হারতে হারতে আবারও জয় পেল বরিশাল
today-news
brac-epl
প্রচ্ছদ » ক্রিকেট

হারতে হারতে আবারও জয় পেল বরিশাল

বাংলাদেশ প্রিমিয়ার লিগের (বিপিএল) গ্রুপ পর্বের শেষ ম্যাচে ঢাকা ডাইনামাইটসের বিপক্ষে ২ উইকেটে জয় পেয়েছে বরিশাল বুলস। ঢাকার দেওয়া ১৩৭ রানের টার্গেটে ব্যাট করতে নেমে ২ বল হাতে রেখে ৮ উইকেট হারিয়ে জয়ের বন্দরে পৌঁছায় বরিশাল। এই আসরে বেশ কয়েকটি ম্যাচে খুব কম ব্যবধানে জয় পেয়েছে মাহমুদুল্লাহ রিয়াদের দল। এমনকি কয়েকটি ম্যাচের হারের মুখে গিয়েও জয় নিয়ে ফিরেছে দলটি।

Evin Lewis

বরিশালের উদ্বোধনী ব্যাটসম্যান এভিন লুইসের একটি বাউন্ডারি শট।

মিরপুর শের-ই-বাংলা জাতীয় ক্রিকেট স্টেডিয়ামে আজ বৃহস্পতিবার সন্ধ্যা ৬টা ৪৫ মিনিটে ম্যাচটি শুরু হয়। টস জিতে ঢাকাকে ব্যাটিংয়ের আমন্ত্রণ জানান বরিশালের অধিনায়ক মাহমুদুল্লাহ রিয়াদ। প্রথমে ব্যাট করতে নেমে নির্ধারিত ২০ ওভারে ৬ উইকেট হারিয়ে ১৩৬ রান করে ঢাকা। গতকালের ম্যাচে নিয়মিত অধিনায়ক কুমার সাঙ্গাকারা না খেলায় ঢাকার নেতৃত্ব দিয়েছেন নাসির হোসাইন।

ঢাকার দেওয়া ১৩৭ রানের টার্গেটে ব্যাট করতে নেমে দলীয় ৫৯ রানের মধ্যে ৬টি উইকেট হারায় বরিশাল। ইনিংসের ২.৫ ওভারে মোহাম্মদ ইরফানের বলে শুক্কুরের হাতে ক্যাচ দিয়ে সাজঘরে ফেরেন উদ্বোধনী ব্যাটসম্যান রনি তালুকদার (৪)। চতুর্থ ওভারে ব্রেন্ডন টেইলরকে (৩) এলবিডব্লিউর ফাঁদে ফেলেন নাবিল সামাদ। ৫.৫ ওভারে নাবিল সামাদের বলে বোল্ড হন অধিনায়ক মাহমুদুল্লাহ রিয়াদ (১)।

ইনিংসের ৯ম ওভারে মোসাদ্দেক হোসেনের বলে ওয়ালারের হাতে ক্যাচ দিয়ে সাজঘরে ফেরেন বিপিএলের একমাত্র সেঞ্চুরিয়ান এভিন লুইস (৯)। ১০.২ ওভারে সাব্বির রহমানকে (৪) এলবিডব্লিউর ফাঁদে ফেলেন মোশাররফ হোসেন। ১২তম ওভারে দলীয় ৫৯ রানে নাসির হোসাইনের বলে মোহাম্মদ হাফিজের হাতে ধরা পড়েন সোহাগ গাজী (১)। ১৪.৩ ওভারে মোশাররফ হোসেনের বলে উদ্বোধনী ব্যাটসম্যান মেহেদী মারুফকে (৩৭) স্ট্যাম্পিং করেন ইরফান শুক্কুর। দলীয় ৯৪ রানে ১৬.১ ওভারে মোশাররফ হোসেনের বলে রায়ান টেন ডেসকটের হাতে ধরা পড়েন সোহরাওয়ার্দী শুভকে (২)। অবশেষে নিখিল দত্তকে সঙ্গে নিয়ে ৯ম উইকেটে ৪৩ রানের গড়েন রায়াদ এমরিট। ৫৪ রানে অপরাজিত থাকেন এমরিট।

এর আগে মাহমুদুল্লাহ রিয়াদের আমন্ত্রণে ব্যাট করতে নেমে ৪২ রানের উদ্বোধনী জুটি গড়েন মোহাম্মদ হাফিজ ও ফরহাদ রেজা। ৫.২ ওভারে ফরহাদ রেজাকে (১৯) বোল্ড করেন সোহাগ গাজী। ৬.৩ ওভারে নিখিল দত্তের বলে মাহমুদুল্লাহর হাতে ক্যাচ দিয়ে সাজঘরে ফেরেন মোহাম্মদ হাজিফ (২৫)। ৮.৪ ওভারে ওয়ালারকে (১০) বোল্ড করেন নিখিল দত্ত। একাদশ ওভারে নিখিল দত্তের বলে সোহরাওয়ার্দী শুভর হাতে ক্যাচ দিয়ে সাজঘরে ফেরেন অধিনায়ক নাসির হোসাইন (১৪)। ১৭.৫ ওভারে এমরিটের বলে মাহমুদুল্লাহর হাতে ধরা পড়েন রায়ান টেন ডেসকট (২২)। ১৯.১ ওভারে সৈকত আলীকে (১৩) বোল্ড করেন এমরিট। ৩০ রানে অপরাজিত থাকেন মোসাদ্দেক হোসেন।

বিপিএলের চলতি আসরে এ পর্যন্ত ১০ ম্যাচে ৭টি জয় ও ৩টি পরাজয় নিয়ে পয়েন্ট টেলিবের তৃতীয় স্থানে আছে বরিশাল বুলস। অপরদিকে সমান ম্যাচে ৪টি জয় ও ৬টি পরাজয় নিয়ে পয়েন্ট টেবিলের ৪র্থ স্থানে থেকে কোয়ালিফায়ার রাউন্ড নিশ্চিত করেছে ঢাকা ডাইনামাইটস।

এই বিভাগের আরো সংবাদ