মশারা অকৃতজ্ঞ: দালাই লামা
today-news
brac-epl
প্রচ্ছদ » টুকিটাকি

মশারা অকৃতজ্ঞ: দালাই লামা

তিব্বতের প্রভাবশালী ধর্মগুরু ১৪তম দালাই লামা বলেছেন, মশারা শুধু কামড়ায় আর রক্ত পান করে। তৃষ্ণা মিটে গেলে উড়ে চলে যায়। তবে কৃতজ্ঞতা প্রকাশ করে না।

গতকাল শুক্রবার ভারতের রাজধানী নয়াদিল্লিতে মার্কিন দূতাবাস স্কুলে শিক্ষার্থীদের সঙ্গে  কথা বলছেন দালাই লামা। ছবি: নিউ ইয়র্ক টাইমস

গতকাল শুক্রবার ভারতের রাজধানী নয়াদিল্লিতে মার্কিন দূতাবাস স্কুলে শিক্ষার্থীদের সঙ্গে কথা বলছেন দালাই লামা। ছবি: নিউ ইয়র্ক টাইমস

গতকাল শুক্রবার ভারতের রাজধানী নয়াদিল্লিতে মার্কিন দূতাবাস স্কুলে শিক্ষার্থীদের সঙ্গে এক আলাপচারিতায় তিনি এসব কথা বলেন।

আজ শনিবার নিউ ইয়র্ক টাইমসের এক প্রতিবেদনে বলা হয়, স্কুলের অডিটোরিয়ামে দালাই লামা শিক্ষার্থীদের সঙ্গে ১ ঘণ্টা ৪০ মিনিট কথা বলেন। এ সময় তিনি তাদের সঙ্গে কয়েকটি বিষয়ে মজার মজার কথা বলেন।

দালাই লামা বলেন, যখন তিনি প্রফুল্ল মেজাজে থাকেন এবং বুঝতে পারেন সুস্থ্য রয়েছেন; তখন তিনি মশাদের তার দেহের রক্ত পান করার অনুমতি দেন। রক্ত পান করে যখন তাদের গোটা দেহ লাল হয়ে যায় এবং তারপর উড়ে যায়। তবে তাদের মধ্যে কোনো কৃতজ্ঞতাবোধ নেই।

মশাদের এই কাণ্ডজ্ঞানহীন অভ্যাস দেখে বিজ্ঞানীদের কাছে তার প্রশ্ন, পোকারা কি কখনো কৃতজ্ঞতা প্রকাশ করতে সক্ষম হবে?

তিনি বলেন, তার একটি পোষা বিড়াল আছে। তিনি বৃদ্ধ হচ্ছেন, তার বিড়ালটিও বৃদ্ধ হচ্ছে। তিনি সেই রোগব্যাধিগ্রস্ত বৃদ্ধ বিড়ালটিকে ভেংচি কাটেন। যা তার কাছে খুবই মজার।

জাপানি খাবার সম্পর্কে এই ধর্মগুরু বলেন, মাঝেমাঝে ওই দেশের খাবার সাজসজ্জার মতো দেখায়, আসল খাবার নয়। প্রায়ই তিনি অনুভব করেন, জাপানি খাবার খাওয়ার পর লোকজন হয়তো বাইরে গিয়ে আবার রেস্তোরাঁ খুঁজে।

প্রসঙ্গত, ১৯৫৯ সালে তিব্বতে উদ্ভূত এক গণ-অভ্যুত্থান প্রতিরোধে চীনা সেনাবাহিনী হস্তক্ষেপ করলে ভারতে পালিয়ে আসেন বর্তমান দালাই লামা তেনজিং গিয়াতসো। তারপর থেকে তিনি সেখানেই নির্বাসিত জীবনযাপন করছেন। চীন এই বৌদ্ধ ধর্মগুরুকে একজন ‘বিচ্ছিন্নতাবাদী’ হিসেবে বিবেচনা করে। আগামী গ্রীষ্মে ৮১ বছরে পা দিবেন শান্তিতে এই নোবেল বিজয়ী।

অর্থসূচক/ডিএইচ

এই বিভাগের আরো সংবাদ