এটিএম বুথে চুরি ঠেকাতে একগুচ্ছ নির্দেশনা কেন্দ্রীয় ব্যাংকের
today-news
brac-epl
প্রচ্ছদ » ব্যাংক-বিমা

এটিএম বুথে চুরি ঠেকাতে একগুচ্ছ নির্দেশনা কেন্দ্রীয় ব্যাংকের

এটিএম কার্ড জালিয়াতির মাধ্যমে বুথ থেকে টাকা চুরি ঠেকাতে সব তফসিলী ব্যাংককে একগুচ্ছ নির্দেশনা দিয়েছে বাংলাদেশ ব্যাংক। এসব নির্দেশনার মধ্য অন্যতম হচ্ছে- বুথে অ্যান্টি স্কিমিং মেশিন স্থাপন, স্বচ্ছ গ্লাস ব্যবহার, পাসওয়ার্ড নিরাপত্তা বৃদ্ধি, ফ্রন্ট ক্যামেরার মাধ্যমে অ্যালার্মের ব্যবস্থা ইত্যাদি।

Bangladesh_bank

বাংলাদেশ ব্যাংক। ফাইল ছবি

দেশের সব বাণিজ্যিক ব্যাংকের কার্ড ডিভিশনের প্রধানদের সঙ্গে এক জরুরি বৈঠকে এ নির্দেশনা দেয় কেন্দ্রীয় ব্যাংক।

এটিএম লেনদেন নিরাপদ এবং বিদ্যমান ঝুঁকি মোকাবেলায় করণীয় ঠিক করতে আজ বুধবার  বাংলাদেশ ব্যাংকের প্রধান কার্যালয়ে এ বৈঠক অনুষ্ঠিত হয়। এতে নেতৃত্ব দেন বাংলাদেশ ব্যাংকের নির্বাহী পরিচালক ও মুখপাত্র শুভঙ্কর সাহা।

বৈঠক সূত্র জানায়, বাংলাদেশ ব্যাংকের নির্দেশনার মধ্যে রয়েছে চুরি ঠেকাতে সব এটিএম বুথে দ্রুত অ্যান্টি স্কিমিং ডিভাইস বসাতে হবে। বাহির থেকে গ্রাহকের ট্রানজেকশন কার্যক্রম বোঝা যায় সে জন্য বুথে স্বচ্ছ গ্লাস ব্যবহার করা যেতে পারে। এটিএম বুথের পিন প্যাডে পাসওয়ার্ড দেওয়ার সময় যাতে দেখা না যায় সে জন্য হাত ঢেকে দেওয়ার ব্যবস্থা করা। সব গ্রাহকের জন্য লেনদেনে এসএমএস অ্যালার্ট সার্ভিস চালু রাখা। গ্রাহকদের জন্য এই অ্যালার্ট চার্জমুক্ত করার ব্যবস্থা করা। ফ্রন্ট ক্যামেরা বন্ধ করলে যাতে সঙ্গে সঙ্গে সয়ংক্রিয় অ্যালার্ট চালু হয় সে ব্যবস্থা করা।

নির্দেশনায় আরও বলা হয়েছে, গ্রাহকদের মাঝে সচেতনামূলক কার্যক্রম বাড়ানোর পাশাপাশি সংশ্লিষ্ট কর্মকর্তাদের আরও বেশি সচেতন ও প্রযুক্তিগত ধারণা থাকতে হবে। এটিএম বুথের গার্ডদের আরও বেশি প্রশিক্ষিত করে তুলতে হতে হবে।

বৈঠকে কেন্দ্রীয় ব্যাংকের নির্দেশনা পালনে জোর দেওয়ার পাশাপাশি ব্যাংকগুলোর কাছ থেকেও মতামত নেওয়া হয়েছে।

বৈঠক শেষে শুভঙ্কর সাহা সাংবাদিকদের বলেন, বর্তমানে দেশে সাড়ে সাত হাজার এটিএম বুথ রয়েছে। যেগুলোর সঙ্গে যুক্ত রয়েছে ৯০ লাখ কার্ডধারী। এ বিপুল সংখ্যক গ্রাহকদের নিরাপত্তা নিশ্চিত করতে বাংলাদেশ ব্যাংক সব সময় তৎপর রয়েছে।

তিনি বলেন, কেন্দ্রীয় ব্যাংকের নির্দেশে সংশ্লিষ্ট ব্যাংকগুলো তড়িৎ ব্যবস্থা নেওয়ায় বাংলাদেশের ব্যাংকিং ব্যবস্থা একটি বড় ধরনের ক্ষতির হাত থেকে রক্ষা পেয়েছে।

এদিকে টাকা চুরি যাওয়া ব্যাংকগুলো আগামী এক সপ্তাহের মধ্যে ক্ষতিগ্রস্ত গ্রাহকদের অর্থ ফেরত দেবে বলে নিশ্চিত করেন তিনি।

অর্থসূচক/শাফায়াত/শাহীন

এই বিভাগের আরো সংবাদ