২০১৬ হবে বিনিয়োগ-প্রবৃদ্ধির বছর: গভর্নর
today-news
brac-epl
প্রচ্ছদ » ব্যাংক-বিমা

২০১৬ হবে বিনিয়োগ-প্রবৃদ্ধির বছর: গভর্নর

বাংলাদেশ ব্যাংকের গভর্নর ড. আতিউর রহমান বলেছেন, ব্যাংকিং খাতে যদি প্রয়োজনীয় পরিবর্তন আনা যায়, তাহলে ২০১৬ সাল হবে বিনিয়োগ ও প্রবৃদ্ধির বছর।

মঙ্গলবার কেন্দ্রীয় ব্যাংকে সব তফসিলি ব্যাংকের প্রধান নির্বাহীদের নিয়ে আয়োজিত ব্যাংকার্স সভায় তিনি এ কথা বলেন।

গভর্নর আরও বলেন, বর্তমানে অর্থনীতিতে যে গতি এসেছে তাকে আরও বেগবান করতে পারলে দেশের ২০০ বিলিয়ন ডলারের অর্থনীতিকে ২০২৫ সালের মধ্যে ৫০০ বিলিয়ন ডলারে উন্নীত করা সম্ভব হবে। তবে এজন্য আমাদের সদা সক্রিয় থাকতে হবে।

শুধু ধনবানদের সুযোগ দিলে চলবে না। সমাজের সুবিধাবঞ্চিতদের জন্যও বাড়তি বিনিয়োগের সুযোগ করে দিতে হবে।

তিনি বলেন, ২০১৫ সালের শুরুর ৩ মাস রাজনৈতিক পরিস্থিতি প্রতিকূলে থাকা সত্ত্বেও কেন্দ্রীয় ব্যাংকের সময়োচিত নীতি ও পদক্ষেপের কারণে দেশের আর্থিক খাত সন্তোষজনক অবস্থায় ছিল। বিদায়ী বছরেই দেশ নিম্ন আয়ের দেশ থেকে নিম্ন মধ্যম আয়ের দেশের প্রবেশ করে।

সভায় উপস্থিত ব্যাংকারদের উদ্দেশে গভর্নর বলেন, বলতে দ্বিধা নেই, ব্যাংকগুলোর সুশাসনে আপনাদের (ব্যাংকার) আরও সক্রিয় হতে হবে। অভ্যন্তরীণ নিয়ন্ত্রণ শক্তিশালী করার পাশাপাশি ঝুঁকি ব্যবস্থাপনায় মনোযোগী হতে হবে। এজন্য ব্যাংকের পরিচালন ব্যয় ও খেলাপি ঋণের পরিমাণ কমাতে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা গ্রহণ জরুরি।

atiur

এ পর্যায়ে এসে ব্যাংকিং খাতকে আরও বেশি দক্ষ ও উদ্ভাবনীমূলক করাই হবে বড় চ্যালেঞ্জ।তবে এ চ্যালেঞ্জ গ্রহণ করবার জন্য বাংলাদেশ ব্যাংক প্রস্তুত রয়েছে।

উৎপাদনশীল খাতে বিনিয়োগের ক্ষেত্রে ব্যাংকগুলোকে সব মানুষের কথা মনে রাখতে হবে উল্লেখ করে তিনি আরও বলেন, শুধু ধনবানদের সুযোগ দিলে চলবে না। সমাজের সুবিধাবঞ্চিতদের জন্যও বাড়তি বিনিয়োগের সুযোগ করে দিতে হবে।

অর্থসূচক/শাফায়াত/শাহীন

এই বিভাগের আরো সংবাদ