বিশ্বকাপের পৃষ্ঠপোষকদের উদ্যোগী হওয়া আহ্বান
today-news
brac-epl
প্রচ্ছদ » প্রবাস
কাতারে শ্রমিক নির্যাতন

বিশ্বকাপের পৃষ্ঠপোষকদের উদ্যোগী হওয়া আহ্বান

কাতারে ফুটবল বিশ্বকাপের স্টেডিয়াম নির্মাণে নিয়োজিত শ্রমিকদের বল প্রয়োগে কাজ করানো হচ্ছে, জোর করে আটকে রেখে করা হচ্ছে নানা নিপীড়ন। বাংলাদেশ, ভারত, নেপালসহ এশিয়ার বেশ কয়েকটি দেশের শ্রমিকরা সেখানে চরম মানবেতর জীবন যাপন করছেন।

নিয়মিত পারিশ্রমিকও পাচ্ছেন না তারা। আটকে রাখা হচ্ছে কয়েদীরমতো, কেড়ে নেওয়া হচ্ছে পাসপোর্ট।

শ্রমিকদের প্রতি এই অমানবিক আচরণ বন্ধে বিশ্বকাপের অন্যতম পৃষ্ঠপোষক অ্যাডিডাস, কোকাকোলা ও ম্যাগডোনাল্ড এর মতো কোম্পানিগুলোকে ফিফার ওপর চাপ প্রয়োগের অনুরোধ করেছে অ্যামনেস্টি ইন্টারন্যাশনাল।qatar

উল্লেখ, ২০২২ সালে  ফুটবল বিশ্বকাপ উপলক্ষ্যে নির্মিতব্য খলিফা ইন্টারন্যাশনাল স্টেডিয়াম নির্মাণে নিয়োজিত শ্রমিকরা এমন অমানবিক অবস্থার মুখোমুখি হচ্ছেন বলে সম্প্রতি উদ্বেগ প্রকাশ করেছে আন্তর্জাতিক মানবাধিকারের এই সংস্থাটি।

অ্যামনেস্টির প্রতিবেদনে বলা হয়েছে, শ্রমিকদের খুবই সংকীর্ণ জায়গায় থাকতে বাধ্য করা হচ্ছে, পাসপোর্ট ও মজুরী আটকে রাখা হচ্ছে।

এ সংক্রান্ত প্রতিবেদন তৈরি করতে সংস্থাটি  সেখানে কর্মরত দক্ষিণ এশিয়ার ২৩১ জন শ্রমিকের সাক্ষাৎকার নিয়েছে। যার মধ্যে ১৩২ জনই কাজ করে ওই স্টেডিয়ামে।  বাকি ৯৯ জনও বিশ্বকাপকে সামনে রেখে শহরের সৌন্দর্য বর্ধনে কাজ করছে।

প্রতিবেদনে বলা হয়েছে, শ্রমিকদের পাসপোর্ট আটকে রেখে দেশ ত্যাগ করতে দেওয়া হয় না। এমনকি অভিযোগ তুললে পুলিশে দেওয়া হয় শ্রমিকদের।

এদিকে টুর্নামেন্ট আয়োজনে মানবাধিকার লঙ্ঘনের মতো ঘটনা বন্ধ করতে ফিফার বিরুদ্ধেও ব্যর্থতার অভিযোগ এনেছে অ্যামনেস্টি ইন্টারন্যাশনাল।

আর এজন্য বিশ্বকাপের কাজে নিয়োজিত শ্রমিকদের জীবনমান নিজেদের তদারকি করার  জন্য ফিফাকে পরামর্শ দিয়েছে সংস্থাটি।

অ্যামনেস্টির প্রতিবেদন প্রকাশের পর কাতার সরকারও উদ্বেগ প্রকাশ করেছে বলে বিবিসির খবরে বলা হয়েছে।  কাতার সরকারের বরাত দিয়ে বিবিসির খবরে বলা হয়েছে, অভিবাসী শ্রমিকদের কল্যাণের বিষয়টি তাদের কাছে খুবই গুরুত্বপূর্ণ।

এ জন্য দেশটিতে নতুন শ্রম আইন হয়েছে বলেও দেশটির সরকারের তরফে বলা হয়েছে। আর নতুন এই আইন শ্রমিকদের কল্যাণে কাজে আসবে বলে তারা আশাও করছে।

এর আগেও কাতারের শ্রম নিপীড়ন নিয়ে অভিযোগ তুলেছে অ্যামনেস্টি ইন্টারন্যাশনাল কিন্তু এবারই প্রথম বিশ্বকাপের সঙ্গে সম্পৃক্ত কাজের শ্রম ব্যবস্থা নিয়ে তারা অভিযোগ তুলল।

টি

 

এই বিভাগের আরো সংবাদ