বিমা কোম্পানিতে সবোর্চ্চ শেয়ার হবে ১০%
today-news
brac-epl
প্রচ্ছদ » ব্যাংক-বিমা

বিমা কোম্পানিতে সবোর্চ্চ শেয়ার হবে ১০%

বিমা কোম্পানির শেয়ারধারণের সবোর্চ্চ সীমা বেঁধে দিতে যাচ্ছে সরকার। অর্থমন্ত্রণালয় সুত্রে জানা গেছে, এ সংক্রান্ত খসড়া নীতিতে শেয়ারধারণের সবোর্চ্চ সীমা ১০ শতাংশে নির্ধারণের প্রস্তাব করা হয়েছে। খসড়ায় আরও বলা হয়েছে, ২ শতাংশের কম শেয়ারধারীদের কেউ সংশ্লিষ্ট প্রতিষ্ঠানের পরিচালনা পর্ষদের সদস্য হতে পারবেন না।atiur

গত সপ্তাহে এ খসড়া নীতি পরীক্ষা-নিরীক্ষার জন্য আইন, বিচার ও সংসদ বিষয়ক মন্ত্রণালয়ে পাঠানো হয়েছে।

বর্তমানে কার্যরত বিমা আইন-২০১০ এ ধরনের কোনো বিধি-বিধান নেই। তবে বিমা উন্নয়ন ও নিয়ন্ত্রক সংস্থা (আইডিআরএ) সুত্রে জানা গেছে, বিমা কোম্পানির ‘নিবন্ধন বিধান’এর মাধ্যমে এ সীমা কার্যকর রয়েছে। ১৬টি নতুন কোম্পানিকে লাইসেন্স দেওয়ার সময় প্রথমবারের মতো এ সীমা কার্যকর করা হয়। তবে এবার তা বিমা আইন-২০১০’এ ধারা হিসেবে অন্তর্ভূক্ত করা হবে।

সংস্থাটির কর্মকর্তারা জানিয়েছেন, বিমা প্রতিষ্ঠানকে বিভিন্ন পরিবার ও গোষ্ঠীর দখল থেকে বাঁচাতে এ উদ্যোগ নেওয়া হয়েছে। এতে পুঁজিবাজার বা বিভিন্ন পক্ষের ক্ষুদ্র বিনিয়োগকারীদের স্বার্থ সংরক্ষণের সুযোগ বাড়বে।

অবশ্য বর্তমানে বিমা কোম্পানি পুঁজিবাজারে তালিকাভুক্ত হওয়ার আগেই এ বিধি বিধান পালনের বাধ্যবাদকতা রয়েছে। ২০১০ সালে শেয়ারবাজার ধসের পর বাংলাদেশ সিকিউরিটিজ অ্যান্ড এক্সচেঞ্জ কমিশন (বিএসইসি) এ সীমা নির্ধারণ করে দেয়।

এদিকে বাংলাদেশ ইনস্যুরেন্স অ্যাসোসিয়েশনের এক নেতা মনে করছেন, সবোর্চ্চ শেয়ার বা পরিচালক হওয়ার জন্য সর্বনিম্ন শেয়ারের সীমা বেঁধে দেওয়ার প্রয়োজন নেই। কেননা, বর্তমানে কোনো প্রকার বিধি-বিধান ছাড়াই বিমা কোম্পানিগুলো এ নিয়ম মেনে চলছে।

তবে আইডিআরএ’র এক কর্মকর্তা জানিয়েছেন, বিএসইসি কর্তৃক সীমা বেঁধে দেওয়ার পর বেশ কয়েকটি বিমা কোম্পানি এর বিরুদ্ধে আদালতের দ্বারস্থ হয়েছিল। অবশ্য আদালত বিএসইসির পক্ষেই রায় দিয়েছিলেন।

এসবি

এই বিভাগের আরো সংবাদ