লাল কার্ডের জবাবে গুলি!
today-news
brac-epl
প্রচ্ছদ » খেলাধুলা

লাল কার্ডের জবাবে গুলি!

সারা বছর ফুটবল নিয়ে মেতে থাকে দক্ষিণ আমেরিকার দেশ আর্জেন্টিনা। দেশটির প্রায় সব মাঠেই প্রতিদিন ফুটবল খেলার আসর বসে। আন্তর্জাতিক, জাতীয়, লিগ একং স্থানীয় পর্যায়ের ফুটবল ম্যাচের আয়োজন দেশটিতে নতুন কিছু নয়।

ফুটবল মানেই গোলের খেলা। ফাউল, কর্নার, লাল কার্ড, হলুদ কার্ড, পেনাল্টিসহ নানা বিষয়ের সঙ্গে খুব ভালোভাবেই পরিচিত এই খেলার খেলোয়াড় এবং দর্শকরা।

আর ফুটবলের দেশ আর্জেন্টিনাসহ বিশ্বের প্রতিটি ফুটবল ম্যাচে হলুদ কার্ডের দেখা মেলে। কখনও কখনও খেলার মাঠে নিয়ম বহির্ভুত খেলা ও আচরণের জন্য লাল কার্ডও দেখেন খেলোয়াড়রা। এ তেমন নতুন কিছু নয়।

Red Card Killed Referee

আর্জেন্টিনার স্থানীয় পর্যায়ের একটি ফুটবল ম্যাচে লাল কার্ড দেখানোর পর রেফারিকে গুলি করে হত্যা করে এক খেলোয়াড়।

তবে সম্প্রতি এক নতুন কাণ্ড ঘটল আর্জেন্টিনার ফুটবল মাঠে। খেলোয়াড়ের গুলিতে মৃত্যু হলো এক রেফারির। করদোবার ঘরোয়া ফুটবলে ঘটেছে এমন ঘটনা।

স্থানীয় দুটি দলের মধ্যকার ম্যাচে রেফারির দায়িত্ব পালন করছিলেন সিজার ফ্লোরেস। খেলার সময় প্রতিপক্ষের খেলোয়াড়কে নিয়ম বহির্ভূত বাধা দেওয়ায় ওই ম্যাচের একজন খেলোয়াড়কে লাল কার্ড দেখান তিনি। লাল কার্ড দেখে খুব স্বাভাবিক ভঙ্গিতে মাঠ ছাড়েন সেই খেলোয়াড়।

লাল কার্ড দেখা খেলোয়াড় মাঠের বাইরে যাওয়ার পর আবারও খেলা শুরুর ইঙ্গিত করেন রেফারি সিজার ফ্লোরেস। খেলা শুরুর মাত্র ৩ মিনিটের মাথায় আবারও মাঠে প্রবেশ করেন লাল কার্ড দেখা সেই খেলোয়াড়া। আর কোনো ধরনের দ্বিধা বা সংকোচ ছাড়াই গুলি তাক করেন রেফারির দিকে। রেফারিকে নিশানা করে ৩টি গুলি চালান তিনি। সিজার ফ্লোরেসের বুকে, মাথায় ও ঘাড়ে লাগে ওই খেলোয়াড়ের গুলি। সবুজ মাঠ তখন রক্তাক্ত। এরপরই দ্রুত পালিয়ে যান তিনি। তার গুলিতে ওই ম্যাচের অপর এক খেলোয়াড় আহত হয়েছেন।

গুলিবিদ্ধ রেফারি ও খেলোয়াড়কে দ্রুত হাসপাতালে নেওয়া হয়। তবে ততক্ষণে পরপারে চলে গেছেন রেফারি সিজার ফ্লোরেস। আর আহত খেলোয়াড়ের চিকিৎসা চলছে। কর্তব্যরত চিকিৎসক জানিয়েছেন, রেফারির মৃত্যু হলেও গুলিবিদ্ধ খেলোয়াড় এখন আশঙ্কামুক্ত।

পুলিশ জানিয়েছে, খেলার মাঠে কি করে বন্দুক নিয়ে প্রবেশ করেছিল? ওই অস্ত্র কার?- এসব বিষয়ে তদন্ত চলছে। এর জন্য দায়ী খেলোয়াড় এখনও পলাতক রয়েছেন।

অর্থসূচক/এমই/

এই বিভাগের আরো সংবাদ