শেষ হাসি আর নাচ ক্যারিবীয়দের
today-news
brac-epl
প্রচ্ছদ » ক্রিকেট
অনূর্ধ্ব ১৯ বিশ্বকাপ

শেষ হাসি আর নাচ ক্যারিবীয়দের

অনূর্ধ্ব ১৯ বিশ্বকাপের সেমি ফাইনালে বাংলাদেশকে হারিয়ে ওয়েস্ট ইন্ডিজের উদযাপন ছিল দেখার মতো। তারই পুণরাবৃত্তি হলো টুর্নামেন্টের ফাইনালেও। ভারত যুবদলের বিপক্ষে ৫ উইকেটে জয় পেয়েছে ওয়েস্ট ইন্ডিজ যুবরা। আর মিরপুর শের-ই-বাংলা জাতীয় ক্রিকেট স্টেডিয়ামকে স্মরণীয় করে রাখলো তারা। সেইসঙ্গে বাংলাদেশিদের মনে তাদের অবস্থান ধরে রাখতে নাচের মহড়াও দেখিয়ে দিল ক্যারিবীয় যুবরা। টুর্নামেন্টের বিভিন্ন সময়ে বিশ্ববাসীকে বার বার জানান দিল ক্রিস গেইলের অনুসারী তারা।

আজ রোববার অনূর্ধ্ব ১৯ বিশ্বকাপের ফাইনালের টসটিও জিতে নিয়েছিল ওয়েস্ট ইন্ডিজ। এ যেন জয়েরই পূর্ব লক্ষণ। এরপর ভারতকেই ব্যাটিংয়ে আমন্ত্রণ জানান ক্যারিবীয় অধিনায়ক সিমরন হেটমায়ার।

ক্যারিবীয় অধিনায়কের আমন্ত্রণে ব্যাট হাতে মাঠে নামলেও শুরু থেকে নিরস ছিলেন ভারতের অধিনায়ক ইশান কিশান। ধারাবাহিক বিরতিতে উইকেট হারাতে থাকে ভারত। ইনিংসের প্রথম ওভারেই দলীয় ৩ রানে প্যাভিলিয়নে ফিরেন উদ্বোধনী ব্যাটসম্যান রিসাভ পান্থ (১)। ২.১ ওভারে দলীয় ৮ রানে সাজঘরে ফেরেন আনমলপ্রীত সিং (৩)। বেশিক্ষণ ক্রিজে থাকতে পারেননি অধিনায়কও। ৬.১ ওভারে দলীয় ২৭ রানে আউট হন কিশান (৪)। ১৪.৫ ওভারে দলীয় ৪১ রানে সাজঘরে ফেরেন ওয়াশিংটন সুন্দর (৭)। ১৭.২ ওভারে দলীয় ৫০ রানে আউট হন আরমান জাফর (৫)। ২৯.১ ওভারে দলীয় ৮৭ রানে ষষ্ঠ উইকেট হারায় ভারত। প্যাভিলিয়নে ফেরেন মহিপল লমরর (১৯)।

West Indies

অনূর্ধ্ব ১৯ বিশ্বকাপের ফাইনালে ভারতীয় ব্যাটসম্যান আরমান জাফরকে আউট করার পর ক্যারিবীয়দের উল্লাস।

ইনিংসের ৩৬.২ ওভারে দলীয় ১১৬ রানে সাজঘরে ফেরেন ডগর (৮)। একদিকে উইকেট পতন হলেও অন্যদিকে ধীরে ধীরে অর্ধশতক করেন ভারতের পঞ্চম ব্যাটসম্যান হিসেবে ক্রিজে নামা সরফরাজ খান। অবশেষে ৩৮.১ ওভারে দলীয় ১২০ রানে আউট হন সরফরাজ (৫১)। ৪০তম ওভারে সাজঘরে ফেরেন আভেশ খান (১)। ৪৫.১ ওভারে রাহুল ব্যাথাম (২১) আউট হলে ১৪৫ রানে থামে ভারতের ব্যাটিং ইনিংস।

ওয়েস্ট ইন্ডিজের পক্ষে আলজারি জোসেফ ও রায়ান জন ৩টি করে; ক্যামু পল ২টি এবং চ্যামার হোল্ডার ও স্যামার স্প্রিঙ্গার একটি করে উইকেট নেন।

ভারতের দেওয়া ১৪৬ রানের টার্গেটে ব্যাট করতে ব্যাট করতে নেমে শুরুটা ভালো হয়নি ক্যারিবীয়দের। নিয়মিত বিরতিতে উইকেট হারায় তারাও। তবে এরই মাঝে ২টি মাঝারি মানের জুটি জয়ের বন্দরে পৌঁছায় ওয়েস্ট ইন্ডিজকে।

ইনিংসের তৃতীয় ওভারে দলীয় ৫ রানে সাজঘরে ফেরেন উদ্বোধনী ব্যাটসম্যান জিদরন পপ (৩)। ৭.৩ ওভারে দলীয় ২৮ রানে আউট হন অপর উদ্বোধনী ব্যাটসম্যান তেভিন ইলমাচ (১৫)। ২৩তম ওভারে প্যাভিলিয়নে ফিরেন অধিনায়ক হেটমায়ার (২৩)। ২৬.১ ওভারে দলীয় ৭১ রানে আউট হন স্প্রিঙ্গার (৩)। ২৯তম ওভারে দলীয় ৭৭ রানে সাজঘরে ফেরেন জিড গলি (৩)। এরপর ৬৯ রান নিতে ১২৩ বল খরচ করে দুই অপরাজিত ব্যাটসম্যান ক্যাসি কার্টি ও ক্যামু পল। এর মধ্যে অনেকটা নিয়ন্ত্রণে নিয়েও চ্যাম্পিয়ন হতে পারল না ভারত।

ইনিংসের ৪৯.৩ ওভারে জয় নিশ্চিত করে ওয়েস্ট ইন্ডিজ। কার্টি ৫২ রান এবং পল ৪০ রানে অপরাজিত থাকেন। ১২৫ বলে ৫২ রান নিয়ে প্লেয়ার অব দ্য ম্যাচ নির্বাচিত হয়েছেন কার্টি।

ভারতের পক্ষে সর্বোচ্চ ৩ উইকেট নেন ডগর। এছাড়া আভেশ খান এবং খলিল আহমেদ একটি করে উইকেট নেন।

অর্থসূচক/এমই/

এই বিভাগের আরো সংবাদ