প্রাথমিক সমাপনী পরীক্ষা বাতিলের দাবি
today-news
brac-epl
প্রচ্ছদ » জাতীয়

প্রাথমিক সমাপনী পরীক্ষা বাতিলের দাবি

প্রাথমিক সমাপনী পরীক্ষা বাতিলের দাবি জানিয়েছে ঢাকার বিভিন্ন শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানে অধ্যয়নরত শিক্ষার্থীদের অভিভাবকদের একটি সংগঠন।

এই দাবি জানিয়ে আজ শুক্রবার জাতীয় প্রেসক্লাবের সামনে মানববন্ধন করে অভিভাবক ঐক্য ফোরাম। শতাধিক অভিভাবক ওই মানববন্ধনে অংশ নেন।

ফোরামের সভাপতি জিয়াউল কবির দুদু বলেন, শিশুদের উপর থেকে পরীক্ষার চাপ কমাতে হবে। ২০১৮ সাল নয়; ২০১৬ সালেই প্রাথমিক সমাপনী পরীক্ষা বাতিল করতে হবে।

একইসঙ্গে জুনিয়র স্কুল সার্টিফিকেট (জেএসসি) পরীক্ষাও বাতিলের দাবি জানিয়ে ইউনুস আলী আকাশ নামে এক অভিভাবক বলেন, প্রাথমিক সমাপনী ও জেএসসি পরীক্ষার কথা আইনে বলা নেই। যথাযথ শিক্ষার জন্য এসএসসি এবং এইচএসসি পরীক্ষাই যথেষ্ট।

২০০৯ সাল থেকে প্রাথমিক সমাপনী পরীক্ষা নিচ্ছে সরকার। পঞ্চম শ্রেণির শিক্ষার্থীদের সমাপনী পরীক্ষা শুরুর পর আলাদা করে আর বৃত্তি পরীক্ষা হচ্ছে না। সমাপনীতে উত্তীর্ণদের মধ্য থেকেই বৃত্তি দেওয়া হচ্ছে।

জাতীয় শিক্ষানীতি অনুযায়ী, ২০১৮ সালের মধ্যে প্রাথমিক শিক্ষা অষ্টম শ্রেণিতে উন্নীত করতে হবে। প্রাথমিক শিক্ষা অষ্টম শ্রেণিতে উন্নীতের পর প্রাথমিক সমাপনী পরীক্ষা থাকবে কি না- সে বিষয়ে এখনও সিদ্ধান্ত নেয়নি সরকার।

ইউনুস নামে এক অভিভাবক বলেন, শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানগুলো বেতন-ভাতা বাড়ালে তা সরকারকে বহন করতে হবে।

মানবন্ধনে শ্রেণিকক্ষে মানসম্মত পাঠদান নিশ্চিত এবং আইন করে কোচিং সেন্টার বন্ধেরও দাবি জানিয়েছেন অভিভাবকরা। দাবি আদায়ে জাতীয় প্রেসক্লাবের সামনে আগামী ২৩ এপ্রিল সকাল ১০টা থেকে বেলা ১২টা পর্যন্ত অবস্থান এবং ২৭ মে প্রতীকী অনশন কর্মসূচি ঘোষণা করেন অভিভাবক ঐক্য ফোরাম জিয়াউল কবির দুদু।

অর্থসূচক/বিএন/এমই/

এই বিভাগের আরো সংবাদ