ডাষ্ট্রিজ। রাজধানীর বঙ্গবন্ধু আন্তর্জাতিক সম্মেলন কেন্দ্রে সদ্য সমাপ্ত এসএমই মেলায় প্রতিষ্ঠানটির স্টলে তরুণ এই উদ্যোক্তা কথা বলেন অর্থসূচকের সঙ্গে। নিজের সাফল্য গাঁথা, দেশে ক্যাটারিং শিল্পের সম্ভাবনা ও চ্যালেঞ্জসহ নানা দিক উঠে এসেছে তার কথায়।

বর্ষসেরা ক্ষুদ্র উদ্যোক্তা কাজী সাজেদুর রহমান

বর্ষসেরা ক্ষুদ্র উদ্যোক্তা কাজী সাজেদুর রহমান

অর্থসূচক: বর্ষসেরা ক্ষুদ্র উদ্যোক্তা পুরস্কার পেয়ে কেমন লাগছে?

কাজী সাজেদুর রহমান: অসম্ভব ভালো লাগছে। কখনও কল্পনা করিনি জাতীয় পর্যায়ে পুরস্কার পাবো। সরকারকে ধন্যবাদ। একজন তরুণ উদ্যোক্তাকে এই পুরস্কার দিয়েছেন। এর ফলে উদ্যোক্তা হতে তরুণরা আগ্রহী হবেন।

অর্থসূচক: আপনার উদ্যোক্তা হওয়ার গল্পটা শুনতে চাই।

কাজী সাজেদুর রহমান: ২০১০ সালে মাকে নিয়ে হজে যাই। সারাদিন রোজা রাখার পর মদিনা শরীফে মাগরিবের নামাজ পড়ি। সেখানে একজন অ্যারাবিয়ান আমাকে পেপার কাপে খেজুর ও কফি খেতে দেন। তখনই  মাথায় আইডিয়া আসে। চিন্তা করলাম বাংলাদেশে বাণিজ্যিকভাবে পেপার কাপ ও প্লেট তৈরি করবো। এরপর মালয়েশিয়া গিয়ে একটি প্রতিষ্ঠানে প্রশিক্ষণ নেই। ২০১২ সালের ফেব্রুয়ারিতে বেসরকারি একটি ব্যাংকের সহযোগিতায় উৎপাদন শুরু করি। তিনটি মেশিন দিয়ে পেপার কাপ ও প্লেট তৈরি করি; যা এখন ৭ টিতে দাঁড়িয়েছে।

অর্থসূচকের প্রতিবেদক মেহেদী হাসানের সঙ্গে কথা বলছেন বর্ষসেরা ক্ষুদ্র উদ্যোক্তা কাজী সাজেদুর রহমান

অর্থসূচকের প্রতিবেদক মেহেদী হাসানের সঙ্গে কথা বলছেন বর্ষসেরা ক্ষুদ্র উদ্যোক্তা কাজী সাজেদুর রহমান

অর্থসূচক: এবার আপনার সফলতার গল্পটা শোনাবেন?

কাজী সাজেদুর রহমান: ২০১২ সালের জুনে কেপিসি ব্র্যান্ডে পণ্য বাজারে ছাড়ার পর একে একে পেপসি, ইস্পাহানি, ঈগলু এবং বিএফসির মতো বড় বড় ব্র্যান্ডের অর্ডার পেতে শুরু করি। তারপর আর পেছনে ফিরে তাকাতে হয়নি।

অর্থসূচক: কেপিসি ইন্ডাষ্ট্রিজ এবং আপনাদের পণ্য সম্পর্কে কিছু বলুন?

কাজী সাজেদুর রহমান: আমরা সাধারণত পেপার কাপ এবং পেপার প্লেট উৎপাদন করে থাকি। তবে আগামীতে পেপার বক্স এবং পেপার ব্যাগ তৈরি করার পরিকল্পনা আছে। আমাদের পণ্যগুলো প্রাকৃতিক ব্যাকটেরিয়া দ্বারা সহজেই পঁচনশীল। শতভাগ পরিবেশবান্ধব। ক্ষতিকর ব্যাকটেরিয়া এবং জীবানুমুক্ত। ক্ষতিকর রাসয়নিক থেকে মুক্ত। এ প্রতিষ্ঠানে মোট ২৬ জন শ্রমিক কর্মরত আছে। এখানেই তাদেরকে প্রশিক্ষণ দেওয়া হয়েছে।

শিল্পমন্ত্রী আমির হোসেন আমুর কাছ থেকে ক্রেস্ট ও পুরুস্কার নিচ্ছেন বর্ষসেরা ক্ষুদ্র উদ্যোক্তা কাজী সাজেদুর রহমান

শিল্পমন্ত্রী আমির হোসেন আমুর কাছ থেকে ক্রেস্ট ও পুরুস্কার নিচ্ছেন বর্ষসেরা ক্ষুদ্র উদ্যোক্তা কাজী সাজেদুর রহমান

অর্থসূচক: এই শিল্পের সম্ভাবনা কতটুকু?

কাজী সাজেদুর রহমান: বিশ্ববাজারে এই শিল্পের একটি বড় বাজার রয়েছে। এছাড়া বর্তমান যুগে বাংলাদেশেও এসব ওয়ানটাইম পণ্যের প্রচলন বৃদ্ধি পাচ্ছে। কেননা, এটা ব্যবহারের ফলে সময় বাঁচবে। আমাদের পার্শবর্তী দেশ ভারতেও এর প্রচুর চাহিদা রয়েছে।

অর্থসূচক: এই সেক্টরের চ্যালেঞ্জগুলো কী কী?

কাজী সাজেদুর রহমান: এই সেক্টরে সম্ভাবনার পাশাপাশি অনেকগুলো চ্যালেঞ্জ রয়েছে। বাংলাদেশে এই শিল্প গড়ে ওঠার ক্ষেত্রে সবচেয়ে বড় প্রতিবন্ধকতা হলো জমি। এক্ষেত্রে সরকারের পক্ষ থেকে আমাদেরকে শিল্প প্লট বরাদ্ধ দেওয়া উচিত। এছাড়া এই শিল্পের কাঁচামাল আমদানি করতে হয়। এক্ষেত্রে আমাদেরকে ৬১ শতাংশ ভ্যাট দিতে হয়। দেশের স্বার্থে এসব কাঁচামাল ডিউটি ফ্রি করা উচিত।

অর্থসূচক: আপনাদের পণ্য কোন কোন দেশে রপ্তানি করছেন?

কাজী সাজেদুর রহমান: চলতি বছরেই আমরা রপ্তানি প্রক্রিয়া শুরু করেছি। জানুয়ারিতে নেপালে রপ্তানি হয়েছে। এছাড়া জার্মানিতে রপ্তানির প্রক্রিয়া চলছে।

কাজী সাজেদুর রহমানের প্রতিষ্ঠানে তৈরি পেপার কাপ ও পেপার প্লেট।

কাজী সাজেদুর রহমানের প্রতিষ্ঠানে তৈরি পেপার কাপ ও পেপার প্লেট।

অর্থসূচক: আগামী কয়েক বছরে আপনার প্রতিষ্ঠানকে কোথায় দেখতে চান?

কাজী সাজেদুর রহমান: বর্তমানে বিশ্ববাজারে যে হারে এসব পণ্যের চাহিদা বাড়ছে তাতে শিগগিরই আমরা অনেক দূর এগিয়ে যাবো। আমি চাই আমার প্রতিষ্ঠান অনেক বড় হোক। এখানে অনেক কর্মসংস্থান তৈরি হোক।

অর্থসূচক:  নতুন উদ্যোক্তাদের জন্য আপনার পরামর্শ কি?

কাজী সাজেদুর রহমান: যে কোনো ব্যবসা শুরুর আগে তিনটি জিনিস মাথায় রাখতে হবে। সততা, নিষ্ঠা আর পরিশ্রম। তাহলেই ব্যবসায় সফল হওয়া সম্ভব। নতুন উদ্যোক্তাদের নতুন নতুন বিষয় নিয়ে ভাবতে হবে। নতুন কিছু তৈরি করতে হবে। সমাজ ও দেশের কথা চিন্তা করে কাজ করতে হবে। তবে কেউ এই খাতে আসতে চাইলে তাদেরকে সবধরনের সহযোগিতা করবো।

অর্থসূচক: ছোটবেলায় কি হতে চেয়েছিলেন?

কাজী সাজেদুর রহমান: (একটু হেসে) ছোটবেলায় ফুটবলার হতে চেয়েছিলাম।  ফুটবলার হয়েছিও। বর্তমানেও বিভিন্ন লিগে ফুটবল খেলছি। (আবার মৃদু হেসে) আমার আরেকটি পরিচয় আমাকে সবাই ‘মেসি ভাই’ বলে ডাকে। এমনকি ক্রিকেটার সাকিব, মুশফিকরাও আমাকে মেসি ভাই বলে ডাকে। (হা হা হা)।

অর্থসূচক: আপনাকে অনেক ধন্যবাদ।

কাজী সাজেদুর রহমান: আপনাকে ও অর্থসূচক পরিবারকে ধন্যবাদ।

এই বিভাগের আরো সংবাদ