কমেছে সুদহার ও ঋণ প্রবৃদ্ধি
today-news
brac-epl
প্রচ্ছদ » ব্যাংক-বিমা
মুদ্রানীতি

কমেছে সুদহার ও ঋণ প্রবৃদ্ধি

চলতি ২০১৫-১৬ অর্থবছরের দ্বিতীয়ার্ধে (জানুয়ারি-জুন) নীতি সুদহার ও ঋণ প্রবৃদ্ধির প্রাক্কলন উভয়ই কমিয়েছে বাংলাদেশ ব্যাংক।

আজ বৃহস্পতিবার অর্থবছরের দ্বিতীয়ার্ধের জন্য মুদ্রানীতি ঘোষণাকালে গভর্নর ড. আতিউর রহমান এ কথা জানান।

Atiur_Monetary Policy_1

আজ বৃহস্পতিবার বাংলাদেশ ব্যাংক কার্যালয়ে চলতি অর্থবছরের দ্বিতীয় মুদ্রানীতি ঘোষণা গভর্নর আতিউর রহমান। ছবি মহুবার রহমান

তিনি বলেন, উৎপাদন ও মূল্য পরিস্থিতির সঙ্গে সঙ্গতি রেখে এবার কেন্দ্রীয় ব্যাংক সংযত কিন্তু সমর্থনমূলক মুদ্রানীতি গ্রহণ করছে। এবার নীতি সুদহার ও ঋণ প্রবৃদ্ধির প্রাক্কলন উভয়ই কমানো হয়েছে। এর মধ্যে রেপো ও রিভার্স রেপো ৫০ পয়েন্ট কমিয়ে ৬ দশমিক ৭৫ ও ৪ দশমিক ৭৫ নির্ধারণ করা হয়েছে। বেসরকারি খাতে ঋণ প্রবৃদ্ধি ১৫ শতাংশের বদলে ১৪ দশমিক ৮ প্রাক্কলন করা হয়েছে। ব্যাপক মুদ্রা সরবরাহের প্রবৃদ্ধি নির্ধারণ করা হয়েছে ১৫ শতাংশ।

এই কমতি নীতি সুদহার, যথাযথ ঋণ যোগান ও ব্যাপক মুদ্রার সরবরাহ মূল্যস্ফীতি নিয়ন্ত্রণে বিঘ্ন ঘটাবে না। একইসঙ্গে কাঙ্খিত প্রবৃদ্ধি অর্জনে সহায়ক হবে বলে জানিয়েছেন ড. আতিউর রহমান।

তিনি আরও বলেন, চলতি ২০১৫-১৬ অর্থবছরের জন্য ৬ দশমিক ৮ থেকে ৬ দশমিক ৯ শতাংশ প্রবৃদ্ধি লক্ষ্যমাত্রা প্রাক্কলন করেছে বাংলাদেশ ব্যাংক। রাজনৈতিক স্থিতিশীলতা অব্যাহত থাকলে সরকার নির্ধারিত ৭ শতাংশ প্রবৃদ্ধি অর্জিত হতে পারে বলে মনে করছে কেন্দ্রীয় ব্যাংক।

প্রসঙ্গত, গত ৩০ জুলাই চলতি অর্থবছরের প্রথমার্ধের (জুলাই-ডিসেম্বর) মুদ্রানীতি ঘোষণা করা হয়। এতে বেসরকারি খাতে যোগান বাড়িয়ে উৎপাদন বৃদ্ধির মাধ্যমে মূল্যস্ফীতি নিয়ন্ত্রণে রাখার সতর্ক পদক্ষেপ গ্রহণ করা হয়। এতে প্রথমার্ধের জন্য বেসরকারি খাতে ১৪ দশমিক ৩০ শতাংশ ও দ্বিতীয়ার্ধের জন্য ১৫ শতাংশ ঋণ প্রবৃদ্ধির লক্ষ্যমাত্রা প্রাক্কলন করা হয়েছিল। তবে রেপো ও রিভার্স রেপো হার অপরিবর্তিত রাখা হয়েছিল।

অর্থসূচক/এসবি/এসএমএস/এসএম/

এই বিভাগের আরো সংবাদ