বছরে ১ লাখ টন মধু উৎপাদন সম্ভব: শিল্পমন্ত্রী
today-news
brac-epl
প্রচ্ছদ » লিড নিউজ
রাজধানীতে মৌ মেলা শুরু

বছরে ১ লাখ টন মধু উৎপাদন সম্ভব: শিল্পমন্ত্রী

‘মিলবে পুষ্টি বাড়বে ফলন, আয় বাড়াবে মৌ পালন’ এই স্লোগান নিয়ে রাজধানীর খামারবাড়ি কৃষিবিদ ইনস্টিটিউশন চত্বরে আজ রোববার থেকে শুরু হয়েছে ৩ দিনব্যাপী মৌ মেলা-২০১৬। মেলা চলবে ১ মে পর্যন্ত।

রাজধানীতে মৌ মেলা শুরু

রাজধানীতে মৌ মেলা শুরু

কৃষি সম্প্রসারণ অধিদফতর আয়োজিত এ মেলার উদ্বোধন করেন শিল্পমন্ত্রী আমির হোসেন আমু। অনুষ্ঠানে বিশেষ অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন কৃষিমন্ত্রী মতিয়া চৌধুরী।

অনুষ্ঠানে শিল্পমন্ত্রী বলেন, মৌ চাষে উন্নত প্রযুক্তি ও চাষীর সংখ্যা বাড়াতে পারলে  দেশে বছরে ১ লাখ মেট্রিক টন মধু উৎপাদন সম্ভব।

তিনি জানান, বর্তমানে দেশে বছরে মাত্র ৪ হাজার মেট্রিক টন মধু উৎপাদিত হয়। কিন্তু বিশেষজ্ঞরা বলছে, উন্নত প্রযুক্তি ও মৌ চাষীর সংখ্যা বাড়ালে মধুর উৎপাদন বছরে ১ লাখ মেট্রিক টন উৎপাদন সম্ভব। এতে করে দেশের চাহিদা মিটিয়ে বিদেশেও মধু রপ্তানি করা যাবে।

শিল্পমন্ত্রী বলেন, মৌমাছি ফুলের প্রকৃতিক পরাগায়নে সাহায্য করে। ফলে কৃষিখাতে ১০ থেকে ১২ শতাংশ উৎপাদন বেড়ে যায়। অথচ বিষয়টি সম্পর্কে  প্রান্তিক কৃষকদের অনেকেরই সচেতনতার অভাব রয়েছে। তাই এ বিষয়ে কৃষকদের সচেতন করে তুলতে হবে। তাছাড়া বাংলাদেশের আবহাওয়া মৌ চাষের জন্য উপযোগী।

বিশেষ অতিথির বক্তব্যে কৃষিমন্ত্রী মতিয়া চৌধুরী বলেন, আগে দেশের চাহিদার কথাও বিবেচনা করতে হবে। তারপর রপ্তানির কথা ভাবতে হবে। তবে মৌ চাষ বাড়াতে পারলে আমাদের মধুর চাহিদা পূরণ সম্ভব। তাছাড়া রপ্তানির ক্ষেত্রে প্রথম চালানে ভালো মধু দিয়ে পরে ভেজাল মেশানো মধু রপ্তানির প্রবণতা থেকে বেরিয়ে আসতে হবে।

উপস্থিত মৌ গবেষকদের উদ্দেশ্যে কৃষিমন্ত্রী বলেন, এমন কোনো প্রযুক্তি উদ্ভাবন করা দরকার হবে যেন খুব সহজেই ভোক্তারা ভেজাল মধু নির্ধারণ করতে পারেন।

অনুষ্ঠানে মৌ চাষিরা সঠিক দাম নিশ্চিত, গবেষণা বৃদ্ধি, মৌ চাষের সুফলের তথ্য সরবরাহসহ বিভিন্ন দাবি তুলে ধরেন। এসময় বাংলাদেশ ক্ষুদ্র কুটির শিল্প সংস্থার (বিসিক) উদ্যোগে মৌ চাষের ওপর ভিডিওচিত্র উপস্থাপন করা হয় ।

প্রতিদিন সকাল ১০ টা থেকে সন্ধ্যা পর্যন্ত সবার জন্য খোলা থাকবে এই মেলা।

কৃষি মন্ত্রণালয়ের ভারপ্রাপ্ত সচিব আনোয়ার ফারুকের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠানে আরও বক্তব্য রাখেন, বাংলাদেশ অ্যাগ্রো প্রসেসরস অ্যাসোসিয়েশনের সভাপতি এ এফ এম ফকরুল ইসলাম মুন্সী, কৃষি মন্ত্রণালয়ের সংসদীয় স্থায়ী কমিটির সদস্য ও সংসদ সদস্য আব্দুল মান্নান, জাতীয় মৌ চাষ কল্যাণ সমিতির সাধারণ সম্পাদক মো. এবাদুল্লাহ আফজাল প্রমুখ।

অর্থসূচক/এসএমএস/এমএইচ

এই বিভাগের আরো সংবাদ