খুলনাসহ দক্ষিণ-পশ্চিমাঞ্চল আধুনিকায়নে ১৮ দফা দাবি
today-news
brac-epl
প্রচ্ছদ » জাতীয়

খুলনাসহ দক্ষিণ-পশ্চিমাঞ্চল আধুনিকায়নে ১৮ দফা দাবি

খুলনাসহ দক্ষিণ-পশ্চিমাঞ্চলে যোগাযোগ ব্যবস্থা আধুনিকায়নে বিভিন্ন জন গুরুত্বপূর্ণ প্রকল্প গ্রহণ ও বাস্তবায়নে ১৮ দফা দাবি জানিয়েছে বৃহত্তর খুলনা উন্নয়ন সংগ্রাম সমন্বয় কমিটি।

শনিবার দুপুরে খুলনা প্রেস ক্লাবে সংবাদ সম্মেলনে খুলনাসহ দক্ষিণ-পশ্চিমাঞ্চল আধুনিকায়নে ১৮ দফা দাবি তুলে ধরেন বৃহত্তর খুলনা উন্নয়ন সংগ্রাম সমন্বয় কমিটির মহাসচিব শেখ মোশাররফ হোসেন। ছবি: শিউলী রহমান

শনিবার দুপুরে খুলনা প্রেস ক্লাবে সংবাদ সম্মেলনে খুলনাসহ দক্ষিণ-পশ্চিমাঞ্চল আধুনিকায়নে ১৮ দফা দাবি তুলে ধরেন বৃহত্তর খুলনা উন্নয়ন সংগ্রাম সমন্বয় কমিটির মহাসচিব শেখ মোশাররফ হোসেন। ছবি: শিউলী রহমান

আজ শনিবার দুপুরে খুলনা প্রেস ক্লাবের ভিআইপি লাউঞ্জে এক সংবাদ সম্মেলনে সরকারের কাছে এ দাবি জানান উন্নয়ন কমিটির মহাসচিব শেখ মোশাররফ হোসেন।

সংবাদ সম্মেলনে তিনি বৃহত্তর খুলনার উন্নয়নে ১৮ দফা দাবি তুলে ধরেন।

দাবিগুলো হচ্ছে_ খুলনা-জোড়াগেট-দৌলতপুর-ফুলবাড়িগেট-শিরোমনি-ফুলতলা পর্যন্ত সড়ক ডিভাইডারসহ ৬ লেনে উন্নীতকরণ, খুলনা রেলস্টেশন-পাওয়ার হাউজ মোড় থেকে (শের-এ-বাংলা) রোড খুলনা বিশ্ববিদ্যালয়-জিরোপয়েন্ট পর্যন্ত ডিভাইডারসহ ৬ লেনে উন্নীতকরণ, খুলনা-বটিয়াঘাটা-দাকোপ-নলিয়ান আঞ্চলিক মহাসড়ক দ্রুত বাস্তবায়ন, খুলনা-যশোর রোড ৪ লেনে উন্নীতকরণ, খুলনা-ডুমুরিয়া (কাঁঠালতলা)-কপিলমুনি-পাইকগাছা-কয়রা আঞ্চলিক মহাসড়ক বাস্তবায়ন, খুলনা-সাতক্ষীরা-মুন্সিগঞ্জ আঞ্চলিক মহাসড়ক দ্রুত উন্নয়ন, ঢাকা-মাওয়া-মংলা-খুলনা মহাসড়ক ৪ লেনে উন্নীতকরণ, খুলনা-বাগেরহাট (সাইনবোর্ড)-মোড়েলগঞ্জ-শরণখোলা-সাউথখালী পর্যন্ত আঞ্চলিক মহাসড়ক দ্রুত উন্নয়ন, ভৈরব সেতু নির্মাণ: ভৈরব নদীর উপর ভৈরব সেতু (রুজভেল্ট জেটি ৭নং ঘাট স্থলে) স্থাপন ও ভৈরব নদীর তলদেশে জেলখানা ঘাট স্থলে ট্যানেল নির্মাণ করতে হবে, রূপসা ব্রীজ থেকে কাস্টম ঘাট-জেলখানা ঘাট-রুজভেল্ট জেটি হয়ে রেলিগেট পর্যন্ত নদীর তীর ঘেঁষে শহর রক্ষা বাঁধসহ পরিকল্পিত রাস্তা নির্মাণ ও পার্ক নির্মাণ করতে হবে, রূপসা সেতু থেকে রূপসা ফেরিঘাট পর্যন্ত ৪ লেন বাইপাস সড়ক দ্রুত নির্মাণ, মংলা-খুলনা-সাতক্ষীরা-ভোমরা ৪ লেন বিশিষ্ট মহাসড়ক নির্মাণ, দৌলতদিয়া- ফরিদপুর-মাগুরা-যশোর-খুলনা ৪ লেনে উন্নীতকরণ, খুলনা মহানগরীর বিভিন্ন রাস্তা নতুন মাস্টার প্লান অনুযায়ী প্রশস্তকরণ ও ফ্লাইওভার নির্মাণ, খুলনা পাবলিক হল (জিয়া হল) নতুন পরিকল্পনা অনুযায়ী দ্রুত নির্মাণ, ডাকবাংলা মোড়ে আধুনিক স্থাপত্যে পরিবেশ বান্ধব “খুলনা ট্রেড সেন্টার” দ্রুত নির্মাণ, খুলনা রেলওয়ের অব্যবহৃত ভূমির অবৈধ দখল  মুক্ত করে পরিকল্পনা অনুযায়ী বিশ্বমানের আধুনিক হাসপাতাল, ৫ তারকা বিশিষ্ট হোটেল ও অধুনিক স্থাপত্যে গড়ে তোলা এবং ফেরিঘাট থেকে শিববাড়ী মোড় পর্যন্ত আধুনিক রেল স্টেশনকে দৃষ্টিনন্দন করে গড়ে তোলা।

সংবাদ সম্মেলনে অন্যান্যের মধ্যে উপস্থিত ছিলেন উন্নয়ন কমিটির সভাপতি শেখ আশরাফ উজ জামান, উন্নয়ন কমিটির নেতা শাহীন জামাল পন, এ্যাডভোকেট শেখ আবুল কাশেম, নিজাম উর

রহমান লালু, এ্যাডভোকেট শেখ হাফিজুর রহমান হাফিজ, মিজানুর রহমান বাবু, মনিরুজ্জামান রহিম, অধ্যাপক আবুল বাসার, মিজানুর রহমান জিয়া, এস এম আকতার উদ্দিন পান্নু, শেখ আব্দুল্লাহ, আফজাল হোসেন রাজু, শিকদার আব্দুল খালেক, শাহ্ মামুনুর রহমান তুহিন, আরিফ নেওয়াজ, খলিলুর রহমান, এস এম জাকির হোসেন, সোহরাব হোসেন প্রমূখ।

অর্থসূচক/শিউলী/ডিএইচ

এই বিভাগের আরো সংবাদ