কেবল মিষ্টি না, গুড়ে বাড়ে রূপের জৌলুস
today-news
brac-epl
প্রচ্ছদ » লাইফস্টাইল

কেবল মিষ্টি না, গুড়ে বাড়ে রূপের জৌলুস

মিষ্টি খাবার হিসেবে গুড় আমাদের দেশে বহুল পরিচিত। এক দিকে কাঁচা গুড়ের ব্যবহার যেমন আছে তেমনি মিষ্টি জাতীয় খাবার তৈরিতে এর জুড়ি নেই।

মজার মজার পিঠা-পায়েশের তৈরির অন্যতম উপাদানটি হলো গুড়। চিনি ছাড়া আর সব শর্করা জাতীয় খাবারের মধ্যে গুড় অন্যতম। শহর ও গ্রাম সব জায়গায় গুড় পাওয়া যায় সহজেই। এতে আছে সুক্রোজ, গ্লুকোজ এবং ফ্রুকটোজ। এ ছাড়াও গুড়ে আছে ক্যালসিয়াম, ম্যাগনেসিয়াম, পটাশিয়াম ও লৌহের গুরুত্বপূর্ণ উপাদন।

cute-girls

আজকাল খাবারের স্বাদ বাড়ানোসহ শরীরের প্রয়োজনীয় খনিজ উপাদান সরবরাহের পাশাপাশি এটি বাড়াচ্ছে রূপের জৌলুস।

চলুন জেনে নেওয়া যাক সৌন্দর্য চর্চায় গুড়ের কী কী উপকারিতা আছে-

ব্রণ এবং ফুঁসকুড়ি দূর করে গুড়। প্রতিদিন একটি প্রমাণ সাইজের লেবুর সমান গুড় খেলে  মুখমণ্ডলের ত্বক পরিষ্কার, দাগ দূর করা, ফুঁসকুড়ি নির্মূল এবং ত্বকের লাবণ্য বাড়াতে সাহায্য করে।

গুড় তারুণ্য ধরে রাখতে এবং ত্বকে বলিরেখা পড়া থেকে রক্ষা করে। অকাল বার্ধক্য রোধে আয়ুর্বেদিক ওষুধ তৈরিতে গুড়, তিলের বীজ এবং বিভিন্ন ঔষুধি গাছের সংমিশ্রণ ব্যবহার করা হয়।

ঝলমলে বা দ্যুতিময় চুলের জন্য একটি ছোট পাত্রে দুই চামচ মুলতানি মাটি, পানি এবং গুড়ের মিশ্রণ তৈরি করে চুলে লাগাতে পারেন। ঠিক দশ মিনিট পর ভালো করে ধুয়ে ফেলুন। নিয়মিত ব্যবহারে আপনার চুলের স্বাস্থ্য ও সৌন্দর্য দুটোই বৃদ্ধি পাবে।

গুড়ে যে পটাশিয়াম আছে তা উচ্চ রক্তচাপ কমানোর উপকারী। গুড়ের লৌহ রক্তশূন্যতা কমাতে সাহায্য করে।

গুড় থেকে আমরা মূলত শক্তি পাই। প্রতি গ্রাম গুড় দেয় প্রায় চার ক্যালরি শক্তি।

পিএল/টিআর

 

এই বিভাগের আরো সংবাদ