মহাকাশ প্রযুক্তি উদ্ভাবনে এগিয়ে যাবে দেশ: বেসিস
today-news
brac-epl
প্রচ্ছদ » লিড নিউজ

মহাকাশ প্রযুক্তি উদ্ভাবনে এগিয়ে যাবে দেশ: বেসিস

বাংলাদেশিরাও মঙ্গলগ্রহ, চাঁদসহ মহাকাশে যেসব প্রযুক্তি ব্যবহার করা হয়, সেসব প্রযুক্তি উদ্ভাবনে এগিয়ে যাবে বলে মনে করেন বাংলাদেশ অ্যাসোসিয়েশন অব সফটওয়্যার অ্যান্ড ইনফরমেশন সার্ভিসেস (বেসিস) সভাপতি শামীম আহসান।

আজ সোমবার বেসিস মিলনায়তনে এক সংবাদ সম্মেলনে এ আশা ব্যক্ত করেন তিনি। যুক্তরাষ্ট্রের মহাকাশ গবেষণা সংস্থা নাসার ‘নাসা স্পেস অ্যাপস চ্যালেঞ্জ ২০১৬’ প্রতিযোগিতার আয়োজনের বিষয়ে বিস্তারিত জানাতে এই সংবাদ সম্মেলন করা হয়। বাংলাদেশে দ্বিতীয়বারের মতো এই হ্যাকাথন প্রতিযোগিতার আয়োজন করা হচ্ছে।

বেসিস সভাপতি ও এফবিসিসিআই পরিচালক শামীম আহসান জানান, ঢাকা, চট্টগ্রাম ও সিলেটে বড় পরিসরে আগামী ২২ থেকে ২৪ এপ্রিল এই প্রতিযোগিতার আয়োজন করা হচ্ছে। আঞ্চলিক পর্যায়ের বিজয়ীরা চূড়ান্ত প্রতিযোগিতায় অংশগ্রহণের সুযোগ পাবে। গতবারের মতো বাংলাদেশে এই প্রতিযোগিতার আয়োজক হিসেবে রয়েছে বেসিস।

তিনি আরও বলেন, দেশে দ্বিতীয়বারের মতো আন্তর্জাতিক এই প্রতিযোগিতা আয়োজন করতে পেরে আমরা আনন্দিত। এসব প্রতিযোগিতার মাধ্যমে বিজ্ঞান ও তথ্যপ্রযুক্তি সমস্যা সমাধানে উল্লেখযোগ্য ধারণা পাওয়া যাবে। সেইসঙ্গে নাসার মতো বড় বড় প্রতিষ্ঠানে বাংলাদেশিদের চাকরি ও অন্যান্য সংশ্লিষ্ঠতা বাড়বে। বাংলাদেশিরাও একদিন মঙ্গলগ্রহ, চাঁদসহ মহাকাশে যেসব প্রযুক্তি ব্যবহার করা হয়, সেসব প্রযুক্তি উদ্ভাবনে এগিয়ে যাবে।

প্রতিযোগিতার মাধ্যমে বিজ্ঞান ও তথ্যপ্রযুক্তি সমস্যা সমাধানে উল্লেখযোগ্য ধারণা পাওয়া যাবে। সেইসঙ্গে নাসার মতো বড় বড় প্রতিষ্ঠানে বাংলাদেশিদের চাকরি ও অন্যান্য সংশ্লিষ্ঠতা বাড়বে। বাংলাদেশিরাও একদিন মঙ্গলগ্রহ, চাঁদসহ মহাকাশে যেসব প্রযুক্তি ব্যবহার করা হয়, সেসব প্রযুক্তি উদ্ভাবনে এগিয়ে যাবে।

বেসিস পরিচালক ও নাসা স্পেস অ্যাপস চ্যালেঞ্জ ২০১৬ এর আহ্বায়ক আরিফুল হাসান অপু বলেন, এবার দেশের ৩টি বিভাগে বৃহৎ পরিসারে বুটক্যাম্পের আয়োজন করা হবে। সেখান থেকে ২টি করে মোট ৬টি টিম নাসার চূড়ান্ত প্রতিযোগিতায় অংশগ্রহণের সুযোগ পাবে। এছাড়া প্রতিযোগিতায় নির্বাচিত অংশগ্রহণকারীদের সার্টিফিকেট প্রদান করা হবে। এই প্রতিযোগিতা দেশব্যাপী ছড়িয়ে দিতে বেসিস স্টুডেন্টস ফোরাম ৬৪ জেলার ১০০টি শিক্ষা প্রতিষ্ঠানে সেমিনারের আয়োজন করবে। দেশের শীর্ষস্থানীয় মেন্টরদের মাধ্যমে প্রতিযোগিতায় অংশগ্রহণকারীদের মেন্টরিংসহ প্রয়োজনীয় সহযোগিতা করা হবে।

অনুষ্ঠানে আরও জানানো হয়, এবারের প্রতিযোগিতায় বিমানচালনাবিদ্যা, স্পেস স্টেশন, সোলার সিস্টেম, তথ্যপ্রযুক্তি, আর্থ ও মঙ্গলগ্রহে যাওয়ার বিষয়ে বিভিন্ন সমস্যার সমাধান করবেন প্রতিযোগিরা। একক বা দলবদ্ধভাবে নিবন্ধনের মাধ্যমে যে কেউ নাসার এই প্রতিযোগিতায় অংশ নিতে পারবেন। আগ্রহীরা http://studentsforum.basis.org.bd/ ওয়েবসাইট থেকে প্রতিযোগিতায় অংশগ্রহণের জন্য নিবন্ধন করতে পারবেন। আগামী ২০ মার্চের মধ্যে নিবন্ধন করতে হবে। http://spaceappschallenge.org ওয়েবসাইট থেকে প্রতিযোগিতা সম্পর্কে বিস্তারিত জানা যাবে।

বেসিস সভাপতি শামীম আহসানের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠানে আরও বক্তব্য রাখেন এলআইসিটি প্রকল্পের ডেপুটি প্রজেক্ট ডিরেক্টর তারিক বরকতুল্লা, নাসা ক্যাম্প অ্যাম্বেসেডর প্রতিষ্ঠাতা ও প্রধান নির্বাহী কর্মকর্তা আফরোজ আর মামুন, ইন্ডিপেনডেন্ট ইউনিভার্সিটি অব বাংলাদেশের সহযোগী অধ্যাপক আশরাফুল আমিন, বাগডুম ডটকমের প্রধান পরিচালন কর্মকর্তা মনোয়ার হোসেন খান, পিবাজার ডটকমের প্রতিষ্ঠাতা ও প্রধান নির্বাহী কর্মকর্তা মোহাম্মদ শাহীন।

এবারের প্রতিযোগিতার সহযোগিতায় রয়েছে বেসিস স্টুডেন্টস ফোরাম ও ক্লাউডক্যাম্প বাংলাদেশ। পৃষ্ঠপোষকতা করছে বাগডুম ডটকম ও পিবাজার ডটকম। এছাড়া অ্যাকাডেমিক পার্টনার হিসেবে থাকছে রাজশাহী ইউনিভার্সিটি, ইন্ডিপেনডেন্ট ইউনিভার্সিটি অব বাংলাদেশ ও চট্টগ্রাম ইন্ডিপেনডেন্ট ইউনিভার্সিটি।

অর্থসূচক/এমই/

এই বিভাগের আরো সংবাদ