'সুশাসন সমৃদ্ধ অর্থনৈতিক প্রবৃদ্ধি অর্জন জরুরি'
today-news
brac-epl
প্রচ্ছদ » লিড নিউজ

‘সুশাসন সমৃদ্ধ অর্থনৈতিক প্রবৃদ্ধি অর্জন জরুরি’

সততা ও নৈতিকতা উৎকর্ষিত হয়ে শুদ্ধাচারের মাধ্যমে সুশাসন সমৃদ্ধ অর্থনৈতিক প্রবৃদ্ধি অর্জনে জোর দিতে সবার প্রতি আহ্বান জানিয়েছেন অর্থ ও পরিকল্পনা প্রতিমন্ত্রী এম.এ. মান্নান।

আজ শনিবার রাজধানীর বিদ্যুৎ ভবনে ‘শুদ্ধাচার বিকাশে বেসরকারি খাতের ভূমিকা’ শীর্ষক সেমিনারে এ আহ্বান জানান তিনি। মন্ত্রিপরিষদ বিভাগ, জাতীয় রাজস্ব বোর্ড (এনবিআর) এবং জাপানের আন্তর্জাতিক সাহায্য সংস্থা জাইকা যৌথভাবে এই সেমিনারের আয়োজন করে।

এম.এ. মান্নান বলেন, সারাবিশ্বে অর্থনৈতিক মন্দা সত্বেও বাংলাদেশ ধারাবাহিকভাবে বেশ ভালো প্রবৃদ্ধি অর্জন করে যাচ্ছে। আমরা অর্থনৈতিকভাবে উন্নতি লাভ করছি। এখন নৈতিকতা ও সততা দ্বারা প্রভাবিত হয়ে আচরণগত উৎকর্ষতা বা শুদ্ধাচার বিশিষ্ট জাতি গঠন করতে হবে।

তিনি বলেন, এই সময়ে বেসকারি খাত বাদ দিয়ে সরকার একার পক্ষে কোনো কিছু করা সম্ভব নয়, এটা অস্বীকার করা যাবে না। সুখী-সমৃদ্ধ সোনার বাংলা গড়তে হলে সরকারি-বেসরকারি সব প্রতিষ্ঠানে সুশাসন বা শুদ্ধচার প্রতিষ্ঠা করতে হবে। এজন্য সরকারি-বেসরকারি খাতকে একসঙ্গে কাজ করতে হবে।

প্রতিমন্ত্রী বলেন, আইনের যথাযথ প্রয়োগ ও তথ্য প্রযুক্তির ব্যবহারের মাধ্যমে আমরা দুর্নীতির মাত্রা কমিয়ে আনতে পারি। এর পাশাপাশি প্রতিষ্ঠানে উৎপাদনও বৃদ্ধি করতে পারি। তাই এ বিষয়ে এখনই নজর দিতে হবে।

আইনের ভারে রাষ্ট্র নতজানু উল্লেখ্য করে এম.এ. মান্নান বলেন, যখনই কোনো সমস্যা দেখা দেয়, তখনই আমরা আইন তৈরি করি। আইনের ভারে আমরা নতজানু। আইনগুলোর সংস্কার প্রয়োজন, অপ্রয়োজনীয় আইনগুলো ঝেড়ে ফেলতে হবে। তাহলে রাষ্ট্রে সুশাসন প্রতিষ্ঠা হবে।

তিনি বলেন, দেশে অর্থনৈতিক পরিবর্তনের পাশাপাশি শিক্ষা, স্বাস্থ্য, প্রযুক্তি ও মানুষের চিন্তা ধারায়ও পরিবর্তন হচ্ছে।

প্রতিমন্ত্রী বলেন, দেশে প্রায় ৮০ শতাংশ ব্যবসা-বাণিজ্য ব্যবসায়ীদের হাতে। এটা নিয়ে আমরা শঙ্কিত। ব্যবসায়ীদের কাছ থেকে ৮০-৯০ শতাংশ সহযোগিতা আশা করি।

এনবিআর চেয়ারম্যান মো. নজিবুর রহমানের সভাপতিত্বে সেমিনারে আরও উপস্থিত ছিলেন মন্ত্রিপরিষদ সচিব মো. শফিউল আলম, এফবিসিসিআই প্রেসিডেন্ট আব্দুল মাতলুব আহমাদ, জাইকার বাংলাদেশের প্রধান প্রতিনিধি মিকিও হাতায়িতদা প্রমুখ।

অর্থসূচক/এমআই/এমই/

এই বিভাগের আরো সংবাদ