ইউসেপ কর্তাব্যক্তিদের বিরুদ্ধে দুর্নীতির অভিযোগ
today-news
brac-epl
প্রচ্ছদ » শিক্ষা

ইউসেপ কর্তাব্যক্তিদের বিরুদ্ধে দুর্নীতির অভিযোগ

চ্যারিটি শিক্ষা প্রতিষ্ঠান ইউসেপ বাংলাদেশের অবৈধভাবে পরিচালক নিয়োগ, শিক্ষার্থীর শিক্ষা উপকরণ প্রদান ও শিক্ষার্থীদের যাতায়ত সুবিধা বন্ধসহ বর্তমান বোর্ড অব গভর্নরের বিরুদ্ধে নানা অনিয়ম ও দুর্নীতির অভিযোগ উঠেছে।

ইউসেপ বাংলাদেশের লোগো। ছবি সংগৃহীত

ইউসেপ বাংলাদেশের লোগো। ছবি সংগৃহীত

গতকাল সকাল ১১টায় জাতীয় প্রেসক্লাব হলরুমে এক সংবাদ সম্মেলনে ইউসেপ-এর শিক্ষক-কর্মচারীরা এ অভিযোগ করেন।

সংবাদ সম্মেলনে বক্তারা বলেন, ১৯৭২ সালে প্রতিষ্ঠা লাভের পর থেকে দেশের ৭টি বিভাগীয় শহরে ৫৩টি সাধারণ ও ১০টি কারিগরি বিদ্যালয়ে দেশের সুবিধাবঞ্চিত ও কর্মজীবী শিশুদের জন্য সুনামের সঙ্গে প্রতিষ্ঠানটি শিক্ষা কার্যক্রম চালিয়ে আসছে। কিন্তু ২০১৩ সালের অক্টোবর মাসে ইউসেপ-এর বোর্ড অব গভর্নর নিয়ম না মেনে বর্তমান পরিচালক জাকী হাসানকে ৬ লাখ টাকা বেতন-ভাতা সুবিধা দিয়ে নির্বাহী পরিচালক পদে নিয়োগ দেয় ইউসেপ।  আগের পরিচালক ব্রিগেডিয়ার জেনারেল (অব.) আফতাব উদ্দিন আহমেদের চাকরির মেয়াদ থাকা সত্ত্বেও তাকে এ পদে নিয়োগ দেওয়া হয়।

বক্তারা অভিযোগ করেন, এর আগে ২০১১ সাল থেকে ইউসেপ বোর্ড অব গভর্নর ছিল অবৈধ। কেননা নিয়ম অনুযায়ী সমাজসেবা অধিদপ্তর থেকে ৩টি বোর্ডের অনুমোদন না নিয়ে ইউসেপ বাংলাদেশ পরিচালিত হয়ে আসছে। বিদেশি প্রতিষ্ঠানের আর্থিক অনুদানে ইউসেপ শিক্ষার্থীদের জন্য বিনামূল্যে পাঠ্যবই, বিভিন্ন শিক্ষা উপকরণ ও যাতায়াত সুবিধাসহ নানা ধরনের সহযোগিতা করলেও বর্তমানে তা বন্ধ করে দেওয়া হয়েছে।

এছাড়াও ২০১৫ সালে হঠাৎ করে যৌক্তিক কারণ ছাড়াই ৩ শতাধিক শিক্ষক-কর্মচারী ছাঁটাই করে এই অবৈধ পরিচালনা পর্ষদ।

বোর্ডের চেয়ারম্যান মতিন চৌধুরীর সহযোগিতায় নির্বাহী পরিচালক জাকী হাসান নানা অনিয়ম করে পার পেয়ে যাচ্ছেন বলেও অভিযোগ করেন ভুক্তভোগী শিক্ষক-কর্মচারীরা।

এই বিভাগের আরো সংবাদ