প্রাথমিকে ৯৮.৫২% এবং জেএসসিতে ৯২.৩৩% পাস
today-news
brac-epl
প্রচ্ছদ » শিক্ষা

প্রাথমিকে ৯৮.৫২% এবং জেএসসিতে ৯২.৩৩% পাস

২০১৫ সালের প্রাথমিক ও ইবতেদায়ী সমাপনীতে ৯৮ দশমিক ৫২ শতাংশ এবং জেএসসি-জেডিসিতে ৯২ দশমিক ৩৩ শতাংশ শিক্ষার্থী পাস করেছে।

আজ বৃহস্পতিবার সকালে সাড়ে ১০টার দিকে গণভবনে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার কাছে ফলাফল হস্তান্তরের সময় পাসের হার জানান প্রাথমিক ও গণশিক্ষামন্ত্রী এবং শিক্ষামন্ত্রী। ফলাফল হস্তান্তরের পর ১৬ জন শিক্ষার্থীর হাতে নতুন শ্রেণির বই তুলে দেন প্রধানমন্ত্রী।

সচিবালয়ে আজ দুপুর সাড়ে ১২টায় প্রাথমিক ও গণশিক্ষা মন্ত্রী মোস্তাফিজুর রহমান ফিজার এবং দুপুর দেড়টায় শিক্ষামন্ত্রী নুরুল ইসলাম নাহিদ সংবাদ সম্মেলন করে ফলাফলের বিভিন্ন দিক তুলে ধরেন।

প্রাথমিক শিক্ষা সমাপনী পরীক্ষায় গড় পাসের হার ৯৮ দশমিক ৫২ শতাংশ। এ পরীক্ষায় জিপিএ-৫ পেয়েছে দুই লাখ ৭৫ হাজার ৯৮০ জন।

প্রাথমিক শিক্ষা সমাপনী পরীক্ষায় মোট পরীক্ষার্থী ছিল ২৮ লাখ ৩৯ হাজার ২৩৮ জন। এদের মধ্যে উত্তীর্ণ হয়েছে ২৭ লাখ ৯৭ হাজার ২৭৪ জন। এদের মধ্যে ১২ লাখ ৭৭ হাজার ১৪৬ জন ছাত্র এবং ১৫ লাখ ২০ হাজার ১২৮ ছাত্রী।

সমমানের ইবতেদায়ী শিক্ষা সমাপনী পরীক্ষায় গড় পাসের হার ৯৫ দশমিক ১৩ শতাংশ। এ পরীক্ষায় জিপিএ-৫ পেয়েছে ৫ হাজার ৪৭৬ জন। এ পরীক্ষায় মোট ২ লাখ ৬৪ হাজার ১৩৪ পরীক্ষার্থীর মধ্যে পাস করেছে ২ লাখ ৫১ হাজার ২৬৬ জন। পাস করা পরীক্ষার্থীদের মধ্যে ১ লাখ ২৮ হাজার ৪২৫ জন ছাত্র ও ১ লাখ ২২ হাজার ৮৪১ জন ছাত্রী।

অষ্টম শ্রেণির জুনিয়র স্কুল সার্টিফিকেট (জেএসসি) ও জুনিয়র দাখিল সার্টিফিকেট (জেডিসি) পরীক্ষায় এবার পাস করেছে ৯২ দশমিক ৩৩ শতাংশ শিক্ষার্থী। জেএসসি-জেডিসি মিলিয়ে এবার জিপিএ-৫ পেয়েছে ১ লাখ ৯৬ হাজার ২৬৩ জন।

এর মধ্যে ৮টি সাধারণ বোর্ডের অধীনে জেএসসিতে ৯২ দশমিক ৩১ শতাংশ এবং মাদ্রাসা বোর্ডের অধীনে জেডিসিতে ৯২ দশমিক ৪৬ শতাংশ শিক্ষার্থী পাস করেছে।

গত ১ থেকে ১৮ নভেম্বর জেএসসি-জেডিসিতে অংশ নেয় ২৩ লাখ ২৫ হাজার ৯৩৩ জন শিক্ষার্থী। প্রাথমিক ও ইবতেদায়ী সমাপনী পরীক্ষায় অংশ নেয় ৩২ লাখ ৫৪ হাজার ৫১৪ জন শিক্ষার্থী।

ফল জানা যাবে যেভাবে

পিএসসি ও ইবতেদায়ি পরীক্ষা

প্রাথমিক শিক্ষা অধিদপ্তর www.dpe.gov.bd এবং টেলিটকের ওয়েবসাইট (http://dperesult.teletalk.com.bd/dpe.php) থেকে প্রাথমিক ও ইবতেদায়ী সমাপনীর ফল জানা যাবে।

এছাড়া যেকোনো মোবাইল ফোন থেকে DPE লিখে স্পেস দিয়ে থানা/উপজেলার কোড নম্বর লিখে স্পেস দিয়ে রোল নম্বর লিখে স্পেস দিয়ে ২০১৫ লিখে ১৬২২২ নম্বরে এসএমএস পাঠিয়েও ফল জানা যাবে।

ইবতেদায়ীর ফলের জন্য EBT লিখে স্পেস দিয়ে থানা/উপজেলার কোড নম্বর লিখে স্পেস দিয়ে রোল নম্বর লিখে স্পেস দিয়ে ২০১৫ লিখে ১৬২২২ নম্বরে এসএমএস পাঠাতে হবে।

এই এসএমএস লেখার সময় সরকারি অথবা রেজিস্টার্ড বেসরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের EMIS কোড নম্বরের প্রথম পাঁচ সংখ্যা উপজেলা/থানা কোড হিসেবে ব্যবহার করতে হবে। এই নম্বর প্রাথমিক শিক্ষা অধিদপ্তরের ওয়েবসাইট, সংশ্লিষ্ট জেলা প্রাথমিক শিক্ষা অফিস, উপজেলা/থানা শিক্ষা অফিস ও প্রাথমিক বিদ্যালয় থেকে জানা যাবে।

আর শিক্ষাবোর্ডগুলোর ওয়েবসাইট (www.educationboardresults.gov.bd) ছাড়াও সংশ্লিষ্ট বোর্ডের ওয়েবসাইট থেকে জেএসসি-জেডিসির ফল জানা যবে।

জেএসসি ও জেডিসি

যেকোনো মোবাইল থেকে JSC/JDC লিখে স্পেস দিয়ে নিজ বোর্ডের নামের প্রথম তিন অক্ষর লিখে স্পেস দিয়ে রোল নম্বর লিখে স্পেস দিয়ে ২০১৫ লিখে ১৬২২২ নম্বরে এসএমএস করলে ফিরতি এসএমএসে ফল জানিয়ে দেওয়া হবে।

এই বিভাগের আরো সংবাদ