'টানাপোড়নে' স্বর্ণের বাজার
today-news
brac-epl
প্রচ্ছদ » লিড নিউজ

‘টানাপোড়নে’ স্বর্ণের বাজার

সম্ভাব্য মার্কিন সুদের হার বৃদ্ধি নিয়ে গত কয়েকদিন ধরে দুলছে বাজার। বিনিয়োগকারীদের মধ্যে বাড়ছে উদ্বেগ। আর এ আশঙ্কায় গতকাল সোমবার স্বর্ণের দরপতন হলেও আজ মঙ্গলবার দাম কিছুটা বেড়েছে।

বিজনেজ স্ট্যান্ডার্ডের এক খবরে বলা হচ্ছে, এ সপ্তাহের শেষ দিকে সম্ভাব্য মার্কিন সুদের হার বাড়াতে যাচ্ছে ফেড। আর এটি হবে দীর্ঘ এক দশকে যুক্তরাষ্ট্রের প্রথমবারের মতো সুদের হার বৃদ্ধি করা।

gold-wearing-woman

ছবি সংগৃহীত

সুদের হার বৃদ্ধিতে ডলার শক্তিশালী হতে পারে। সেই সঙ্গে যেসব স্বর্ণে সুদ দেওয়া হয় না তার চাহিদা কমে যেতে পারে বলে ধারণা করা হচ্ছে।

খবরে বলা হয়, ফেডের এমন পদক্ষেপের প্রত্যাশায় গত ৩ বছর বাৎসরিক হিসাবে টানা পড়েছে স্বর্ণের দাম। এ বছরও ১০ শতাংশ দর হারিয়েছে এই পণ্যের বাজার।

গতকাল ১.১ শতাংশ দরপতনের পর আজ বিকেলের সেশনে স্পট গোল্ড বিক্রি হয়েছে ০.২ শতাংশ বেড়ে ১০৬৪.২০ ডলারে। এ মাসের শুরুতে প্রায় ৬ বছরে স্বর্ণের দাম সর্বনিম্নে চলে যায়। এসময় স্বর্ণ বিক্রি হয় আউন্সপ্রতি ১ হাজার ৪৫.৮৫ ডলার।

সোমবার আন্তর্জাতিক বাজারে আগামী ফেব্রুয়ারিতে ডেলিভারি হতে যাওয়া স্বর্ণ আউন্সপ্রতি ১২.৩০ ডলার বা ১.১ শতাংশ কমে ১ হাজার ৬৩.৪০ ডলারে বিক্রি হয়।

তবে আজ দর কিছুটা ঘুরে দাঁড়ালেও বিশেষজ্ঞরা বলছেন, ফেডের সিদ্ধান্তের দিকে চেয়ে আছেন বিনিয়োগকারীরা। আর এ জন্য স্বর্ণের বাজারে দরপতন অব্যাহত থাকবে।

যুক্তরাষ্ট্রের একটি ব্যাংক জানায়, আসন্ন সুদের হার বৃদ্ধির কারণে ২০১৬ সালের শুরুর দিকে স্বর্ণের দাম আউন্সপ্রতি ৯৫০ ডলারে দাড়াতে পারে। অন্যদিকে গোল্ডম্যানে স্যাকস জানাচ্ছে, দাম কমে দাড়াবে ১ হাজার ডলারের নিচে।

অর্থসূচক/শাহীন

এই বিভাগের আরো সংবাদ