‘প্লাস্টিক শিল্পের রপ্তানি আয় ১০০ কোটি ডলারে উন্নীত সম্ভব’
today-news
brac-epl
প্রচ্ছদ » লিড নিউজ

‘প্লাস্টিক শিল্পের রপ্তানি আয় ১০০ কোটি ডলারে উন্নীত সম্ভব’

শিল্পমন্ত্রী আমির হোসেন আমু বলেছেন, প্লাস্টিক শিল্প বাংলাদেশের অর্থনীতিতে একটি বিকাশমান খাত হিসেবে আত্মপ্রকাশ করেছে। আগামী ২০২১ সালের মধ্যে এ শিল্প খাতের রপ্তানি আয় ১০০ কোটি ডলারে উন্নীত করা সম্ভব।

রাজধানীর বঙ্গবন্ধু আন্তর্জাতিক সম্মেলন কেন্দ্রে চার দিনের আন্তর্জাতিক প্লাস্টিক মেলার উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথির বক্তব্যে তিনি এ কথা বলেন। বাংলাদেশ প্লাস্টিক গুডস ম্যানুফ্যাকচারার্স অ্যান্ড এক্সপোর্টার্স অ্যাসোসিয়েশন (বিপিজিএমইএ) মেলাটির আয়োজন করেছে। মেলা চলবে আগামী ২৩ জানুয়ারি শনিবার পর্যন্ত।

প্লাস্টিক মেলার উদ্বোধন করেন শিল্পমন্ত্রী আমির হোসেন আমু। ছবি মহুবার।

প্লাস্টিক মেলার উদ্বোধন করেন শিল্পমন্ত্রী আমির হোসেন আমু। ছবি মহুবার।

মন্ত্রী বলেন, ক্রমবর্ধমান চাহিদার যোগান দিতে দেশে আন্তর্জাতিক মানের শিল্প কারখানা গড়ে উঠছে। বর্তমানে ছোট-বড় মিলিয়ে প্রায় ৫ হাজার প্লাস্টিক খারখানা আছে। ফলে দেশের চাহিদা মিটিয়ে বর্তমানে বাংলাদেশ থেকে প্রতি বছর প্রায় ৩ হাজার ৭০০ কোটি টাকার প্লাস্টিক পণ্য রপ্তানি করা হচ্ছে।

কাঠের বিকল্প হিসেবে প্লাস্টিক পণ্যের ব্যবহার দেশে-বিদেশে ক্রমেই জনপ্রিয় হয়ে উঠেছে জানিয়ে তিনি আরও বলেন, দেশের উদীয়মান শিল্পখাত হিসেবে সরকার প্লাস্টিক শিল্পের উন্নয়নে শুরু থেকেই বিভিন্ন সহায়তা দিয়ে আসছে। ২০১৬ সালের জাতীয় শিল্পনীতিতে এ খাতকে সরকারের অগ্রাধিকার তালিকায় রাখা হবে।

দেশে বর্তমানে প্লাস্টিক পণ্যের ব্যবহার শতকরা ২০ ভাগ বেড়েছে জানিয়ে আমু বলেন, এখন দেশের ভিতরে প্রায় ১৮ হাজার কোটি টাকার প্লাস্টিক পণ্য উৎপাদন ও বিপনন হচ্ছে। ফলে এ খাত থেকে সরকার প্রায় ২ হাজার কোটি টাকার রাজস্ব পাচ্ছে।

এবারের মেলায় ২২টি দেশ অংশ নিয়েছে।এতে ৩৫০টি মত স্টল রয়েছে। মেলায় মেশিনারিজ, মোল্ড, কাঁচামাল উৎপাদনকারী ও সরবরাহকারী প্রতিষ্ঠানসহ দেশে ব্যবহৃত বিভিন্ন ধরনের প্লাস্টিক পণ্য উৎপাদনকারী প্রতিষ্ঠানগুলো অংশগ্রহণ করবে।

এছাড়া মেলায় বিশেষ আয়োজন হিসেবে থাকছে বিভিন্ন সেমিনার ও কনফারেন্স। প্লাস্টিক পণ্য প্রদর্শনের পাশাপাশি আন্তর্জাতিক মানের গবেষকেরা এসব সেমিনারে বক্তব্য দেবেন।

অন্যদের মধ্যে উপস্থিত ছিলেন বিপিজিএমইএর সভাপতি মো.জসিম উদ্দিন, সাবেক সভাপতি ফেরদৌস ওয়াহেদ, শাহেদুল ইসলাম হেলাল, খাজা আনোয়ারুল হক, পরিচালক শাহজাহান, আবুল খায়ের প্রমুখ।

অর্থসূচক/শাফায়াত/শাহীন

এই বিভাগের আরো সংবাদ