সিএসআর খাতে অনুদান বাড়াল কেন্দ্রীয় ব্যাংক
today-news
brac-epl
প্রচ্ছদ » লিড নিউজ

সিএসআর খাতে অনুদান বাড়াল কেন্দ্রীয় ব্যাংক

বাংলাদেশ ব্যাংকের দুর্যোগ ব্যবস্থাপনা ও সামাজিক দায়বদ্ধতা তহবিলের বার্ষিক অনুদানের পরিমাণ ৫ কোটি টাকা থেকে বাড়িয়ে চলতি বছরে ১০ কোটি টাকায় উন্নীত করেছে কেন্দ্রীয় ব্যাংক।

সামাজিক দায়বদ্ধতামূলক (সিএসআর) খাতে অবদান রাখতে ব্যাংকের পরিচালন মুনাফা থেকে অনুদান হিসেবে অর্থ নিয়ে এ তহবিল পরিচালনা করা হয়। এর মাধ্যমে সিএসআর খাতে বাংলাদেশ ব্যাংকের অংশগ্রহণ আরেক ধাপ বাড়ল।

বৃহস্পতিবার কেন্দ্রীয় ব্যাংকের জাহাঙ্গীর আলম কনফারেন্স হলে এক অনুষ্ঠানে এ তথ্য জানান গভর্নর ড. আতিউর রহমান।

৩ কোটি ৫ লাখ ৮৯ হাজার টাকার বিপরীতে ১ম কিস্তি হিসেবে ২ কোটি ৩৫ লক্ষ ৮৯ হাজার টাকার চেক প্রদান করা হয়।

অনুষ্ঠানে বাংলাদেশ ব্যাংকের সিএসআর তহবিল থেকে নতুন কিছু প্রকল্পে অর্থ ছাড়করণ বিষয়ে ১৪টি প্রতিষ্ঠানের সঙ্গে সমঝোতা স্মারক সই হয়। এসময় প্রতিষ্ঠানগুলোকে প্রতিশ্রুত ৩ কোটি ৫ লাখ ৮৯ হাজার টাকার বিপরীতে ১ম কিস্তি হিসেবে ২ কোটি ৩৫ লক্ষ ৮৯ হাজার টাকার চেক প্রদান করা হয়।

আর্থিক অন্তর্ভূক্তি, আর্থ-সামাজিক উন্নয়ন, পরিবেশ সংরক্ষণ, শিক্ষা ও স্বাস্থ্য, সামাজিক কল্যাণ, মানবসম্পদের দক্ষতা বাড়ানোসহ এ ধরনের বিভিন্ন খাতে কার্যক্রম পরিচালনা করে- এ বিবেচনায় উক্ত প্রতিষ্ঠানগুলোর সঙ্গে সমঝোতা স্মারক সই ও চেক হস্তান্তর করে বাংলাদেশ ব্যাংক।

এর মধ্যে ই-এডুকেশন নিয়ে কার্যক্রম পরিচালনাকারী ব্যাকবোন ফাউন্ডেশনকে ৩০ লাখ টাকা, চরাঞ্চলে নারীদের পরিবেশ বান্ধব প্রশিক্ষণ দিতে উত্তরা ডেভেলপমেন্ট প্রোগ্রাম সোসাইটিকে ১৬ লাখ ৫ হাজার টাকার চেক দেওয়া হয়। এছাড়া ভূমিকম্প ও অন্যান্য দুর্যোগ মোকাবেলায় ১ হাজার দক্ষ স্বেচ্ছাসেবী গড়ে তুলতে অতীশ দীপঙ্কর গবেষণা পরিষদকে ১০ লাখ ও ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের স্যার পি. জে. হার্টস ইন্টারন্যাশনাল হলের লিফট তৈরিতে দেওয়া হয় ২৮ লাখ টাকা।

প্রধান অতিথির বক্তব্যে গভর্নর বলেন, বর্তমান প্রেক্ষাপটে সামাজিক দায়বদ্ধতামূলক কার্যক্রমের মাধ্যমে দেশের টেকসই উন্নয়নে কাজ করতে কেন্দ্রীয় ব্যাংক দায়বদ্ধ। এই তাগিদ থেকেই সিএসআর তহবিলের পরিমাণ বাড়ানো হয়েছে।

তিনি বলেন, বাংলাদেশ ব্যাংকের আহ্বানে সাড়া দিয়ে দেশের সরকারি-বেসরকারি বাণিজ্যিক ব্যাংকগুলোও তাদের সহযোগিতার হাত বাড়িয়েছে। ফলে শুরুতে ব্যাংকিং খাতে থেকে সিএসআর বাবদ অর্থ বিতরণের পরিমাণ ৫০ কোটি থাকলেও বর্তমানে সেটি বেড়ে ৫০০ কোটি টাকায় দাঁড়িয়েছে। এছাড়া শিক্ষা খাতের উন্নয়নে বাংলাদেশ ব্যাংকের সিএসআর নীতিমালায় ৩ ভাগের ১ ভাগ অর্থ ব্যয়ের জন্য ব্যাংকগুলোকে নির্দেশনা দেওয়া হয়েছে।

অর্থসূচক/শাফায়াত/শাহীন

এই বিভাগের আরো সংবাদ