'তাদের জন্মদিনে মরছে আমার ছেলে'
today-news
brac-epl
প্রচ্ছদ » জাতীয়

‘তাদের জন্মদিনে মরছে আমার ছেলে’

সোমবার সকালে হঠাৎ অসুস্থ হয় বাড্ডার বাসিন্দা মো. হাসেমের ছেলে। ছেলেকে ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে নিয়ে যেতে সকালেই বাসা থেকে বের হয়েছিলেন তিনি। ঠিক সময়ে বাসার সামনে গাড়িও পেয়েছিলেন হাশেম।

Hashem

অসুস্থ ছেলেকে নিয়ে ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের দিকে দৌড়াচ্ছেন বাড্ডার বাসিন্দা মো. হাসেম। ছবি: মহুবার রহমান

সড়কে অনেক যানজট থাকায় বেশ কিছুক্ষণ পর ছেলেকে নিয়ে মগবাজার পর্যন্ত পৌঁছুতে পেরেছিলেন মো. হাশেম ও তার স্ত্রী। সেখান থেকে গাড়ি আর নড়ে না। যানজট শেষ হওয়ার অপেক্ষায় দীর্ঘ সময় পর্যন্ত মগবাজার মোড়ে গাড়িতে বসে থাকলেন তারা। ঘণ্টার বেশি সময় গড়িয়ে গেলেও সেখান থেকে একবিন্দুও সামনে এগুলো না গাড়ির চাকা। এদিকে ছেলের অবস্থা ক্রমান্বয়ে অবনতির দিকে এগুচ্ছে।

অবশেষে গাড়ি থেকে নেমে ছেলেকে কোলে তুলে নিয়ে মগবাজার থেকে হাটা শুরু করলেন হাশেম ও তার স্ত্রী। সেখান থেকে পরিবাগ-শাহবাগ হয়ে ঢাকা মেডিকেলের দিকে দৌড়াচ্ছিলেন তারা। দুপুর দেড়টার দিকে শাহবাগ এলাকায় পৌঁছার পর তাদের সঙ্গে কথা বলেন অর্থসূচকের ক্যামেরাপার্সন মহুবার রহমান। সকাল থেকে যন্ত্রণার মধ্য দিয়ে পার করা সময়ের বর্ণনা করলেন হাশেম।

আদ্রকণ্ঠে তিনি বলেন, আমাদের দেখার কেউ নেই। গরীবদের জন্য এখানে কেউ কাদে না। তাদের জন্মদিনে মরছে আমার ছেলে।

Hashem2

মালিবাগ থেকে ছেলেকে নিয়ে অনেক দৌড়ার পর স্ত্রীর কাছে ছেলেকে দিয়েছেন মো. হাসেম। ছবি: মহুবার রহমান

আজ ৪ জানুয়ারি। বাংলাদেশ আওয়ামী ছাত্রলীগের ৬৮তম প্রতিষ্ঠাবাষির্কী। এ উপলক্ষে রাজধানীসহ সারাদেশে আজ আনন্দ র‌্যালি ও সমাবেশ করছে সংগঠনটি। আর ছাত্রলীগের এই কর্মসূচির কারণে সকাল থেকে যানজটে নাকাল রাজধানীবাসী। ভোগান্তি পোহাচ্ছে শিক্ষার্থী-কর্মজীবীসহ সবাই। প্রায় সবারই গন্তব্যে পৌঁছাতে অনেক বেশি সময় ব্যয় হয়েছে।

অর্থসূচক/ইমাদ

এই বিভাগের আরো সংবাদ