হ্যাকারদের কবলে কবির সুমন!
today-news
brac-epl
প্রচ্ছদ » টেক

হ্যাকারদের কবলে কবির সুমন!

এপার বা ওপার, দুই বাংলায়ই যেকোনো অন্যায়ের প্রতিবাদে প্রথম কলম ধরেন তিনি। না, তিনি সাংবাদিক নন। তবু তার কাজটা কলমের। সেই সঙ্গে কাজে লাগান নিজের গিটারটাকেও। বলছিলাম কবির সুমনের কথা।

কবির সুমনের ফেসবুক প্রোফাইল

কবির সুমনের ফেসবুক প্রোফাইল

দুই বাংলায় সমান জনপ্রিয় এই সংগীতশিল্পী। ইরশাদ জাহান বা ফেলানী হত্যাকাণ্ড। উভয় ইস্যুতেই প্রথম প্রতিবাদ জানিয়েছিলেন তিনি। শাহবাগের গণজাগরণ মঞ্চ এবং মানবতাবিরোধী অপরাধীদের সাজার দাবিতে মোমবাতি প্রজ্জ্বলন নিয়েও লিখেছেন সুমন। এভাবে সীমান্তের দুই ধারে বার বার সুরের আলোক শিখা হয়েছেন তিনি।

সঙ্গীতশিল্পী ও সুরকার কবির সুমনের অন্য পরিচয় তিনি একজন রাজনীতিবিদ। পশ্চিমবঙ্গের পার্লামেন্টে তৃণমূল কংগ্রেসের নির্বাচিত সংসদ সদস্যও ছিলেন তিনি। সংসদেও জনসাধারণের পক্ষে কথা বলতে কখনও কখনও নিজ দলের রোষানলেও পড়েছিলেন তিনি।

অবশেষে হ্যাকারদের কবলেও পড়লেন কবির সুমন। প্রায় ২৪ ঘণ্টা ধরে হ্যাকারদের কবলে ছিল তার ফেসবুক অ্যাকাউন্ট।

ভারতের আনন্দবাজার পত্রিকার খবরে জানা যায়, জওহরলাল নেহরু বিশ্ববিদ্যালয়ে (জেএনইউ) ছাত্র আন্দোলনের পক্ষে গান লিখে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম ফেসবুকে নিজের ওয়ালে পোস্ট করেছিলেন এই শিল্পী। এরপরই ব্লক করে দেওয়া হয় তার অ্যাকাউন্ট। চালু করার পর ওই গানটিসহ তার প্রোফাইলের সাম্প্রতিক কিছু পোস্ট মুছে ফেলা হয়।

জেএনইউ-এর ছাত্র আন্দোলন আর আফাজল গুরুর পক্ষে কথা বলাতে কেন্দ্রীয় সরকারই এই শিল্পীর ফেসবুক অ্যাকাউন্ট হ্যাক করেছে- এমন অভিযোগ করছেন সুমনের ভক্ত ও ঘনিষ্ঠজনেরা।

সুমনের ফেসবুক প্রোফাইল ব্লকের খবরের পরই বিভিন্ন মহলে তীব্র সমালোচনা শুরু হয়। সুমনের অনুরাগীরা সামাজিক যোগাযোগের মাধ্যম ফেসবুকে সমালোচনা ও প্রতিবাদের ঝড় তোলে।

অবশ্য হ্যাক করার ২৪ ঘণ্টা পার হওয়ার আগেই খুলে দেওয়া হয় সুমনের অ্যাকাউন্ট।

অর্থসূচক/এমএইচ/এমই

এই বিভাগের আরো সংবাদ