পাকিস্তান-ভারত মহারণ সন্ধ্যায়
today-news
brac-epl
প্রচ্ছদ » ক্রিকেট

পাকিস্তান-ভারত মহারণ সন্ধ্যায়

ভারত-পাকিস্তান ম্যাচ মানেই অন্যরকম উত্তেজনা। সেই উত্তেজনার পারদ ছড়িয়ে পড়ে গোটা ক্রিকেট বিশ্বে। এশিয়া কাপের বদৌলতে এক বছর ১১ দিন পর এই দুই চির প্রতিদ্বন্দ্বির ক্রিকেট দ্বৈরথ উপভোগ করার সুযোগ পাচ্ছেন ক্রিকেটপ্রেমিরা।

এশিয়া কাপে আজ শনিবার নিজেদের দ্বিতীয় ম্যাচে চিরশত্রু পাকিস্তানের মুখোমুখি হচ্ছে ভারত। মিরপুর শের-ই-বাংলা জাতীয় ক্রিকেট স্টেডিয়ামে ম্যাচটি শুরু হবে সন্ধ্যা সাড়ে ৭টায়। ছবি সংগৃহীত

এশিয়া কাপে আজ শনিবার নিজেদের দ্বিতীয় ম্যাচে চিরশত্রু পাকিস্তানের মুখোমুখি হচ্ছে ভারত। মিরপুর শের-ই-বাংলা জাতীয় ক্রিকেট স্টেডিয়ামে ম্যাচটি শুরু হবে সন্ধ্যা সাড়ে ৭টায়। ছবি সংগৃহীত

লড়াইটা মূলত পাকিস্তানের বোলিং বনাম ভারতের শক্তিশালী ব্যাটিং। ওয়াসিম-ওয়াকার-শোয়েবদের স্বর্ণালী যুগে পরীক্ষা দিয়ে গেছেন শচীন-সৌরভ-দ্রাবিড়রা। তাদের পরবর্তী যুগেও এর অবসান ঘটেনি। বর্তমানে আমির-ইরফান-ওয়াহাব রিয়াজদের চ্যালেঞ্জ হিসেবে নিচ্ছেন রোহিত-কোহলি-রায়নারা।

তাই পাকিস্তান-ভারত লড়াইয়ের সেই রোমাঞ্চকর উপাখ্যান দেখতে অধীর আগ্রহে অপেক্ষা করছেন বিশ্বের কোটি ক্রিকেটভক্ত।

এশিয়া কাপে আজ শনিবার নিজেদের দ্বিতীয় ম্যাচে চিরশত্রু পাকিস্তানের মুখোমুখি হচ্ছে ভারত। মিরপুর শের-ই-বাংলা জাতীয় ক্রিকেট স্টেডিয়ামে ম্যাচটি শুরু হবে সন্ধ্যা সাড়ে ৭টায়। সেটি সরাসরি সম্প্রচার করবে স্টার স্পোর্টস-১, গাজী টিভি ও বিটিভি।

পরিসংখ্যান বাদে টি-২০ সংস্করণে বর্তমানে ভারত দলের যে ফর্ম, তাতে যোজন যোজন পিছিয়ে  পাকিস্তান। ফলে  আজকের ম্যাচে মূলত এগিয়ে থাকছে টিম ইন্ডিয়া।

ম্যাচ শুরুর আগে ইতোমধ্যে দুই প্রতিবেশী রাষ্ট্র যেন যুদ্ধে অবতীর্ণ হয়েছে। অবশ্য ২২ গজের লড়াইয়ের পেছনে রয়েছে রাজনৈতিক প্রেক্ষাপটও।

অস্ট্রেলিয়া–নিউজিল্যান্ড বিশ্বকাপের পর গত ডিসেম্বরেই দু’দেশের মধ্যে দ্বিপাক্ষিক সিরিজ হওয়ার কথা ছিল। আর হলে দুই দেশের মহারণ দেখার জন্য আজ এশিয়া কাপের এ ম্যাচ পর্যন্ত অপেক্ষা করতে হতো না লাখো ক্রিকেটপ্রেমিদের।

কিন্তু দুই দেশের রাজনৈতিক টানাপোড়েনের মধ্যে তা আর সম্ভব হয়ে ওঠেনি। হয়তো দেশবাসীর অসীম প্রত্যাশার চাপ, নানাবিধ অঙ্কের জটিলতার কারণেই গতকাল শুক্রবার দুটি দলই পাশাপাশি নেট করেও, কেউ কারও সঙ্গে কথাই বলেনি।

অনুশীলন শুরুর আগে সংবাদ সম্মেলনেও উত্তাপ ছড়িয়েছে দুই দল। পাকিস্তানের অধিনায়ক শহীদ আফ্রিদি দু’দেশের রাজনৈতিক ব্যাপার-স্যাপার নিয়ে মুখ না খোলেই বুঝিয়ে দিয়েছেন, পাওয়ার প্লে’তে ভারতীয় ব্যাটিংকে কাঁপিয়ে দেওয়ার মতো রণসজ্জা তার তৈরি। পূর্ণ শক্তিতে তৈরি হচ্ছেন ওয়াহাব রিহাজ-ইরফান-আমিররা।

তিনি বলেন, খেলাধুলা সব সময় দু’দলের মধ্যে বন্ধুত্বপূর্ণ সম্পর্ক তৈরি করে। দু’দেশের সমর্থকরা এই ম্যাচের দিকে তাকিয়ে থাকবে। খেলাধুলার মধ্যে আমরা রাজনীতির রং লাগাতে চাই না।

শহীদ আফ্রিদি, শোয়েব মালিকের মতো পাকিস্তান দলে যেমন অভিজ্ঞ ক্রিকেটার রয়েছে, তেমনি মোহাম্মদ নওয়াজের মতো তরুণ ক্রিকেটারও রয়েছেন। শহীদ আফ্রিদি আন্তর্জাতিক ক্রিকেটে বিশ্বের সবচেয়ে অভিজ্ঞ ক্রিকেটার। তবে ভারতের বিপক্ষে পাকিস্তানের সাম্প্রতিক পরিসংখ্যান খুবই খারাপ। ২০০৭ সাল থেকে এখন পর্যন্ত ৬ বার মুখোমুখিতে মাত্র ১ বারই (৪-১) জয় পেয়েছে তারা।

অন্যদিকে, বড় আসরে পাকিস্তানের বিপক্ষে সব সময়ই ভয়ঙ্কর এক দল ভারত। বড় আসরে পাকিস্তানের বিপক্ষে যেন তারা হারতেই জানে না।

তবে এশিয়া কাপে দু’দলই সমানে সমান।  দু’দলই একে অপরের বিপক্ষে পাঁচটি করে ম্যাচ জিতেছে।

বাংলাদেশের বিপক্ষে কঠিন পরীক্ষা দেওয়ার পরও দারুণ জয় তুলে নিয়েছেন মাহেন্দ্র সিং ধোনির দল। মিরপুরের সবুজ উইকেটেও দুর্দান্ত ব্যাটিং করেছেন রোহিত শর্মা।

ভারত ৫ বার এশিয়া কাপের শিরোপা জিতলেও পাকিস্তান জিতেছে মাত্র ২ বার। তবে নিজেদের পেস বোলিং আক্রমণেই ভরসা পাকিস্তানের অধিনায়ক শহীদ আফ্রিদির। সদ্যই টি-২০ ফরম্যাটের পাকিস্তান সুপার লিগে (পিএসএল) খেলার অভিজ্ঞতা কাজে লাগিয়ে ব্যাটসম্যানরাও ভালো করবে বলে বিশ্বাস তার।

এখন দেখার বিষয়, ম্যাচ শেষে কে হাসেন। আফ্রিদি না ধোনি?

অর্থসূচক/ডিএইচ

এই বিভাগের আরো সংবাদ