ট্রেনের নিচে পড়েও বাঁচলেন নারী
today-news
brac-epl
প্রচ্ছদ » টুকিটাকি

ট্রেনের নিচে পড়েও বাঁচলেন নারী

রেললাইন ধরে হাঁটছিলেন ৪৫ বছরের এক নারী। তিনি স্টেশনের প্লাটফর্মের দিকে আসছিলেন। হঠাৎ করেই পড়ে গেলেন তিনি। পা আটকে গেছে স্লিপারে। কিছুতেই ওঠতে পারছেন না। সাহায্যের জন্য লোকজনকে ডাকতে মাথা তুলতেই ভয়ে তার চোয়াল ঝুলে পড়লো।

ছবি সংগৃহীত

ছবি সংগৃহীত

ওমা, একি, ট্রেন! তার দিকেই যে ছুটে আসছে দৈত্যাকারের মালবাহী ট্রেনটি। লোকজন আসার আগেই তো তিনি এর চাকার নিচে থেঁতলে যাবেন। এখন কি করা? ভয় পেলেও বুদ্ধি হারালেন না। ওপুর হয়ে পড়ে থাকলেন দুই লাইনের মাঝের জায়গায়। মনে মনে ভগবানকে ডাকছেন। একসময় ট্রেন চলে গেল। লোকজন ছুটে আসল নিহত নারীর মৃতদেহ উদ্ধারের জন্য। কাছে এসে তারা তো থ! ওই নারী মরেননি, দিব্যি বেঁচে আছেন।

৫৬ বগি বিশিষ্ট ট্রেনের তলায় পরেও কিভাবে বাঁচলেন ওই নারী তা ভেবে পায় না তারা। এ প্রসঙ্গে প্রত্যক্ষদর্শী রাম সিনহা বলেন,‘কয়েক সেকেন্ডের মধ্যে গোটা ব্যাপারটি ঘটে গেল। তিনি ট্রেন ধরার জন্যই প্লাটফর্মের উল্টো দিক থেকে আসছিলেন। এ সময় তিনি পড়ে যান। আমরা তার সাহায্যের জন্য যাওয়ার আগেই মালগাড়িটি ছুটে আসে এবং তার ওপর দিয়ে চলে যায়।’

এমন কি ওই মালগাড়ির চালক আর গার্ডও ভেবেছিলেন ওই নারী মারা গেছেন। কিন্তু ট্রেনের চাকার তলে পড়েও দিব্যি সুস্থ আছেন ওই নারী। কেবল নাকে সামান্য আঘাত পেয়েছেন। পড়ে যাওয়ার কারণেই নাকি তিনি ওই আঘাত পেয়েছিলেন।

রোববার স্থানীয় সময় সকাল ৯টা নাগাদ ভারতের পশ্চিমবঙ্গ রাজ্যের পুরুলিয়া স্টেশনের অদূরে তেলকলপাড়া রক্ষীবিহীন লেভেলক্রসিংয়ের এই ঘটনা ঘটে। তবে প্রত্যক্ষদর্শী এক যুবকের ভিডিও রেকর্ডিংয়ের মাধ্যমে সোমবারে এই অবিশ্বাস্য ঘটনা প্রকাশ্যে আসে। ওই সাহসী নারীর নাম হিমানী মাঝি। তার বাড়ি ঝাড়খণ্ড রাজ্যে।

গুরুজনেরা যে বলেন বিপদে বুদ্ধি হারাতে নেই, তা কি এমনি এমনি। এজন্যই সাহস আর উপস্থিত বুদ্ধি এই যুগল গুণের অসাধারণ দৃষ্টান্ত হয়ে থাকলেন ভারতের এই নারী।

এই বিভাগের আরো সংবাদ