২০১৫ সালে হলিউডের সেরা ৫ ছবি
today-news
brac-epl
প্রচ্ছদ » বিনোদন

২০১৫ সালে হলিউডের সেরা ৫ ছবি

নানা আঙ্গিকের গল্পের স্বাদ নিয়ে ২০১৫ সালে মুক্তি পেয়েছে হলিউডের বেশকিছু ছবি। তবে সব ছবিই দর্শকশ্রোতা মহলে সমান গ্রহণযোগ্যতা পায়নি। পারেনি আশাব্যঞ্জক ব্যবসা করতেও। এর মধ্যে কিছু সংখ্যক ছবি বক্স অফিসে তুমুল ঝড় তুলতে সক্ষম হয়েছে। এবার চলুন জেনে নেওয়া যাক চলতি বছর হলিউড বক্স অফিসে ঝড় তোলা এরকম সেরা ৫ ছবি সম্পর্কে।

জুরাসিক পার্ক ছবির দৃশ্য। ছবি সংগৃহীত

জুরাসিক ওয়ার্ল্ড ছবির দৃশ্য। ছবি সংগৃহীত

১. জুরাসিক ওয়ার্ল্ড: ব্যাপক জনপ্রিয় ‘জুরাসিক পার্ক’ সিরিজের ৪র্থ সিক্যুয়েল ‘জুরাসিক ওয়ার্ল্ড’। পর্দায় বিলুপ্ত ডায়নোসর-এর অঙ্গভঙ্গি দেখতে কে না ভালোবাসে মানুষ। আর একেই পুঁজি করে ৪র্থ সিক্যুয়েল নির্মাণ করেন পরিচালক কলিন ট্রেভরো।তার ফলও পেয়েছেন হাতেনাতে। হলিউড বক্স অফিসের বিচারে এই ছবি ২০১৫ সালের সবচেয়ে সফল।

স্পেকটার ছবির পোস্টার। ছবি সংগৃহীত

স্পেকটার ছবির পোস্টার। ছবি সংগৃহীত

২. স্পেকটার: জেমস বন্ড সিরিজের ২০১৫ সালে মুক্তি পাওয়া ছবিটিতে রয়েছে আগের সব মসলা। সেই টানটান গল্প, চোখধাঁধানো স্টান্ট, অ্যাকশন, লাস্যময়ীদের ছলনা, দীর্ঘ চুম্বন। জেমস বন্ড প্যাকেজের সব ছিল স্পেকটার-এ। স্পেকটার নামক এক গ্যাংস্টার দলকে ধরতে বন্ডের মিশন নিয়ে ছবি। বক্স অফিসে বছরের অন্যতম সফল ছবি।

মঙ্গল গ্রহে এভাবেই সবজির চাষ করা দেখানো হয় মার্সিয়ান ছবিতে। ছবি সংগৃহীত

মঙ্গল গ্রহে এভাবেই সবজির চাষ করা দেখানো হয় মার্সিয়ান ছবিতে। ছবি সংগৃহীত

৩. দ্য মার্সিয়ান: মঙ্গল গ্রহে অভিযান গিয়ে নাসার এক মহাকাশচারী মারা যান। আর তার সঙ্গীরা বেঁচে যান। কিন্তু পরে দেখা যায় মঙ্গল গ্রহে একা বেঁচে থাকেন সেই মহাকাশচারী। কীভাবে দিনের পর দিন তিনি শুধু নিজের বুদ্ধি আর মনের জোরে বেঁচে থাকেন এবং পৃথিবীতে ফিরে আসেন সেটিই এই ছবিতে দারুণভাবে দেখানো হয়েছে। ম্যাট ডেমনের অন্যতম সেরা ছবি এটি। মার্কিন প্রেসিডেন্ট বারাক ওবামা ছবিটিকে বছরের সেরা ছবি বলে অ্যাখা দিয়েছেন। অস্কারের দৌড়ে প্রথম দিকে আছে ছবিটি। বক্স অফিসেও দারুণ সফল।

ফিউরিয়াস সেভেন ছবির ট্রেলার। ছবি সংগৃহীত

ফিউরিয়াস সেভেন ছবির ট্রেলার। ছবি সংগৃহীত

৪. ফিউরিয়াস সেভেন: বিখ্যাত পরিচালক পল ওয়াকারের জীবনের শেষ ছবি এটি। অর্ধেক ছবির শুটিং করেই মারা যান পল ওয়াকার। এতে ছবির কাজ অনিশ্চিত হয়ে পড়লেও শেষ পর্যন্ত কাজ শেষ করেন আগের ৬টি ছবির পরিচালক জেমস ওয়ান। ওয়াকারের আবেগ কাজে লাগিয়ে বাজিমাত করে ফিউরিয়াস সেভেন। পল ওয়াকারের শেষ ছবি হওয়ায় বিপুল ব্যবসা করে ছবিটি।

ইনসাইড আউট ছবির পোস্টার। ছবি সংগৃহীত

ইনসাইড আউট ছবির পোস্টার। ছবি সংগৃহীত

৫. ইনসাইড আউট: মৌলিক ৫টি অনুভূতি- আনন্দ, দুঃখ, বিতৃষ্ণা, ভয় এবং ক্ষোভের ওপর ভিত্তি করে নির্মিত ডিজনি পিক্সারের অভিনব অ্যানিমেশন ছবি ইনসাইড আউট। নতুন করে এটি মানুষের মনে স্থান করে নিয়েছে। ছবি নির্মাণের সব খরচই উঠে আসে মুক্তির অল্প কিছুদিনের মধ্যে। চুটিয়ে ব্যবসাও করে ছবিটি। সেই অনুপাতে এই বছরের সেরা ছবি এটি।

 

 

 

এই বিভাগের আরো সংবাদ