ভালো আয়ের লক্ষ্য নিয়ে আইটিসি’র যাত্রা শুরু
today-news
brac-epl
প্রচ্ছদ » খাত/কোম্পানি পর্যালোচনা

ভালো আয়ের লক্ষ্য নিয়ে আইটিসি’র যাত্রা শুরু

নির্ধারিত সময়ে বিল আদায় না করতে পারার কারণে প্রথম প্রান্তিকে শেয়ার প্রতি আয় কমেছে। তবে বছর শেষে কোম্পানির আয় ভালো অবস্থানে থাকবে বলে মনে করেন আইটি কনসালটেন্টস লিমিটেডের ব্যবস্থাপনা পরিচালক কাজী সাইফুদ্দিন মনির।ITC2

রোববার সকালে লেনদেন শুরু হওয়ার আগে ডিএসই ও কোম্পানির সঙ্গে চুক্তি স্বাক্ষর অনুষ্ঠানে এ কথা বলেন তিনি।

কাজী সাইফুদ্দিন মনির বলেন, কোম্পানির বেশির ভাগ ব্যবসা হয়ে থাকে ব্যাংকগুলোর সঙ্গে। তাই কাজের বিলগুলোও ব্যাংকের সঙ্গে সম্পর্কিত থাকে। ব্যাংক প্রসিডিউর মেনে বিল পেতে সময় লেগে যায়। তাই এবার প্রথম প্রান্তিকে শেয়ার প্রতি আয় কমেছে।

তবে বছর শেষে আমরা ইতিবাচক ফল পাব বলে আশা করছি।

তিনি মনে করেন, বাংলাদেশে আইটি খাতের সম্ভাবনা অনেক বেশি। আর এই সম্ভাবনাকে তারা কাজে লাগাতে চান।

এছাড়া পুঁজিবাজার থেকে উত্তোলিত অর্থ দিয়ে ব্যবসা সম্প্রসারণ হলে কোম্পানির আয় অনেক বাড়বে বলে মনে করেন তিনি।

চুক্তি সই অনুষ্ঠানে উপস্থিত ছিলেন- ইনফরমেশন টেকনোলজি কনসালটেন্টস লিমিটেডের (আইটিসি) ম্যানেজিং ডিরেক্টর ও সিইও ড. কাজী সাইফুদ্দীন মনির, ডিএসইর সহকারি মহাব্যবস্থাপক মো. শফিকুল ইসলাম ভূঁইয়া (লিস্টিং অ্যাফেয়ার্স),  ডিএসই’র ম্যানেজিং ডিরেক্টর প্রফেসর ড. স্বপন কুমার বালা (এফসিএমএ), ডিএসই’র চিফ রেগুলেটরি অফিসার এ. কে. এম জিয়াউল হাসান খান (এফসিএ), আইটিসির ভাইস চেয়ারম্যান সালাহউদ্দীন আলমগীর, ডিএসইর চিফ ফিন্যান্সিয়াল অফিসার আব্দুল মতিন পাটোয়ারি (এফসিএমএ), ইউকাসের ম্যানেজিং ডিরেক্টর মাহবুব এইচ মজুমদার (এফসিএমএ), আইটিসির হেড অব ফিন্যান্স এন্ড একাউন্টস শ্যামল কান্তি কর্মকার এবং আইটিসির কোম্পানি সেক্রেটারি এম.এইচ শাইখ।

এর আগে গত ৭ জানুয়ারি কোম্পানিটি তাদের প্রথম প্রান্তিকের প্রতিবেদন প্রকাশ করে।

প্রতিবেদন অনুযায়ী,  হিসাব বছরের প্রথম প্রান্তিকে (জুলাই-সেপ্টেম্বর ১৫) ৪১ লাখ ৪০ হাজার টাকা নিট লোকসান দিয়েছে। শেয়ার প্রতি লোকসান হয়েছে দশমিক ০৬ পয়সা। অবশ্য আগের বছরও একই প্রান্তিকে কোম্পানিটি লোকসান দিয়েছিল। সে বছর লোকসান ছিল ৩ কোটি ১১ লাখ ৫০ হাজার টাকা। শেয়ার প্রতি লোকসান ছিল ৪২ পয়সা।

জানা গেছে, আজ ডিএসইতে “এন” ক্যাটাগরিতে লেনদেন শুরু করে কোম্পানিটি। ঢাকা স্টক এক্সচেঞ্জে (ডিএসই) ইনফরমেশন টেকনোলজি কনসালটেন্টস লিমিটেডের (আইটিসি) ট্রেডিং কোড  “ITC”।  আর ডিএসইতে কোম্পানি কোড – 22648।

এর আগে  গত ৩ জানুয়ারি আইটিসির আইপিওর লটারিতে পাওয়া শেয়ার বিনিয়োগকারীদের বিও হিসাবে জমা হয়েছে।ITC

গত ৩ ডিসেম্বর ২০১৫ কোম্পানিটির লটারির ড্র অনুষ্ঠিত হয়।

জানা গেছে, ইনফরমেশন টেকনোলজি কনসালটেন্টস লিমিটেডের (আইটিসি) আইপিওতে মোট ৬৭ দশমিক ২৬ গুণ আবেদন জমা পড়েছে।

এর আগে কোম্পানিটি প্রাথমিক গণপ্রস্তাবের (আইপিও) আবেদন গ্রহণ শুরু করে গত ২ নভেম্বর। চলে ১১ নভেম্বর পর্যন্ত। দেশি ও প্রবাসী উভয় শ্রেণির বিনিয়োগকারীর জন্য এই সময় প্রযোজ্য ছিল।

এছাড়া গত ২২ সেপ্টেম্বর মঙ্গলবার পুঁজিবাজার নিয়ন্ত্রক সংস্থা বাংলাদেশ সিকিউরিটিজ অ্যান্ড এক্সচেঞ্জ কমিশনের (বিএসইসি) ৫৫৪তম সভায় কোম্পানিটির প্রাথমিক গণপ্রস্তাব (আইপিও) অনুমোদন দেওয়া হয়।

জানা গেছে, অভিহিত মূল্য ১০ টাকা দরে বাজারে ১ কোটি ২০ লাখ শেয়ার ছাড়ে আইটিসি। আর এর মাধ্যমে সংগ্রহ করবে ১২ কোটি টাকা।

২০১৪ সালের ৩০ জুন শেষ হওয়া হিসাব বছরের নিরীক্ষিত আর্থিক প্রতিবেদন অনুযায়ী ইনফরমেশন টেকনোলজি কনসালটেন্টস লিমিটেডের শেয়ার প্রতি আয় (ইপিএস) হয়েছে ১ টাকা ০৪ পয়সা। আর শেয়ার প্রতি সম্পদ মূল্য (এনএভি) হয়েছে ১৮ টাকা ২৮ পয়সা।

জানা গেছে, কোম্পানিটি পুঁজিবাজার থেকে টাকা সংগ্রহ করে ব্যবসা সম্প্রসারণ, ব্যাংক ঋণ পরিশোধ এবং আইপিওর কাজে ব্যয় করবে।

উল্লেখ্য, কোম্পানিটির ইস্যু ব্যবস্থাপনার দায়িত্বে রয়েছে বেটাওয়ান ইনভেস্টমেন্ট।

অর্থসূচক/এসইউএম/ এআরএস/

এই বিভাগের আরো সংবাদ