মদ না পেয়ে খাচ্ছেন সাবান!
today-news
brac-epl
প্রচ্ছদ » টুকিটাকি

মদ না পেয়ে খাচ্ছেন সাবান!

ভারতের অন্যতম অঙ্গরাজ্য বিহারে সম্প্রতি মদ পানে নিষধাজ্ঞা আরোপ করা হয়েছে। এর তীব্র প্রভাব পড়েছে ওই রাজ্যের নিয়মিত মদ পানকারীদের উপর।

বিহারে মদ না পেয়ে খাচ্ছেন সাবান, কাগজ ও ব্যথানাশক ওষুধ। ছবি: টাইমস অব ইন্ডিয়া

বিহারে মদ না পেয়ে খাচ্ছেন সাবান, কাগজ ও ব্যথানাশক ওষুধ। ছবি: টাইমস অব ইন্ডিয়া

মদ পান করতে না পাওয়ায় অনেকে ভীতসন্ত্রস্ত হয়ে পড়েছেন। অনেকে পরিবারের সদস্যদের চিনতে পারছেন না। এমনকি মদের তৃষ্ণা মেটাতে একজন সাবান খেয়ে ফেলেছেন। শুধু তাই নয়, মদ পান করতে না পেরে অনেকেই অসুস্থ হয়ে পড়েছেন।

আজ বৃহস্পতিবার টাইমস অব ইন্ডিয়ার এক প্রতিবেদনে বলা হয়, এক ব্যক্তি দিনে ৬০০- ১২০০ মিলিলিটার দেশি মদ পান করতেন। ৩১ মার্চ পর্যন্ত তিনি তা পান করেছেন। পরে তা নিষিদ্ধ করায় কয়েকদিন ধরে তিনি এই মদ পান করতে পারেননি। ফলে ৩০ বছর বয়সী ওই ব্যক্তি পরিবারের কাউকে চিনতে পারছেন না। এমনকি তিনি সোজা হয়ে দাঁড়াতেও পারছেন না।

গতকাল বুধবারই বিতিয়াহ জেলায় যেকোনো মদের তৃষ্ণা মেটাতে সাবান খেতে দেখা গেছে এক ব্যক্তিকে। তা টেলিভিশনেও প্রচার হয়েছে।

কিছু মাদকাসক্তি নিরাময় কেন্দ্র জানিয়েছে, মদ না পেয়ে অনেকে কাগজ ও ব্যথানাশক ওষুধ খেয়ে এর চাহিদা মেটাচ্ছেন। শুধু তাই নয়, কিশোররা এর চাহিদা পূরণে মরিচ খাচ্ছে।

গতকাল বুধবার রাজ্যটির নতুন ৩৮টি মাদকাসক্তি নিরাময় কেন্দ্রে ৭৪৯ জনকে ভর্তি করা হয়েছে।

এ ভয়াবহতা প্রতিকারে রাজ্য সরকারকে আরও মাদকাসক্তি নিরাময় কেন্দ্র খোলার পরামর্শ দিয়েছেন চিকিৎসকরা।

এক বিবৃতিতে সরকার জানিয়েছে, ঘটনাগুলো তারা পর্যবেক্ষণে রাখছেন। প্রাথমিক স্বাস্থ্য কেন্দ্রগুলোতেও এর চিকিৎসার ব্যবস্থা থাকছে।

সরকারের পক্ষ থেকে জানানো হয়েছে, জেলা হাসপাতালগুলোর মাদকাসক্তি নিরাময় কেন্দ্রগুলোতে আরও নার্স নিয়োগ দেওয়া হবে। একই সঙ্গে কেন্দ্রের ধারণক্ষমতা ১০ থেকে ২০ শয্যাবিশিষ্ট করা হবে। রাজ্যের ৬টি মেডিকেল কলেজের মধ্যে ৫টিতে মাদকাসক্তি নিরাময় কেন্দ্র খোলা হবে।

ইতোমধ্যে রাজ্যটিতে মদ পানে নিষেধাজ্ঞার বিরুদ্ধে পাটনা হাইকোর্টে পিটিশন দাখিল করেছেন এক ব্যক্তি। হাইকোর্ট এর শুনানির দিন ধার্য করেছেন।

প্রসঙ্গত, গত মঙ্গলবার বিহারে মদ পানে নিষেধাজ্ঞা আরোপ করে রাজ্য সরকার।

অর্থসূচক/ডিএইচ

এই বিভাগের আরো সংবাদ