চার মাসে রাজস্ব আদায় কম হয়েছে ৮.৫২ শতাংশ
সোমবার, ২৫শে মে, ২০২০ ইং
today-news
brac-epl
প্রচ্ছদ » অর্থনীতি

চার মাসে রাজস্ব আদায় কম হয়েছে ৮.৫২ শতাংশ

nbr_buildingদেশের ইতিহাসের সবচেয়ে বড় বাজেট হয়েছে ২০১৩-১৪ অর্থবছরে। বড় বাজেটে রাজস্ব আদায়ের লক্ষ্যমাত্রাও ছিল অনেক বড়। আশা করা হচ্ছিল ১ লাখ ৩৬ হাজার ৯০ কোটি টাকার বিশাল লক্ষ্যমাত্রা অর্জন করাটাও তেমন কঠিন কিছু হবে না। কিন্তু দেশের চলমান অর্থনৈতিক সংকট এবং রাজনৈতিক অস্থিরতার কারণে বছরের প্রথম চার মাসে রাজস্ব আদায়ে অনেক পিছিয়ে জাতীয় রাজস্ব বোর্ড (এনবিআর)। গত বছরের একই সময়ের তুলনায় কিছুটা বেশি হলেও রাজস্ব আদায়ে চলতি বছরের চার মাসের লক্ষ্যমাত্রার তুলনায় প্রায় ৩ হাজার ১২০ কোটি ঘাটতি রয়েছে বলে নিশ্চিত করেছে দেশের রাজস্ব আদায়কারী প্রতিষ্ঠানটি। যা আলোচ্য সময়ের লক্ষ্যমাত্রার তুলনায় প্রায় সাড়ে আট (৮ দশমিক ৫২) শতাংশ কম।

২০১৩- ১৪অর্থবছরের প্রথম চার মাসে রাজস্ব আদায় লক্ষ্যমাত্রার তুলনায় বিশাল অংকে ঘাটতি থাকায় বাজেটের লক্ষ্যমাত্রা পূরণ নিয়েও শঙ্কায় রয়েছে সংস্থাটির অভ্যন্তরিণ সম্পদ বিভাগের কর্মকর্তারা। তবে ২০১২-১৩ অর্থবছরের তুলনায় ১৬ শতাংশ প্রবৃদ্ধি থাকায় কিছুটা আশাবাদি তারা।

এ প্রসঙ্গে এনবিআরের আয়কর নীতির সদস্য সৈয়দ আমিনুল করিম বলেন, লক্ষ্যমাত্রা অনুযায়ী মোট রাজস্ব আহরণে ঘাটতি থাকলেও প্রবৃদ্ধি গত বছরের তুলনায় বেশি।চলমান রাজনৈতিক অস্থিরতা কেটে গেলে ও ব্যবসার সুষ্ঠ পরিবেশ সৃষ্টি হলে বছর শেষে বাজেটে নির্ধারিত রাজস্ব আদায়ের লক্ষ্যমাত্রা অর্জন সম্ভব হবে।

এনবিআর সূত্র জানায়, চলতি ২০১৩-১৪ অর্থবছরে জুলাই থেকে অক্টোবর পর্যন্ত প্রথম চার মাসে রাজস্ব আদায়ের লক্ষ্যমাত্রা ছিল ৩৬ হাজার ৬১২ কোটি ৫২ লাখ টাকা।আর এর বিপরীতে রাজস্ব আদায়ের চারটি খাত শুল্ক, স্থানীয় পর্যায়ে মূসক (ভ্যাট), আয়কর ও অন্যান্য খাতে নিট রাজস্ব আদায় হয়েছে ৩৩ হাজার ৪৯২ কোটি টাকা।যা লক্ষ্যমাত্র্রার তুলনায় ৩ হাজার ১১৯ কোটি ৬৮ লাখ টাকা কম। যা আলোচ্য সময়ের লক্ষ্যমাত্রার তুলনায় প্রায় সাড়ে আট (৮ দশমিক ৫২)শতাংশ কম। তবে গত অর্থবছরে একই সময়ে ২৮ হাজার ৭৫৯ কোটি টাকার রাজস্ব আদায় হওয়ায় এবছর প্রবৃদ্ধি হয়েছে ১৬ দশমিক ৩৮ শতাংশ।

সূত্র আরও জানায়, চলতি ২০১৩-১৪ অর্থবছরে প্রথম চার মাস (জুলাই-অক্টোবর) রাজস্ব আদায়ে সবচেয়ে বেশি ঘাটতি হযেছে  আয়কর খাতে। এ খাতে  ১১ হাজার ৫৮৪ কোটি টাকার বিপরীতে আদায় হয়েছে ১০ হাজার ১৯৬ কোটি ১৮ লাখ টাকা। যা লক্ষ্যমাত্রার তুলনায় ১ হাজার ৩৮৮ কোটি টাকা কম। তবে পূর্ববর্তী ২০১২-১৩ অর্থবছরে একই সময়ে ৭ হাজার ৮২৪ কোটি টাকা আয়কর আদায় হওয়ায় এবছর এ খাতে প্রবৃদ্ধি হয়েছে ৩০ দশমিক ৩১ শতাংশ।

ঘাটতির দিক থেকে দ্বিতীয় অবস্থানে রয়েছে মূল্য সংযোজন কর (মূসক) খাত। এই সময়ে এ খাতে ১৩ হাজার ২৪৭ কোটি টাকার লক্ষ্যমাত্রার বিপরীতে রাজস্ব আদায় করা হয়েছে ১২ হাজার ৪১৫ কোটি। যা লক্ষ্যমাত্রার তুলনায় ৮৩২ কোটি কম। তবে পূর্ববর্তী বছরের একই সময়ে ১০ হাজার ৩১৬ কোটি ৭৯ লাখ টাকা আদায় হওয়ায় এ বছর প্রবৃদ্ধি ২০ দশমিক ৩৪ কোটি টাকা।

তৃতীয় অবস্থানে থাকা আমদানি  শুল্ক ও সম্পূরক শুল্কে প্রথম চার মাসে ১১ হাজার ৪৪৮ কোটি টাকার বিপরীতে আদায় হয়েছে ১০ হাজার ৬৫৬ কোটি ৮৭ লাখ টাকা। যাতে লক্ষ্যমাত্রার তুলনায়  পিছিযে রয়েছে ৭৯১ কোটি ১৩ লাখ টাকা। আর পূর্ববর্তী ২০১২-১৩ অর্থবছরে একই সময়ে এ খাতে ১০ হাজার ৪০৯ কোটি ৮৯ লাখ টাকা আদায় হওয়ায়  প্রবৃদ্ধি  ধরা হয়েছে ২ দশমিক ৩৭ কোটি টাকা।

প্রবৃদ্ধির বিচারে ও লক্ষ্যমাত্রার তুলনায় সবচেয়ে বেশি পিছিয়ে রয়েছে ভ্রমণ ও অন্যান্য খাত। এ খাতে পূর্ববর্তী বছরের তুলনায় প্রথম চার মাসে প্রবৃদ্ধি কম হয়েছে ২ দশমিক ৩০ শতাংশ। চলতি বছরের প্রথম চার মাসে এ খাতে ৩৩৩ কোটি টাকার লক্ষ্যমাত্রার বিপরীতে আদায় হয়েছে  মাত্র ২০৩ কোটি ৫৩ লাখ টাকা। যা লক্ষ্যমাত্রার তুলনায় ১২৯ কোটি ৪৯ লাখ বা ৩৯ শতাংশ কম।

এদিকে  অক্টোবর মাসের রাজস্ব আদায়ের পরিসংখ্যান থেকে দেখা যায়, এ মাসে চারটি খাতে মোট রাজস্ব আদায় হয়েছে ৮ হাজার ৮২৬ কোটি ১৭ লাখ টাকা। এর মধ্যে  আয়করে ২ হাজার ৮৮০ কোটি টাকা, শুল্কে ২ হাজার ৫৪৫ কোটি ৩৭ লাখ টাকা ও মূসকে ৩ হাজার ৩৩৯ কোটি ৯৯ লাখ টাকা এবং ভ্রমণ ও অন্যান্য খাতে ৬০ কোটি টাকা।

এই বিভাগের আরো সংবাদ