সাগর তলে কীসের আতঙ্ক!
today-news
brac-epl
প্রচ্ছদ » টুকিটাকি

সাগর তলে কীসের আতঙ্ক!

জলের তলায় বোট কিংবা জাহাজের ইঞ্জিন ইত্যাদির আওয়াজে দিকনির্ণয় ক্ষমতা হারিয়ে ফেলছে তিমিরা। ফলে মৃত্যু হচ্ছে অনেক অনেক তিমির। বিশ্বের কয়েকটি দেশের সমুদ্র সৈকত ও দ্বীপগুলোতে প্রায়ই একসাথে ভেসে ওঠতে দেখা যায় তাদের।

১৯৭৩ সালে তামিলনাড়ু রাজ্যের টিউটিকরিন জেলার সমুদ্রসৈকতে ১২০টি তিমি ভেসে উঠেছিল। আবারও সেই ঘটনার পুনরাবৃত্তি হয়েছে।

গত সোমবার রাতে ভারতের তামিলনাড়ু রাজ্যের টিউটিকরিন জেলার সমুদ্রসৈকতে ৮০টি শর্ট ফিন্ড পাইলট তিমি মাছ ভেসে ওঠে।

সমুদ্রসৈকতে ২৫ কিলোমিটার এলাকা জুড়ে দেখা গিয়েছিল তিমি মাছ ভেসে ওঠার দৃশ্যটি। অনৈক প্রচেষ্টা চালানোর পর বাচাঁনো গেছে ৩৫টি তিমি বাকি ৪৫টি তিমিকে বাঁচানো যায়নি।

আবার গত বুধবার নেদারল্যান্ডসের টেক্সেল দ্বীপে পাঁচটি স্পার্ম হোয়েল ভেসে উঠেছিল, তাদের একটিকেও বাঁচানো যায়নি।

তিরুচেন্দুর সমুদ্রতটের ভিডিওতে দেখা গেছে, মাইলের পর মাইল ধরে বালিতে মুখ গুঁজে পড়ে আছে মরা তিমি। মানুষজন ভিড় করে দেখছেন ভেসে ওঠা মরা তিমির এ মর্মান্তিক দৃশ্য।

ভিডিওতে আরও দেখা গেছে, এক জেলে একটি তিমিকে ঠেলে আবার সাগরে ফেরানোর চেষ্টা করছেন, কিন্তু তিমি যেন কিছুতেই সাগরে যেতে চাচ্ছেনা। তিমিটি বার বার আবার তীরে ফিরে আসছে।

বিশেষজ্ঞরা জানান, সাগর তলের কোনো কিছুর আতঙ্কে তিমিগুলো ডাঙার দিকে আসছে। তাদের মতে সেটা জলের তলায় বোট কিংবা জাহাজের ইঞ্জিনের শব্দের কারণেই।

 

এই বিভাগের আরো সংবাদ