'যুদ্ধপরাধীর সম্পদ বাজেয়াপ্তে প্রয়োজনে সংবিধান সংশোধন হবে'
today-news
brac-epl
প্রচ্ছদ » লিড নিউজ

‘যুদ্ধপরাধীর সম্পদ বাজেয়াপ্তে প্রয়োজনে সংবিধান সংশোধন হবে’

যুদ্ধপরাধীদের সব সম্পদ বাজেয়াপ্ত করতে প্রয়োজনে সংবিধান সংশোধন করা হবে বলে জানিয়েছেন মুক্তিযুদ্ধ বিষয়ক মন্ত্রী আ.ক.ম. মোজাম্মেল হক।

আজ মঙ্গলবার দুপুরে জাতীয় প্রেসক্লাবে বাংলাদেশ সার্ক চলচ্চিত্র সাংবাদিক ফোরাম আয়োজিত‘বঙ্গবন্ধু মুক্তিযুদ্ধ এবং বাংলাদেশের চলচ্চিত্র ২০১৫; উপলক্ষে এক প্রামান্যচিত্র প্রদর্শনী অনুষ্ঠানে এ কথা জানান তিনি।

মুক্তিযোদ্ধা বিষয়ক মন্ত্রী আ.ক.ম. মোজাম্মেল হক এমপি। ফাইল ছবি

মুক্তিযোদ্ধা বিষয়ক মন্ত্রী আ.ক.ম. মোজাম্মেল হক এমপি। ফাইল ছবি

মোজাম্মেল হক বলেন, সব যুদ্ধপরাধীদের সম্পদ বাজেয়াপ্ত করার প্রক্রিয়া শুরু হয়েছে। বর্তমান সংবিধানে না হলে প্রয়োজনে তা পরিবর্তন করে যুদ্ধপরাধীরদের সব সম্পদ বাজেয়াপ্ত করা হবে।

ধর্মীয় দল হিসেবে নয়; যুদ্ধপরাধী দল হিসেবে জামায়াতকে নিষিদ্ধ করা হবে বলেও জানান তিনি।

মুক্তিযুদ্ধ বিষয়ক মন্ত্রী বলেন, আমরা জয়ের আনন্দ ভুলে গিয়েছি। কিন্তু পরাজিত সৈনিকেরা এখনও সেই কথা ভুলেনি। তাই তারা এখনও ষড়যন্ত্র করছে।

বিএনপি-জামায়াতকে উদ্দেশ করে মোজাম্মেল হক বলেন, মানুষ হত্যা করে ক্ষমতায় যাওয়া বাংলার জনগণ পছন্দ করে না। তাদের রাজনৈতিক কবর অবশ্যই এদেশের মাটিতে রচিত হবে।

অনুষ্ঠানে স্থানীয় সরকার পল্লী উন্নয়ন ও সমবায় প্রতিমন্ত্রী মশিউর রহমান রাঙ্গা বলেন, বঙ্গবন্ধুকে নিয়ে কটূক্তি করা যায় না। আর জাতির পিতাকে নিয়ে যারা কটুক্তি করে, তারা যুদ্ধপরাধী, মৌলবাদী ও অশিক্ষিতের দল।

আয়োজক সংগঠনের সভাপতি রেদুয়ান খন্দকারের সভাপতিত্বে প্রামাণ্যচিত্র প্রদর্শনী অনুষ্ঠানে আরও বক্তব্য রাখেন সাংস্কৃতিক ব্যক্তিত্ব শফি কামাল, বঙ্গবন্ধু স্মৃতি ফাউন্ডেশনের সভাপতি লায়ন সাখোয়াত হোসেন, উত্তম কুমার বড়ুয়া প্রমুখ।

অর্থসূচক/মাইদুল

এই বিভাগের আরো সংবাদ