পদ্মা সেতুতে প্রথম দিনেই চলবে বাস-ট্রেন
today-news
brac-epl
প্রচ্ছদ » জাতীয়

পদ্মা সেতুতে প্রথম দিনেই চলবে বাস-ট্রেন

পদ্মা সেতু চালু হওয়ার প্রথম দিন থেকেই সড়কে বাসের মত পরিবহনের পাশাপাশি ট্রেন চলাচল করবে বলে জানিয়েছেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। বুধবার জাতীয় সংসদে এক প্রশ্নের জবাবে তিনি এ কথা বলেন।

প্রধানমন্ত্রী জানান, ২০১৮ সালে পদ্মা সেতু যানবাহন চলাচলের জন্য খুলে দেওয়া হবে। এতে দক্ষিণাঞ্চলের সঙ্গে রাজধানীসহ দেশের অন্য অঞ্চলের সরাসরি সড়ক যোগাযোগের পথ খুলবে।

তিনি আরও বলেন, পদ্মা সেতু চালু হওয়ার প্রথম দিন থেকেই সড়ক পরিবহনের পাশাপাশি রেল চলাচল করবে। ফরিদপুর- ভাঙ্গা হয়ে বরিশাল পর্যন্ত রেললাইন নির্মাণে পদক্ষেপ নেওয়া হয়েছে।

পদ্মা সেতুর কারণে অন্য উন্নয়ন কাজ ব্যাহত হবে না জানিয়ে তিনি বলেন, অর্থনীতির অগ্রগতির ধারায় বাংলাদেশ এখন বড় প্রকল্প হাতে নেওয়ার সক্ষমতা অর্জন করেছে। আমরা এখন বড় বড় প্রকল্প নিজস্ব অর্থায়নে বাস্তবায়নের সক্ষমতা অর্জন করেছি।”

নিজ নিজ নির্বাচনী এলাকার উন্নয়ন প্রকল্পগুলোর কাজ ঠিকভাবে হচ্ছে কি না, তা খতিয়ে দেখতে সংসদ সদস্যদের পরামর্শ দিয়েছেন শেখ হাসিনা।

তিনি বলেন, এসব কাজ দেশের জনগণের টাকায় বাস্তবায়ন হচ্ছে। পাই পাই করে হিসেব করে দেখবেন, এসব টাকা ঠিকভাবে খরচ হচ্ছে কি না। তাহলেই দেশের উন্নয়ন অগ্রযাত্রা প্রত্যাশা অনুযায়ী এগিয়ে যাবে।”

প্রধানমন্ত্রী বলেন, পদ্মা সেতু প্রকল্পের পুরো অর্থই দেশের মানুষের অর্জিত অর্থ। এতে কারও আর্থিক সহায়তা নেই। প্রকল্পের প্রতিটি রড, ইট, পাথর, সিমেন্ট জনগণের টাকায় কেনা।

এই প্রকল্পে বিশ্ব ব্যাংকের অর্থায়নে এগিয়ে আসা, দুর্নীতির ষড়যন্ত্রের অভিযোগ, তা নিয়ে টানাপড়েনের পর ‘জনগণের স্বার্থে’ তাদের ঋণ না নেওয়ার সিদ্ধান্তের যৌক্তিকতাও তুলে ধরেন তিনি।

আরেক প্রশ্নের ভবিষ্যতে বাংলাদেশের সব মহাসড়কই চার লেইনে উন্নীত করার পরিকল্পনা রয়েছে উল্লেখ করে শেখ হাসিনা বলেন, ইতোমধ্যে ঢাকা-চট্টগ্রাম সড়ক চার লেইনে উন্নীত করার কাজ শেষ হয়েছে। এরপর ছয় লেইন করা হবে। ঢাকা-ময়মনসিংহ মহাসড়ক চার লেইন হয়ে গেছে। ঢাকা-সিলেট মহাসড়ক একেবারে তামাবিল পর্যন্ত চার লেইন করার উদ্যোগ নেওয়া হয়েছে। ভবিষ্যতে দরকার হলে ঢাকা-বরিশাল পথেও চার লেইন হবে।

এই বিভাগের আরো সংবাদ