বাংলাদেশের লক্ষ্য ১৮৮
today-news
brac-epl
প্রচ্ছদ » ক্রিকেট

বাংলাদেশের লক্ষ্য ১৮৮

ওয়ালটন টি-২০ সিরিজের তৃতীয় ম্যাচে বাংলাদেশকে ১৮৮ রানের লক্ষ্য দিয়েছে জিম্বাবুয়ে। নির্ধারিত ২০ ওভারে ৬ উইকেট হারিয়ে ১৮৭ রান সংগ্রহ করেছে সফরকারীরা। ম্যালকম ওয়ালারের ৪৯, ভুসি সিবান্দার ৪৪ ও শন উইলিয়ামসের ৩২ রানের ওপর ভর করে এ রান সংগ্রহ করে মাসাকাদজা শিবির।

Hamilton Masakadza

আউট হয়ে প্যাভিলিয়নে ফিরছেন হামিল্টন মাসাকাদজা। ছবি সংগৃহীত

এর আগে আজ বুধবার খুলনার শেখ আবু নাসের স্টেডিয়ামে টসে জিতে প্রথমে ব্যাট করার সিদ্ধান্ত নেন জিম্বাবুয়ের অনিয়মিত অধিনায়ক হ্যামিল্টন মাসাকাদজা। দুপুর আড়াইটায় টস হওয়ার কথা থাকলেও হালকা বৃষ্টির কারণে তা ১৫ মিনিট পরে হয়। তবে নির্ধারিত সময় বিকেল ৩টায় খেলা আরম্ভ হয়।

অধিনায়কের টসে জিতে প্রথমে ব্যাট নেওয়ার সিদ্ধান্ত যৌক্তিক করে তোলেন সফরকারীদের দুই উদ্বোধনী ব্যাটসম্যান হ্যামিল্টন মাসাকাদজা ও ভুসি সিবান্দা। ম্যাচের শুরু থেকেই স্বাগতিক দলের বোলারদের ওপর চড়াও হয়ে ব্যাট চালাতে থাকেন তারা। তাদের কল্যাণে মাত্র  ৩.৫ ওভারে ১১ রানের ওপর গড়ে ৪৫ রান তুলে ফেলে জিম্বাবুয়ে। এর পরই কাঙ্খিত ব্রেক থ্রোটি আনেন ডানহাতি পেসার মোহাম্মদ শহীদ। ইনিংসের ৪র্থ ওভারের শেষ বলে মোসাদ্দেক হোসেনের হাতে ক্যাচ বানিয়ে শুরুতেই আক্রমনাত্মক হয়ে ওঠা মাসাকাদজাকে (২০) সাজঘরে ফিরে যেতে বাধ্য করেন তিনি। তারপরও রানের চাকা সচল থাকে সফরকারীদের।

৭ম ওভার শেষে মাঠে বৃষ্টি আঘাত হানলে খেলা সাময়িকভাবে বন্ধ ঘোষণা করেন দুই আম্পায়ার। এর ২২ মিনিট পর আবার খেলা শুরু হয়। তবে কোনও ওভার কাটা হয়নি। তারপর ৮.২ ওভারে বিশ্বসেরা অলরাউন্ডার সাকিব আল হাসানের বলে সাব্বির রহমানের হাতে ক্যাচ দিয়ে সাজঘরে ফেরেন জিম্বাবুয়ের ব্যাটসম্যান মুতুম্বামি (২০)।

১০.৫ ওভারে জিম্বাবুয়ে শিবিরে আবার আঘাত হানেন সেই সাকিব। এবারও তার বলে জিম্বাবুয়ের হার্ডহিটার ব্যাটসম্যান ভুসি সিবান্দার (৪৪) ক্যাচটি লুফে নেন বাংলাদেশের সেরা ফিল্ডার সাব্বির রহমান।

১৭.৫ ওভারে আবারও সাকিবের বলে সৌম্য সরকারের হাতে ক্যাচ দিয়ে সাজঘরে ফেরেন ঝড়ো ইনিংস খেলা ম্যালকম ওয়ালার (৪৯)।  মাত্র ২৩ বলে ২ চার আর ৪ ছক্কায় এ ইনিংস সাজান তিনি।

১৯.১ ওভারে আবু হায়দার রনির বলে এলবিডব্লিউ হয়ে সাজঘরে ফেরেন টর্নেডো ইনিংস খেলা শন উইলিয়ামস (৩২)। একই ওভারে ৫ম বলে সাব্বির রহমানের হাতে ক্যাচ দিয়ে সাজঘরে ফেরেন সিকান্দার রাজা (৭)।  শেষ পর্যন্ত ৬ উইকেট হারিয়ে ১৮৭ রানে থামে সফরকারীদের ইনিংস।

বাংলাদেশের হয়ে সাকিব ৩টি, রনি ২টি ও শহীদ নেন ১টি করে উইকেট।

এ ম্যাচে বাংলাদেশের হয়ে অভিষেক ঘটেছে মোট চারজনের। এরা হলেন- বিপিএলের আবিষ্কার বামহাতি পেসার আবু হায়দায় রনি, ব্যাটসম্যান মোসাদ্দেক হোসেন, অলরাউন্ডার মুক্তার আলি ও  ডানহাতি পেসার মোহাম্মদ শহীদ। একাদশে ফিরেছেন ইমরুল কায়েস।

সিরিজের প্রথম ও দ্বিতীয় ম্যাচে প্রত্যাশিত জয় তুলে নেয় মাশরাফি বাহিনী। তৃতীয় ম্যাচে সিরিজ নিশ্চিত করতে এ ম্যাচেও জয়ের বিকল্প দেখছেন না স্বাগতিকরা। সঠিক পথে পরীক্ষা-নিরীক্ষা করে সিরিজ নিশ্চিত করাই এখন টাইগারদের সঙ্গে কোটি ক্রিকেটপ্রেমীদের প্রত্যাশা।

বাংলাদেশ দল: মাশরাফি বিন মুর্তজা (অধিনায়ক), ইমরুল কায়েস, সৌম্য সরকার, সাব্বির রহমান, সাকিব আল হাসান, নুরুল হাসান,  মাহমুদুল্লাহ রিয়াদ, আবু হায়দায় রনি, মোসাদ্দেক হোসেন, মুক্তার আলি ও মোহাম্মদ শহীদ।

জিম্বাবুয়ে দল: হ্যামিল্টন মাসাকাদজা, ভুসি সিবান্দা, সিকান্দার রাজা, ম্যালকম ওয়ালার, রিচমন্ড মুতুম্বামি, ব্রায়ান ভেটরি, পিটার মুর, শন উইলিয়ামস, গ্রেম ক্রেমার, টেন্ডার চিশরো ও মুজারব্বানি।

এই বিভাগের আরো সংবাদ